যশোরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত
jugantor
যশোরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত

  যশোর ব্যুরো  

১২ মে ২০২০, ১১:০৭:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

যশোরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্ত্রাসী নিহত

যশোরে পুলিশের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক যুবক নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম বাবু (৪০)।

মঙ্গলবার ভোরে সদর উপজেলার সাড়াপোল কালাবাগ এলাকায় এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে।

পুলিশের দাবি, নিহত বাবু এলাকার সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় অস্ত্র, বিস্ফোরক ও মাদকের ১২টি মামলা রয়েছে।

যশোর কোতোয়ালি থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) শেখ তাসমীম আলম বলেন, একদল সন্ত্রাসী অপরাধমূলক কাজ করার জন্য সাড়াপোল কালাবাগ এলাকায় অবস্থান করছিল এমন খবর পাওয়া যায়। সেই অনুযায়ী ভোরে পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়।

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা গুলি ছোড়ে। পুলিশও গুলি চালিয়ে পাল্টা জবাব দেয়। একপর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটে পালিয়ে যায়। পরে ওই এলাকা তল্লাশি করে একজনকে পড়ে থাকতে দেখা যায়।

গুরুতর অবস্থায় তাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন মারা যান ওই যুবক। এলাকাবাসী তাকে বাবু বলে শনাক্ত করেন। তবে তার বাবার নাম জানা যায়নি।

পুলিশের ওই কর্মকর্তার দাবি, ঘটনার সময় তাদের দুই কনস্টেবল আবু বকর ও খায়রুল আহত হন। তাদের জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়ে পুলিশলাইন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনাস্থল থেকে ২০০ পিস ইয়াবা, ৫৪ বোতল ফেনসিডিল, একটি ওয়ান শুটারগান এবং কিছু গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়েছে।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত চিকিৎসক মোহাম্মদ স্বপন জানান, মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে ওই যুবক মারা গেছেন। হাসপাতালে তাকে মৃত অবস্থায় আনা হয়।

পুলিশ ইন্সপেক্টর তাসমীম আরও বলেন, নিহত বাবুর বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় অস্ত্র, বিস্ফোরক, মাদকের ১২টি মামলা রয়েছে। পুলিশ তাকে খুঁজছিল।

যশোরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত

 যশোর ব্যুরো 
১২ মে ২০২০, ১১:০৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
যশোরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্ত্রাসী নিহত
ফাইল ছবি

যশোরে পুলিশের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক যুবক নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম বাবু (৪০)।

মঙ্গলবার ভোরে সদর উপজেলার সাড়াপোল কালাবাগ এলাকায় এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে।

পুলিশের দাবি, নিহত বাবু এলাকার সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় অস্ত্র, বিস্ফোরক ও মাদকের ১২টি মামলা রয়েছে। 

যশোর কোতোয়ালি থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) শেখ তাসমীম আলম বলেন, একদল সন্ত্রাসী অপরাধমূলক কাজ করার জন্য সাড়াপোল কালাবাগ এলাকায় অবস্থান করছিল এমন খবর পাওয়া যায়। সেই অনুযায়ী ভোরে পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়। 

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা গুলি ছোড়ে। পুলিশও গুলি চালিয়ে পাল্টা জবাব দেয়। একপর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটে পালিয়ে যায়। পরে ওই এলাকা তল্লাশি করে একজনকে পড়ে থাকতে দেখা যায়। 

গুরুতর অবস্থায় তাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন মারা যান ওই যুবক। এলাকাবাসী তাকে বাবু বলে শনাক্ত করেন। তবে তার বাবার নাম জানা যায়নি।

পুলিশের ওই কর্মকর্তার দাবি, ঘটনার সময় তাদের দুই কনস্টেবল আবু বকর ও খায়রুল আহত হন। তাদের জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়ে পুলিশলাইন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

ঘটনাস্থল থেকে ২০০ পিস ইয়াবা, ৫৪ বোতল ফেনসিডিল, একটি ওয়ান শুটারগান এবং কিছু গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়েছে।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত চিকিৎসক মোহাম্মদ স্বপন জানান, মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে ওই যুবক মারা গেছেন। হাসপাতালে তাকে মৃত অবস্থায় আনা হয়।

পুলিশ ইন্সপেক্টর তাসমীম আরও বলেন, নিহত বাবুর বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় অস্ত্র, বিস্ফোরক, মাদকের ১২টি মামলা রয়েছে। পুলিশ তাকে খুঁজছিল।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন