ময়মনসিংহ হাসপাতালের চিকিৎসক-নার্সসহ ১৪ জন করোনায় আক্রান্ত
jugantor
ময়মনসিংহ হাসপাতালের চিকিৎসক-নার্সসহ ১৪ জন করোনায় আক্রান্ত

  ময়মনসিংহ ব্যুরো  

২১ এপ্রিল ২০২০, ২১:৫৭:৪২  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক-নার্সসহ ১৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ৫ চিকিৎসকসহ নার্স, আয়া ও ক্লিনাররা রয়েছেন।

নেত্রকোনা জেলার খালিয়াজুড়ি থেকে করোনায় আক্রান্ত এক অন্তঃসত্ত্বা নারী তথ্য গোপন করে চিকিৎসাধীন থাকায় হাসপাতালজুড়ে এই ভাইরাস ছড়িয়েছে বলে ধারণা চিকিৎসকদের।

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে মঙ্গলবার প্রথম দফায় ময়মনসিংহ বিভাগের চার জেলার ৯৪ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হয়েছিল।

এর মধ্যে ২০ জনের করোনা পজিটিভ হয়। এদের মধ্যে ময়মনিসিংহ জাসপাতালের ১৪ জন, ফুলবাড়িয়ার একজন উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার এবং নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দুজন চিকিৎসক ও জামালপুরের একজন চিকিৎসক রয়েছেন।

চিকিৎসক ও সংশ্লিষ্টদের করোনা পজিটিভ হওয়ায় হাসপাতালজুড়ে কর্মরত, ভর্তিকৃত রোগী ও স্বজনদের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

সিভিল সার্জন ডা. এবিএম মসিউল আলম জানান, নেত্রকোনা জেলার খালিয়াজুড়ি থেকে করোনায় আক্রান্ত এক অন্তঃসত্ত্বা নারী তথ্য গোপন করে মচিমহায় ভর্তি হন। তার মাধ্যমেই হাসপাতালের ওয়ান স্টপ সার্ভিস, গাইনী বিভাগ, ডায়ালাইসিস বিভাগ ও আইসিইউতে কর্মরতদের মাধ্যমে ছড়াতে পারে বলে ধারণা।

এ নিয়ে ময়মনসিংহ জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৮ জনে।

ময়মনসিংহ হাসপাতালের চিকিৎসক-নার্সসহ ১৪ জন করোনায় আক্রান্ত

 ময়মনসিংহ ব্যুরো 
২১ এপ্রিল ২০২০, ০৯:৫৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক-নার্সসহ ১৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ৫ চিকিৎসকসহ নার্স, আয়া ও ক্লিনাররা রয়েছেন।

নেত্রকোনা জেলার খালিয়াজুড়ি থেকে করোনায় আক্রান্ত এক অন্তঃসত্ত্বা নারী তথ্য গোপন করে চিকিৎসাধীন থাকায় হাসপাতালজুড়ে এই ভাইরাস ছড়িয়েছে বলে ধারণা চিকিৎসকদের। 

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে মঙ্গলবার প্রথম দফায় ময়মনসিংহ বিভাগের চার জেলার ৯৪ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হয়েছিল। 

এর মধ্যে ২০ জনের করোনা পজিটিভ হয়। এদের মধ্যে ময়মনিসিংহ জাসপাতালের ১৪ জন, ফুলবাড়িয়ার একজন উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার এবং নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দুজন চিকিৎসক ও জামালপুরের একজন চিকিৎসক রয়েছেন। 

চিকিৎসক ও সংশ্লিষ্টদের করোনা পজিটিভ হওয়ায় হাসপাতালজুড়ে কর্মরত, ভর্তিকৃত রোগী ও স্বজনদের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। 

সিভিল সার্জন ডা. এবিএম মসিউল আলম জানান, নেত্রকোনা জেলার খালিয়াজুড়ি থেকে করোনায় আক্রান্ত এক অন্তঃসত্ত্বা নারী তথ্য গোপন করে মচিমহায় ভর্তি হন। তার মাধ্যমেই হাসপাতালের ওয়ান স্টপ সার্ভিস, গাইনী বিভাগ, ডায়ালাইসিস বিভাগ ও আইসিইউতে কর্মরতদের মাধ্যমে ছড়াতে পারে বলে ধারণা। 

এ নিয়ে ময়মনসিংহ জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৮ জনে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন