যুগান্তরে সংবাদ প্রকাশ

একদিনেই পাল্টে গেল জাবেদ-মোমেনার সংসারের চিত্র

  চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি ১৫ মে ২০২০, ১১:২২:১৮ | অনলাইন সংস্করণ

বৃদ্ধ জাবেদ-মোমেনা দম্পতি ও তাদের কাছে পৌঁছে দেয়া ত্রাণসামগ্রী। ছবি: যুগান্তর

একদিনের ব্যবধানে পাল্টে গেল পাবনার চাটমোহর উপজেলার দাঁথিয়া কয়রাপাড়া গ্রামের সেই বৃদ্ধ জাবেদ-মোমেনা দম্পতির সংসারের চিত্র।

যুগান্তর অনলাইন সংস্করণে সংবাদ প্রকাশের পর অভাব-অনটনের সঙ্গে লড়াই করা দম্পতির পাশে এগিয়ে এলেন সরকারি কর্মকর্তা, চিকিৎসক ও জনপ্রতিনিধিরা।

অর্ধাহারে-অনাহারে থাকা ওই বৃদ্ধ দম্পতি পেলেন খাদ্যসামগ্রী ও আর্থিক সহযোগিতা। অভাবী সংসারে হতাশায় ঘিরে ধরা ওই বৃদ্ধ দম্পতির মুখে এখন হাসি ফুটে উঠেছে।

এর আগে মঙ্গলবার যুগান্তর অনলাইন সংস্করণে ‘মুড়ি বিক্রি হলেই খাবার জোটে বৃদ্ধ জাবেদ-মোমেনা দম্পতির!’ এমন শিরোনামে সচিত্র সংবাদ প্রকাশিত হয়।

সংবাদটি নজরে এলে এগিয়ে আসেন অ্যাডিশনাল ডিআইজি ও র্যাব ৪-এর অধিনায়ক মো. মোজাম্মেল হক।

তিনি ওই দিন অসহায় পরিবারটিকে তার প্রতিনিধির মাধ্যমে খাদ্য ও আর্থিক সহায়তা দেন। এ ছাড়া যে কোনো প্রয়োজনে জাবেদা-মোমেনা দম্পতির পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

এর পর রাতেই ওই বাড়িতে খাদ্য সহায়তা নিয়ে হাজির হন চাটমোহরের সন্তান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম সাইফুল ইসলাম (সেলিম)। শুধু খাদ্য সহায়তাই নয়, জাবেদ-মোমেনা দম্পতির হাতে তুলে দেন নগদ অর্থ।

এ ছাড়া বুধবার ওই বাড়িতে খাদ্য সহায়তা পাঠান আমিন মোহাম্মদ গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. এমএ ওয়াহাব খান। তিনি ভাই ইয়াকুব আলীর মাধ্যমে ওই বাড়িতে বিপুল পরিমাণ খাদ্যসামগ্রী পাঠান।
এ ছাড়া ঈদ উপলক্ষে উপহার দুটি করে শাড়ি ও লুঙ্গি দেন। এ ছাড়া জাবেদ-মোমেনা দম্পতির এনজিও ঋণ শোধ করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

অন্যদিকে সংবাদটি দেখার পর ওই বৃদ্ধ দম্পতির জন্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন চাটমোহর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ আবদুল হামিদ মাস্টারও।

একদিনেই এমন উপহার পেয়ে আপ্লুত হয়ে পড়েন জাবেদ-মোমেনা দম্পতি।

আনন্দে আত্মহারা হয়ে কেঁদে ফেলেন জাবেদ আলী শেখ।

এ দম্পতি যুগান্তরকে বলেন, ‘কখনও ঈদে নতুন জামাকাপড় কেনা হয়নি। ভালো খাবারও কখনও কিনে খেতে পারিনি। কিন্তু যুগান্তরে সংবাদ প্রকাশের পর যা পেয়েছি, তাতে আমরা অনেক খুশি। আমরা যুগান্তর ও যারা আমাদের সাহায্য করেছেন, তাদের নিকট চিরকৃতজ্ঞ।’

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত