রংপুরে স্কুলের বারান্দায় মিলল ছাত্রের রক্তাক্ত লাশ
jugantor
রংপুরে স্কুলের বারান্দায় মিলল ছাত্রের রক্তাক্ত লাশ

  রংপুর ব্যুরো  

১৭ এপ্রিল ২০২০, ২০:০২:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

রংপুরের বদরগঞ্জে বাড়ির পাশে দুর্বৃত্তরা শ্যামল চন্দ্র মহন্ত ওরফে নয়ন (১৬) নামে এক ছাত্রকে হত্যা করে। পরে বদরগঞ্জ পৌরশহরের কলেজিয়েট উচ্চ বিদ্যালয়ের বারান্দায় লাশ ফেলে যায়। 

শুক্রবার সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। নিহত নয়ন বদরগঞ্জ পৌরশহরের কলেজিয়েট উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র ছিল। 

সে ওই বিদ্যালয় থেকে চলতি বছর বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। তার বাবার নাম নারায়ণ চন্দ্র মহন্ত। 

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে নয়ন স্কুলের পাশে নিজ বাড়িতে ছিল। এ সময় প্রতিবেশী জুলফিকার নামে এক যুবক গেটের বাইরে থেকে কথা আছে বলে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। রাত গভীর হলেও সে আর বাড়ি ফিরে আসায়। রাতে আশপাশের এলাকায় তার খোঁজ নেন পরিবারের লোকজন। তার কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। 

শুক্রবার সকালে তার লাশ স্কুলের বারান্দায় রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পায় স্থানীয়রা। পরে পরিবারে খবর দেয়া হয়। 

পুলিশের ধারণা, স্কুল চত্বরের ভেতরের টিউবয়েলের হাতল খুলে তার মাথায় আঘাত করা হয়েছে। এতে তার মাথা থেঁতলে যায়। মাথা, নাক-মুখ দিয়ে রক্ত ঝরার দাগ লেগেছিল বারান্দার মেঝেতে।  

বদরগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) আরিফ আলী বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্তের  পর  আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

রংপুরে স্কুলের বারান্দায় মিলল ছাত্রের রক্তাক্ত লাশ

 রংপুর ব্যুরো 
১৭ এপ্রিল ২০২০, ০৮:০২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রংপুরের বদরগঞ্জে বাড়ির পাশে দুর্বৃত্তরা শ্যামল চন্দ্র মহন্ত ওরফে নয়ন (১৬) নামে এক ছাত্রকে হত্যা করে। পরে বদরগঞ্জ পৌরশহরের কলেজিয়েট উচ্চ বিদ্যালয়ের বারান্দায় লাশ ফেলে যায়।

শুক্রবার সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। নিহত নয়ন বদরগঞ্জ পৌরশহরের কলেজিয়েট উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র ছিল।

সে ওই বিদ্যালয় থেকে চলতি বছর বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। তার বাবার নাম নারায়ণ চন্দ্র মহন্ত।

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে নয়ন স্কুলের পাশে নিজ বাড়িতে ছিল। এ সময় প্রতিবেশী জুলফিকার নামে এক যুবক গেটের বাইরে থেকে কথা আছে বলে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। রাত গভীর হলেও সে আর বাড়ি ফিরে আসায়। রাতে আশপাশের এলাকায় তার খোঁজ নেন পরিবারের লোকজন। তার কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

শুক্রবার সকালে তার লাশ স্কুলের বারান্দায় রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পায় স্থানীয়রা। পরে পরিবারে খবর দেয়া হয়।

পুলিশের ধারণা, স্কুল চত্বরের ভেতরের টিউবয়েলের হাতল খুলে তার মাথায় আঘাত করা হয়েছে। এতে তার মাথা থেঁতলে যায়। মাথা, নাক-মুখ দিয়ে রক্ত ঝরার দাগ লেগেছিল বারান্দার মেঝেতে।

বদরগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) আরিফ আলী বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্তের পর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।