অসহায়দের খাদ্য সহায়তা করলেন প্রতিবন্ধী শিবলু
jugantor
অসহায়দের খাদ্য সহায়তা করলেন প্রতিবন্ধী শিবলু

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৫ মে ২০২০, ০০:৩৮:১৪  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা পরিস্থিতিতে অসহায়দের খাদ্য সহায়তা করেছেন প্রতিবন্ধী আবুল ফজল শিবলু। সরকার থেকে পাওয়া প্রতিবন্ধীর ভাতা থেকে কিছু কিছু করে জমিয়ে রাখা টাকা অসহায়দের খাদ্য সহায়তায় দান করে মানবতার এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তিনি।

রোববার বিকেলে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার সুঘাট ইউনিয়নের বিনোদপুর গ্রামে প্রথম পর্যায়ে ২০ জন অসহায়দের মাঝে চাল, ডাল, তেল, আলু, চিনি, সাবান, সেমাই দেয়া হয়েছে।

আবুল ফজল শিবলু জন্ম থেকে প্রতিবন্ধী। তিনি শেরপুর উপজেলার সুঘাট ইউনিয়নের বিনোদপুর গ্রামের মৃত আয়েজ উদ্দিনের পুত্র।

ওয়ার্ড মেম্বর হেলাল উদ্দিন সরকারি দেয়া ত্রাণের জন্য জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি চাইলে তিনি ওই তালিকায় নিজের নাম না দিতে অনুরোধ করেন। সেই সঙ্গে খাদ্য সহায়তায় ওই ত্রাণ তহবিলে নিজের তিল তিল করে জমানো টাকাদান করার কথা জানান। রোববার বিকেলে করোনা পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায়দের মাঝে চাল, ডাল, তেল, আলু, চিনি, সাবান ও সেমাই সহায়তা করেন প্রতিবন্ধী শিবলু।

শিবলুরভাই মোশাররফ হোসেন জানান, আমার ছোট ভাই শিবলু ছোটবেলা থেকেই অন্যের দু:খ কষ্ট সহ্য করতে পারে না।

নিজের জমানো টাকা খাদ্য সহায়তা দান করা প্রসঙ্গেশিবলু বলেন, 'আমি প্রতিবন্ধী, যে ভাতা পাই, খাইয়ে-খরচ করে কিছু কিছু করে জমাইছি। অসুখ হইলে টাকা কোথায় পাব তাই জমাইছিলাম। আমার অসুখ হইলে আল্লাহ দেখবে। এখন মানুষ না খেয়ে আছে তারা খাইয়ে বাঁচুক। আর আল্লাহ আমগো সবাইরে বিপদ থেইকা রক্ষা করুক'।

অসহায়দের খাদ্য সহায়তা করলেন প্রতিবন্ধী শিবলু

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৫ মে ২০২০, ১২:৩৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা পরিস্থিতিতে অসহায়দের খাদ্য সহায়তা করেছেন প্রতিবন্ধী আবুল ফজল শিবলু। সরকার থেকে পাওয়া প্রতিবন্ধীর ভাতা থেকে কিছু কিছু করে জমিয়ে রাখা টাকা অসহায়দের খাদ্য সহায়তায় দান করে মানবতার এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তিনি।

রোববার বিকেলে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার সুঘাট ইউনিয়নের বিনোদপুর গ্রামে প্রথম পর্যায়ে ২০ জন অসহায়দের মাঝে চাল, ডাল, তেল, আলু, চিনি, সাবান, সেমাই দেয়া হয়েছে।

আবুল ফজল শিবলু জন্ম থেকে প্রতিবন্ধী। তিনি শেরপুর উপজেলার সুঘাট ইউনিয়নের বিনোদপুর গ্রামের মৃত আয়েজ উদ্দিনের পুত্র।

ওয়ার্ড মেম্বর হেলাল উদ্দিন সরকারি দেয়া ত্রাণের জন্য জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি চাইলে তিনি ওই তালিকায় নিজের নাম না দিতে অনুরোধ করেন। সেই সঙ্গে খাদ্য সহায়তায় ওই ত্রাণ তহবিলে নিজের তিল তিল করে জমানো টাকা দান করার কথা জানান। রোববার বিকেলে করোনা পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায়দের মাঝে চাল, ডাল, তেল, আলু, চিনি, সাবান ও সেমাই সহায়তা করেন প্রতিবন্ধী শিবলু।

শিবলুর ভাই মোশাররফ হোসেন জানান, আমার ছোট ভাই শিবলু ছোটবেলা থেকেই অন্যের দু:খ কষ্ট সহ্য করতে পারে না।

নিজের জমানো টাকা খাদ্য সহায়তা দান করা প্রসঙ্গে শিবলু বলেন, 'আমি প্রতিবন্ধী, যে ভাতা পাই, খাইয়ে-খরচ করে কিছু কিছু করে জমাইছি। অসুখ হইলে টাকা কোথায় পাব তাই জমাইছিলাম। আমার অসুখ হইলে আল্লাহ দেখবে। এখন মানুষ না খেয়ে আছে তারা খাইয়ে বাঁচুক। আর আল্লাহ আমগো সবাইরে বিপদ থেইকা রক্ষা করুক'।

 
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন