জলঢাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় যুবক নিহত, ফায়ার সার্ভিস অফিস ভাংচুর
jugantor
জলঢাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় যুবক নিহত, ফায়ার সার্ভিস অফিস ভাংচুর

  জলঢাকা (নীলফামারী) প্রতিনিধি  

৩০ এপ্রিল ২০২০, ২০:৫৬:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

নীলফামারীর জলঢাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় যুবক নিহত হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ফায়ার সার্ভিস অফিস ও গাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার সকালে পৌরশহরের পেট্রল পাম্প সংলগ্ন এলাকায় একটি অটোভ্যান নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তায় উল্টে যায়। এ সময় ভ্যানে থাকা মাইদুল ইসলাম বাবু (২৬) গুরুতর আহত হন। খবর দেয়ার পরও আহত যুবকটিকে উদ্ধার করতে আসেননি ফায়ার সার্ভিসের লোকজন। তাদের অ্যাম্বুলেন্সের সহযোগিতা চাইলেও ফিরিয়ে দেয়া হয়।

এ বিষয়ে জলঢাকা ফায়ার এন্ড সিভিল ডিফেন্স ইনচার্জ মমতাজুল ইসলাম এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, খবর পেয়ে আমরা গাড়ি নিয়ে সেখানে গিয়ে দেখি যুবকটির মৃত্যু হয়েছে। আমরা হাসপাতালে নিয়ে যেতে চাইলে স্থানীয় লোকজন আমাদের বাধা দেয়। পরবর্তীকালে আমাদের গাড়ি ভাংচুর করে। পরে আমাদের অফিসে এলোপাথাড়ি ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে।

জলঢাকা থানা ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষণিক আমি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠাই। পরবর্তীকালে আমি এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রুহুল আমিনসহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি।

তিনি আরও বলেন, নিহত যুবকের পরিবারকে খবর দেয়া হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ পাইনি।

জলঢাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় যুবক নিহত, ফায়ার সার্ভিস অফিস ভাংচুর

 জলঢাকা (নীলফামারী) প্রতিনিধি 
৩০ এপ্রিল ২০২০, ০৮:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নীলফামারীর জলঢাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় যুবক নিহত হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ফায়ার সার্ভিস অফিস ও গাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার সকালে পৌরশহরের পেট্রল পাম্প সংলগ্ন এলাকায় একটি অটোভ্যান নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তায় উল্টে যায়। এ সময় ভ্যানে থাকা মাইদুল ইসলাম বাবু (২৬) গুরুতর আহত হন। খবর দেয়ার পরও আহত যুবকটিকে উদ্ধার করতে আসেননি ফায়ার সার্ভিসের লোকজন। তাদের অ্যাম্বুলেন্সের সহযোগিতা চাইলেও ফিরিয়ে দেয়া হয়।

এ বিষয়ে জলঢাকা ফায়ার এন্ড সিভিল ডিফেন্স ইনচার্জ মমতাজুল ইসলাম এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, খবর পেয়ে আমরা গাড়ি নিয়ে সেখানে গিয়ে দেখি যুবকটির মৃত্যু হয়েছে। আমরা হাসপাতালে নিয়ে যেতে চাইলে স্থানীয় লোকজন আমাদের বাধা দেয়। পরবর্তীকালে আমাদের গাড়ি ভাংচুর করে। পরে আমাদের অফিসে এলোপাথাড়ি ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে।

জলঢাকা থানা ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষণিক আমি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠাই। পরবর্তীকালে আমি এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রুহুল আমিনসহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি।

তিনি আরও বলেন, নিহত যুবকের পরিবারকে খবর দেয়া হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ পাইনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন