চট্টগ্রামে দোকানপাট-মার্কেটে ক্রেতার ভিড়, স্বাস্থ্যবিধি মানছে না কেউ

  চট্টগ্রাম ব্যুরো ১৯ মে ২০২০, ১৯:৫৩:৪৪ | অনলাইন সংস্করণ

ফাইল ছবি

চট্টগ্রামে মার্কেট বন্ধ রাখার ঘোষণা মানছেন না অনেক দোকানি। নগরীর রিয়াজুদ্দিন বাজার, টেরিবাজারসহ কয়েকটি মার্কেটের বেশ কিছু দোকানের সামনে বাইরে তালা থাকলেও কর্মচারি দাঁড় করিয়ে ভেতরে বেচা-কেনা চলছে। ঈদের জামা-কাপড় কিনতে প্রচণ্ড ভিড় জমেছে এসব মার্কেটে।

পাশাপাশি নগরীর আন্দরকিল্লা, বহদ্দারহাট, আগ্রাবাদ, জিইসি মোড়, চৌমুহনীসহ কয়েকটি এলাকায় ফুটপাতে বসেছে হকার। ফুটপাতের হকারদের কাছ থেকে কাপড় কিনতেও মানুষের ভিড় দেখা গেছে।

শুধু তাই নয়; নগরীতে খোলা রয়েছে বেশ কয়েকটি নামিদামি শো-রুম। যেখানে মানুষের ভিড় লেগেই আছে। কেনা-কাটার ক্ষেত্রে চট্টগ্রামে মানা হচ্ছে না সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি।

এদিকে সোমবার রিয়াজুদ্দিন বাজারে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে বেচাকেনা করায় দুই দোকানীসহ ৯ জনকে গ্রেফতার করেছে কোতোয়ালী থানা পুলিশ।

অপরদিকে নগরীর পাঁচ প্রবেশ মুখে পরিবার পরিজনের সঙ্গে ঈদ করতে শহর ছেড়ে গ্রামে পাড়ি দেয়া মানুষের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। সেখানে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে হিমশিম খেতে হচ্ছে মানুষকে ফেরাতে। নানা অজুহাতে তাদের কেউ নগরে প্রবেশ করছে কেউ বা নগর থেকে বের হচ্ছে। নগরীতে গণপরিবহন ছাড়া চলাচল করছে ব্যক্তিগত প্রাইভেটকারসহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহন। পুরো নগরীতে দেখা যাচ্ছে রিকশার দাপট।

কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন যুগান্তরকে বলেন, ‘সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে দোকান খোলা রেখে ব্যবসা করতে বলেছিলাম। কিন্তু অনেক দোকানের বাইরে কর্মচারী দাঁড় করিয়ে রেখে দোকানটিতে তালা ঝুলিয়ে রাখছে। কোনো ক্রেতা দেখলে তাদের ডেকে দোকানে ঢুকিয়ে দরজা বন্ধ করে বেচাকেনা করছে। এ ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। স্বাস্থ্যবিধি না মানায় রিয়াজুদ্দিন বাজার এলাকার বিভিন্ন মার্কেট থেকে দুই দোকানদার ও সাতজন ক্রেতাকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন অনুযায়ী মামলা দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার তাদের আদালতে সোপর্দ করা হয়।’

এদিকে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে বাইরে তালা দিয়ে ভেতরে বেচাকেনার অভিযোগে গত ১৬ মে আনোয়ারা উপজেলার বটতলী রস্মতাট হাজী ইমাম শপিং কমপ্লেক্সে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় অভিযানের বিষয়টি টের পেয়ে অধিকাংশ দোকান বন্ধ করে দিলেও একটিতে ভেতরে বেচাকেনা করার বিষয়টি হাতেনাতে ধরা পড়ে। ওই দোকানীকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই অবস্থা নগরীর পাশাপাশি উপজেলার হাটহাজারী, রাউজান, রাঙ্গুনিয়াসহ অন্যান্য উপজেলায়ও।

এদিকে রাউজান ফকিরহাট এলাকায় স্বাস্থ্যবিধি না মেনে বেচাকেনার অভিযোগে রাউজান থানার ওসি কেপায়েত উল্লাহর নেতৃত্বে অভিযান চালানো হয়। এতে বেশ কয়েকটি দোকানে বাইরে থেকে তালা দিয়ে ভেতরে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে বেচাকেনার বিষয়টি ধরা পড়ে। অভিযানে অনেক ক্রেতাকে পুলিশ দেখে মার্কেট থেকে পালিয়ে যেতে দেখা যায়।

রাঙ্গুনিয়া উপজেলায় রোয়াজারহাট, শান্তিরহাট, পদুয়া রাজারহাট, চন্দ্রঘোণা লিচু বাগানসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় মাকের্টের বাইরে তালা লাগিয়ে ভেতরে বেচাকেনা করতে দেখা গেছে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযানে কিছুক্ষণ বন্ধ থাকলেও অভিযানের পর পুনরায় শুরু হয় বেচাকেনা। এ অবস্থায় লোকজনকে সামাজিক দূরত্ব মানাতে হিমশিম খাচ্ছে পুলিশ। পটিয়াতেও বিভিন্ন মার্কেটে বেচাকেনা চলছে। দোকানপাটে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (ট্রাফিক-উত্তর) মো. শহিদুল্লাহ যুগান্তরকে বলেন, ‘নগরীতে পুলিশ সাধ্যমতো যানবাহন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। নগরীর প্রবেশ পথগুলোতেও কড়াকড়ি করা হয়েছে। আইন অমান্যকারী যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হচ্ছে। তবে কিছু কিছু দোকানপাট, কল-কারখানা খোলা থাকায় নগরীতে মানুষের জনসমাগম ও যানবাহন কিছুটা বেড়েছে।’

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত