ভোলায় দফায় দফায় হামলা ভাংচুর, আ’লীগ নেতা বহিষ্কার
jugantor
ভোলায় দফায় দফায় হামলা ভাংচুর, আ’লীগ নেতা বহিষ্কার

  ভোলা প্রতিনিধি  

২১ এপ্রিল ২০২০, ২২:০৩:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

বাড়ি ঘর ভাঙচুর
বাড়ি ঘর ভাঙচুর

ভোলার ভেলুমিয়ায় চর দখলের ইস্যু ও একটি বাড়ি নির্মাণের ইট পরিবহনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় সংঘর্ষ, ধাওয়া, ১১টি বাড়িতে হামলা, ভাংচুর করা হয়।

এ সময় প্যানেল চেয়ারম্যান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মহসিন খান, তার ভাই তাঁতি লীগের সম্পাদক মাসুদ খানসহ আহত হয়েছেন কম পক্ষে ২৫ জন।

সোমবার রাতের ওই ঘটনায় সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে মঙ্গলবার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সম্পাদক লিটন মালকে দলীয় পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

জেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক আবদুল মমিন টুলু বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এ দিকে দুপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোশারফ হোসেন ওই এলাকা পরিদর্শনকালে লিটন মালের সম্পৃক্ততার অভিযোগ পান। এ ছাড়া সকালে ভোলা থানার ওসি এনায়েত হোসেন, ফাঁড়ি ইনচার্জ আরমান হোসেনসহ পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আরমান জানান, পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে। ২ জনকে আটক করা হয়েছে। অভিযোগ রয়েছে এ ঘটনায় এআর খান গ্রুপের পক্ষে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সম্পাদক লিটন মাল ও তার সমর্থকরা হামলা চালায়।

এ ঘটনায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল সালাম মাস্টার নিন্দা ও দোষীদের শাস্তি দাবি করেন। তিনি জানান, এমন কাণ্ড দেখে এলাকার মানুষ হতবাক হন। দেশব্যাপী করোনা পরিস্থিতি নিয়ে মানুষ যখন আতঙ্কিত। ওই সময় এমন ঘটনাকে কেউ মেনে নিতে পারেননি।

লিটন মাল তার নেতৃত্বে হামলার বিষয় অস্বীকার করেন। তিনি জানান, চরের জমির বিরোধ নিয়ে এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। ইউপি নির্বাচনে তিনি প্রার্থী হবেন। তাই জনগণের পাশে দাঁড়াতে তিনি ছুটে গেছেন। এর বেশি কিছু ছিল না।

ভেলুমিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আরমান হোসেন জানান, বাড়ি নির্মাণের জন্য কাওসার গাজির ক্রয়কৃত ইট নৌকা যোগে বিশ্বরোড ঘাটে আসে। ওই ইট পরিবহনের সময় বাধা দেন এআর খান নামের এক মাঝির স্ত্রী। এ সময় কাওসার গাজির বাড়ির মহিলারাও বের হয়ে এলে কথা কাটাকাটি চলে। এক পর্যায়ে খবর পেয়ে ছুটে আসেন পুরুষরা। শুরু হয় ইটপাটকেল নিক্ষেপ, ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া। এর পরই আত্মীয়তা ও সমর্থক সূত্রধরে ছুটে যান লিটন মাল।

প্যানেল চেয়ারম্যান মহিসন খান জানান, লিটন মাল ভেলুমিয়া বাজারের রিকশাচালকসহ কয়েকশ' মানুষ নিয়ে ৫ কিলোমিটার দূরের বিশ্বরোড এলাকায় হামলা চালায়। এ সময় আলাউদ্দিন, মাইনুদ্দিন, মো. ইব্রাহিম, মাসুদ খানের বাড়িসহ ১১ বাড়িতে হামলা করে। লুটপাট করে। আহত ইউনিয়ন তাঁতি লীগের সম্পাদক মাকসুদ খানকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বরিশাল হয়ে ঢাকায় রেফার করা হয়েছে।

ভোলায় দফায় দফায় হামলা ভাংচুর, আ’লীগ নেতা বহিষ্কার

 ভোলা প্রতিনিধি 
২১ এপ্রিল ২০২০, ১০:০৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বাড়ি ঘর ভাঙচুর
বাড়ি ঘর ভাঙচুর

ভোলার ভেলুমিয়ায় চর দখলের ইস্যু ও একটি বাড়ি নির্মাণের ইট পরিবহনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় সংঘর্ষ, ধাওয়া, ১১টি বাড়িতে হামলা, ভাংচুর করা হয়।

এ সময় প্যানেল চেয়ারম্যান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মহসিন খান, তার ভাই তাঁতি লীগের সম্পাদক মাসুদ খানসহ আহত হয়েছেন কম পক্ষে ২৫ জন।

সোমবার রাতের ওই ঘটনায় সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে মঙ্গলবার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সম্পাদক লিটন মালকে দলীয় পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

জেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক আবদুল মমিন টুলু বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এ দিকে দুপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোশারফ হোসেন ওই এলাকা পরিদর্শনকালে লিটন মালের সম্পৃক্ততার অভিযোগ পান। এ ছাড়া সকালে ভোলা থানার ওসি এনায়েত হোসেন, ফাঁড়ি ইনচার্জ আরমান হোসেনসহ পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আরমান জানান, পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে। ২ জনকে আটক করা হয়েছে। অভিযোগ রয়েছে এ ঘটনায় এআর খান গ্রুপের পক্ষে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সম্পাদক লিটন মাল ও তার সমর্থকরা হামলা চালায়।

এ ঘটনায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল সালাম মাস্টার নিন্দা ও দোষীদের শাস্তি দাবি করেন। তিনি জানান, এমন কাণ্ড দেখে এলাকার মানুষ হতবাক হন। দেশব্যাপী করোনা পরিস্থিতি নিয়ে মানুষ যখন আতঙ্কিত। ওই সময় এমন ঘটনাকে কেউ মেনে নিতে পারেননি।

লিটন মাল তার নেতৃত্বে হামলার বিষয় অস্বীকার করেন। তিনি জানান, চরের জমির বিরোধ নিয়ে এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। ইউপি নির্বাচনে তিনি প্রার্থী হবেন। তাই জনগণের পাশে দাঁড়াতে তিনি ছুটে গেছেন। এর বেশি কিছু ছিল না।

ভেলুমিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আরমান হোসেন জানান, বাড়ি নির্মাণের জন্য কাওসার গাজির ক্রয়কৃত ইট নৌকা যোগে বিশ্বরোড ঘাটে আসে। ওই ইট পরিবহনের সময় বাধা দেন এআর খান নামের এক মাঝির স্ত্রী। এ সময় কাওসার গাজির বাড়ির মহিলারাও বের হয়ে এলে কথা কাটাকাটি চলে। এক পর্যায়ে খবর পেয়ে ছুটে আসেন পুরুষরা। শুরু হয় ইটপাটকেল নিক্ষেপ, ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া। এর পরই আত্মীয়তা ও সমর্থক সূত্রধরে ছুটে যান লিটন মাল।

প্যানেল চেয়ারম্যান মহিসন খান জানান, লিটন মাল ভেলুমিয়া বাজারের রিকশাচালকসহ কয়েকশ' মানুষ নিয়ে ৫ কিলোমিটার দূরের বিশ্বরোড এলাকায় হামলা চালায়। এ সময় আলাউদ্দিন, মাইনুদ্দিন, মো. ইব্রাহিম, মাসুদ খানের বাড়িসহ ১১ বাড়িতে হামলা করে। লুটপাট করে। আহত ইউনিয়ন তাঁতি লীগের সম্পাদক মাকসুদ খানকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বরিশাল হয়ে ঢাকায় রেফার করা হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন