প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন মাওলানা যুবায়ের আনসারী আর নেই
jugantor
প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন মাওলানা যুবায়ের আনসারী আর নেই

  ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি  

১৭ এপ্রিল ২০২০, ২০:৩১:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

মাওলানা যুবায়ের আহমদ আনসারী

প্রখ্যাত মোফাসসিরে কুরআন ও বরেণ্য ইসলামী আলোচক আল্লামা মাওলানা যুবায়ের আহমদ আনসারী ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

শুক্রবার বিকাল ৫টা ৪৫ মিনিটে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের মার্কাসপাড়ায় নিজ বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৫৬ বছর।

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে, ৪ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। শনিবার সকাল ১০টায় তার প্রতিষ্ঠিত জামিয়া রহমানিয়া বেড়তলা মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। পরে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশের নায়েবে আমির এবং বেড়তলা মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ ছিলেন তিনি। এ ছাড়া তিনি একাধিক মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করে গেছেন।

তিনি ছিলেন ইসলামী আন্দোলনের একজন বীর সেনানী ও আন্তর্জাতিক ইসলামী ব্যক্তিত্ব। এ ছাড়া ইসলামী আলোচক হিসেবে খ্যাতি রয়েছে তার বিশ্বজুড়ে।

তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন জেলা পরিষদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার চেয়ারম্যান, বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল আলম এমএসসি, জাতীয় পার্টির সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী মো. মামুনূর রশিদ।

প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন মাওলানা যুবায়ের আনসারী আর নেই

 ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি 
১৭ এপ্রিল ২০২০, ০৮:৩১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মাওলানা যুবায়ের আহমদ আনসারী
মাওলানা যুবায়ের আহমদ আনসারী। ছবি: সংগৃহীত

প্রখ্যাত মোফাসসিরে কুরআন ও বরেণ্য ইসলামী আলোচক আল্লামা মাওলানা যুবায়ের আহমদ আনসারী ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। 

শুক্রবার বিকাল ৫টা ৪৫ মিনিটে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের মার্কাসপাড়ায় নিজ বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৫৬ বছর। 

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে, ৪ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। শনিবার সকাল ১০টায় তার প্রতিষ্ঠিত জামিয়া রহমানিয়া বেড়তলা মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। পরে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে। 

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশের নায়েবে আমির এবং বেড়তলা মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ ছিলেন তিনি। এ ছাড়া তিনি একাধিক মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করে গেছেন।

তিনি ছিলেন ইসলামী আন্দোলনের একজন বীর সেনানী ও আন্তর্জাতিক ইসলামী ব্যক্তিত্ব। এ ছাড়া ইসলামী আলোচক হিসেবে খ্যাতি রয়েছে তার বিশ্বজুড়ে। 

তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন জেলা পরিষদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার চেয়ারম্যান, বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল আলম এমএসসি, জাতীয় পার্টির সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী মো. মামুনূর রশিদ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন