আম্পানের তাণ্ডবের পর স্বাভাবিক হচ্ছে পিরোজপুরের জনজীবন
jugantor
আম্পানের তাণ্ডবের পর স্বাভাবিক হচ্ছে পিরোজপুরের জনজীবন

  পিরোজপুর প্রতিনিধি  

২১ মে ২০২০, ২০:০১:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

সুপার সাইক্লোন আম্পানের ক্ষয়ক্ষতির পর পিরোজপুরে অনেকটা স্বাভাবিক হয়ে আসছে জনজীবন। বিভিন্ন সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নেয়া লোকজন সকাল থেকেই নিজেদের বাড়ি ফিরতে শুরু করেছেন।

সাইক্লোন পরবর্তী এখন চলছে প্রশাসনের উদ্ধার কাজসহ ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণ ও ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম।

বুধবার রাতে মঠবাড়িয়ায় পৌরসভার দেয়াল চাপা পড়ে শাজাহান মোল্লা (৫০) নামের একজন শ্রমিক ও গৃহবধূ গলেনুর বেগম (৭০) এবং ইন্দুরকানি উপজেলায় পানির স্রোত দেখে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে শাহ আলম (৫৫) নামের একজন মারা গেছেন।

জেলা প্রশাসক আবু আলী সাজ্জাদ হোসেন বৃহস্পতিবার জেলার ইন্দুরকানি ও সাগর সংলগ্ন উপজেলা মঠবাড়িয়ার বিভিন্ন ইউনিয়নের ক্ষতিগ্রস্তদের খোঁজ-খবর এবং দুর্গত মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণে অংশ নেন।

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা জানান, জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলায় ঘরের দেয়াল চাপা পড়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার মধ্য রাতে প্রবল দমকা বাতাস ও বৃষ্টি থাকায় গ্রাম-গঞ্জের বেশ কিছু কাঁচা ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে।

এছাড়া শতশত বনজ বৃক্ষ ও কলার ক্ষেতসহ মাঠের বোরো ও সবজির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। মঠবাড়িয়া উপজেলার বিচ্ছিন্ন দ্বীপ মাঝেরচরে বলেশ্বর নদীর প্রবল স্রোতের তোড়ে ইউনিয়ন পরিষদের নির্মিত একটি বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে যাওয়ায় সেখানের অন্তত ১০ হেক্টর জমির সবজি ও অন্যান্য ফসল ভেসে গেছে। ফলে জলাবদ্ধতার শিকার হয়েছেন অন্তত দেড় হাজার মানুষ। জেলার মৎস্য ঘেরগুলোতে নদ-নদীর পানি প্রবেশ করে কয়েক লাখ টাকার মাছ ভেসে গেছে।

আম্পানের তাণ্ডবের পর স্বাভাবিক হচ্ছে পিরোজপুরের জনজীবন

 পিরোজপুর প্রতিনিধি 
২১ মে ২০২০, ০৮:০১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সুপার সাইক্লোন আম্পানের ক্ষয়ক্ষতির পর পিরোজপুরে অনেকটা স্বাভাবিক হয়ে আসছে জনজীবন। বিভিন্ন সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নেয়া লোকজন সকাল থেকেই নিজেদের বাড়ি ফিরতে শুরু করেছেন।

সাইক্লোন পরবর্তী এখন চলছে প্রশাসনের উদ্ধার কাজসহ ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণ ও ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম।

বুধবার রাতে মঠবাড়িয়ায় পৌরসভার দেয়াল চাপা পড়ে শাজাহান মোল্লা (৫০) নামের একজন শ্রমিক ও গৃহবধূ গলেনুর বেগম (৭০) এবং ইন্দুরকানি উপজেলায় পানির স্রোত দেখে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে শাহ আলম (৫৫) নামের একজন মারা গেছেন।

জেলা প্রশাসক আবু আলী সাজ্জাদ হোসেন বৃহস্পতিবার জেলার ইন্দুরকানি ও সাগর সংলগ্ন উপজেলা মঠবাড়িয়ার বিভিন্ন ইউনিয়নের ক্ষতিগ্রস্তদের খোঁজ-খবর এবং দুর্গত মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণে অংশ নেন।

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা জানান, জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলায় ঘরের দেয়াল চাপা পড়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার মধ্য রাতে প্রবল দমকা বাতাস ও বৃষ্টি থাকায় গ্রাম-গঞ্জের বেশ কিছু কাঁচা ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে।

এছাড়া শতশত বনজ বৃক্ষ ও কলার ক্ষেতসহ মাঠের বোরো ও সবজির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। মঠবাড়িয়া উপজেলার বিচ্ছিন্ন দ্বীপ মাঝেরচরে বলেশ্বর নদীর প্রবল স্রোতের তোড়ে ইউনিয়ন পরিষদের নির্মিত একটি বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে যাওয়ায় সেখানের অন্তত ১০ হেক্টর জমির সবজি ও অন্যান্য ফসল ভেসে গেছে। ফলে জলাবদ্ধতার শিকার হয়েছেন অন্তত দেড় হাজার মানুষ। জেলার মৎস্য ঘেরগুলোতে নদ-নদীর পানি প্রবেশ করে কয়েক লাখ টাকার মাছ ভেসে গেছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ঘূর্ণিঝড় আম্পান

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন