দিনাজপুরে তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীকে গলাটিপে হত্যা
jugantor
দিনাজপুরে তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীকে গলাটিপে হত্যা

  দিনাজপুর প্রতিনিধি  

০৭ মে ২০২০, ২১:১৫:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে সামিউল (৮) নামে এক শিক্ষার্থীকে গলাটিপে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে রিপন শেখ নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের গঙ্গা প্রসাদ মৌজার ছোট যমুনা নদীর ধার থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত সামিউল পলি শিবনগর গ্রামের খতিবুর রহমানের ছেলে। সে পলি শিবনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র। রিপন শেখ (২৫) একই গ্রামের মৃত আইয়ুব আলীর ছেলে ও নিহত শিশু সামিউলের সম্পর্কে চাচা।

এ ঘটনায় নিহত সামিউলের দাদা মোজাফ্ফর রহমান বাদী হয়ে ফুলবাড়ী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

মোজাফ্ফর রহমান বলেন, সামিউল প্রতিদিনের মতো বুধবার বিকালে বাড়ির পাশে ছোট যমুনা নদীর ধারে খেলা করতে গিয়ে আর বাড়িতে ফিরে আসেনি। এরপর খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে বুধবার দিবাগত ভোররাতে বালুর নিচে শিশু সামিউলের লাশ চাপা দেয়া অবস্থায় পাওয়া যায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে। পরে ঘটনাটি জানতে পেরে এলাকাবাসীর সহায়তায় রিপনকে আটক করা হয়।

ফুলবাড়ী থানার ওসি ফকরুল ইসলাম বলেন, আটককৃত রিপন ইসলাম প্রাথমিকভাবে শিশু সামিউলকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। সে জানিয়েছে, খেলাধুলা করার সময় সামিউল তাকে গালমন্দ করেছিল। এই জন্য সে খেলা শেষে শিশু সামিউলকে একা পেয়ে গলাটিপে ধরেছিল। এতে শ্বাসরুদ্ধ হয়ে সামিউলের মৃত্যু হয়েছে।

দিনাজপুরে তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীকে গলাটিপে হত্যা

 দিনাজপুর প্রতিনিধি 
০৭ মে ২০২০, ০৯:১৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে সামিউল (৮) নামে এক শিক্ষার্থীকে গলাটিপে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে রিপন শেখ নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের গঙ্গা প্রসাদ মৌজার ছোট যমুনা নদীর ধার থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত সামিউল পলি শিবনগর গ্রামের খতিবুর রহমানের ছেলে। সে পলি শিবনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র। রিপন শেখ (২৫) একই গ্রামের মৃত আইয়ুব আলীর ছেলে ও নিহত শিশু সামিউলের সম্পর্কে চাচা।

এ ঘটনায় নিহত সামিউলের দাদা মোজাফ্ফর রহমান বাদী হয়ে ফুলবাড়ী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

মোজাফ্ফর রহমান বলেন, সামিউল প্রতিদিনের মতো বুধবার বিকালে বাড়ির পাশে ছোট যমুনা নদীর ধারে খেলা করতে গিয়ে আর বাড়িতে ফিরে আসেনি। এরপর খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে বুধবার দিবাগত ভোররাতে বালুর নিচে শিশু সামিউলের লাশ চাপা দেয়া অবস্থায় পাওয়া যায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে। পরে ঘটনাটি জানতে পেরে এলাকাবাসীর সহায়তায় রিপনকে আটক করা হয়। 

ফুলবাড়ী থানার ওসি ফকরুল ইসলাম বলেন, আটককৃত রিপন ইসলাম প্রাথমিকভাবে শিশু সামিউলকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। সে জানিয়েছে, খেলাধুলা করার সময় সামিউল তাকে গালমন্দ করেছিল। এই জন্য সে খেলা শেষে শিশু সামিউলকে একা পেয়ে গলাটিপে ধরেছিল। এতে শ্বাসরুদ্ধ হয়ে সামিউলের মৃত্যু হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন