জ্যৈষ্ঠতেই অপরূপ বর্ষার কদমফুল!
jugantor
জ্যৈষ্ঠতেই অপরূপ বর্ষার কদমফুল!

  শেরপুর প্রতিনিধি  

২১ মে ২০২০, ১৮:৫৩:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

ছয় ঋতুর দেশ হিসেবে পরিচিত বাংলাদেশে এখন আর সেই ঋতুর বৈচিত্র্যের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। অহরহই প্রকৃতিতে ব্যতিক্রম ঘটনা ঘটে চলেছে।

গ্রীষ্ম, বর্ষা, শীত, বসন্ত, শরৎ ও হেমন্ত - এ ছয় ঋতুর নামও যেন অনেকের কাছ থেকে হারিয়ে যেতে বসেছে। বর্ষার আগমনের বার্তা বহনকারী কদম ফুল আষাঢ় মাসে দেখা যাওয়ার কথা থাকলেও জ্যৈষ্ঠতেই গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে সেই কদম ফুল। ’আমি ফুল কদম ডালে ফুটেছি বর্ষাকালে’ গীতি কবির এমন কথা এখন আর মিলছে না।

বর্ষার বন্দনায় আমাদের গানে কবিতায় ও শিল্প-সাহিত্যে কদম ফুল স্থান পেলেও জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে পরিবেশের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়েছে তাপমাত্রারও হয়েছে পরিবর্তন। আবহাওয়ার বিরূপ প্রভাবে উদ্ভিদেরও আচরণের পরিবর্তন ঘটেছে।

তাই বর্ষার কদম ফুল দেখা যাচ্ছে জ্যৈষ্ঠ মাসে গাছের ডালে ডালে তা প্রস্ফূটিত হয়ে অপরূপ শোভা ছড়াচ্ছে। ফুলের শোভায় ও মৌ মৌ গন্ধে ফুলে অবগাহন করছে বিভিন্ন প্রজাতির কীটপতঙ্গ, মৌমাছি এবং পাখি।

শেরপুরের বেশকিছু এলাকার গাছ ছেয়ে থাকা কদম ফুলের সৌন্দর্যে আকৃষ্ট হয়ে শিশুরা বসে নেই। তারা গাছের সে ফুল পেড়ে নিয়ে এসে খেলায় মেতে উঠছে।

শেরপুর ডা. সেকান্দর আলী কলেজের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক এম এম ফারুকুজ্জামান বলেন, প্রায় একযুগ ধরে এমনটি হয়ে আসছে। কারণ জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে পরিবেশের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়েছে। আর আবহাওয়ার বিরূপ প্রভাবে উদ্ভিদের পরিবর্তনের কারণে অসময়ে কদম ফুল ফুটছে।

এ বিষয়ে শেরপুর জেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ ড. মোহিত কুমার দে জানান, আবহাওয়া ঠাণ্ডা থাকলে বা বৃষ্টি হলে কদম গাছে আগাম ফুল ফুটে। আবার একই গাছে কাছাকাছি সময়ে আগাম, সঠিক সময়ে এবং দেরিতে এই তিন দফায় কদম ফুল ফুটে থাকে।

জ্যৈষ্ঠতেই অপরূপ বর্ষার কদমফুল!

 শেরপুর প্রতিনিধি 
২১ মে ২০২০, ০৬:৫৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ছয় ঋতুর দেশ হিসেবে পরিচিত বাংলাদেশে এখন আর সেই ঋতুর বৈচিত্র্যের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। অহরহই প্রকৃতিতে ব্যতিক্রম ঘটনা ঘটে চলেছে।

গ্রীষ্ম, বর্ষা, শীত, বসন্ত, শরৎ ও হেমন্ত - এ ছয় ঋতুর নামও যেন অনেকের কাছ থেকে হারিয়ে যেতে বসেছে। বর্ষার আগমনের বার্তা বহনকারী কদম ফুল আষাঢ় মাসে দেখা যাওয়ার কথা থাকলেও জ্যৈষ্ঠতেই গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে সেই কদম ফুল। ’আমি ফুল কদম ডালে ফুটেছি বর্ষাকালে’ গীতি কবির এমন কথা এখন আর মিলছে না।

বর্ষার বন্দনায় আমাদের গানে কবিতায় ও শিল্প-সাহিত্যে কদম ফুল স্থান পেলেও জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে পরিবেশের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়েছে তাপমাত্রারও হয়েছে পরিবর্তন। আবহাওয়ার বিরূপ প্রভাবে উদ্ভিদেরও আচরণের পরিবর্তন ঘটেছে।

তাই বর্ষার কদম ফুল দেখা যাচ্ছে জ্যৈষ্ঠ মাসে গাছের ডালে ডালে তা প্রস্ফূটিত হয়ে অপরূপ শোভা ছড়াচ্ছে। ফুলের শোভায় ও মৌ মৌ গন্ধে ফুলে অবগাহন করছে বিভিন্ন প্রজাতির কীটপতঙ্গ, মৌমাছি এবং পাখি।

শেরপুরের বেশকিছু এলাকার গাছ ছেয়ে থাকা কদম ফুলের সৌন্দর্যে আকৃষ্ট হয়ে শিশুরা বসে নেই। তারা গাছের সে ফুল পেড়ে নিয়ে এসে খেলায় মেতে উঠছে।
 
শেরপুর ডা. সেকান্দর আলী কলেজের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক এম এম ফারুকুজ্জামান বলেন, প্রায় একযুগ ধরে এমনটি হয়ে আসছে। কারণ জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে পরিবেশের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়েছে। আর আবহাওয়ার বিরূপ প্রভাবে উদ্ভিদের পরিবর্তনের কারণে অসময়ে কদম ফুল ফুটছে।

এ বিষয়ে শেরপুর জেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ ড. মোহিত কুমার দে জানান, আবহাওয়া ঠাণ্ডা থাকলে বা বৃষ্টি হলে কদম গাছে আগাম ফুল ফুটে। আবার একই গাছে কাছাকাছি সময়ে আগাম, সঠিক সময়ে এবং দেরিতে এই তিন দফায় কদম ফুল ফুটে থাকে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন