সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মন ভোলানো হাসি
jugantor
সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মন ভোলানো হাসি

  ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি  

২৬ মে ২০২০, ১০:৪৫:৫২  |  অনলাইন সংস্করণ

ঈদের আনন্দ ফিকে করে দিয়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। কিন্তু সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য ঈদের দিনটিকে রাঙিয়ে দিয়েছে ‘ক্লিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া’ নামে একটি ফেসবুকভিত্তিক সংগঠন।

সোমবার দুপুরে জেলা শহরের বিভিন্ন এলাকার রাস্তায় ঘুরে ঘুরে এসব শিশুদের মুখে খাবার তুলে দিয়েছেন ‘ক্লিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া’ সংগঠনের সদস্যরা।

করোনার এই দুর্যোগকালেও সুবিধাবঞ্চিত শিশু ও অসহায় মানুষদের জন্য ঈদের দিনটিকে রাঙিয়ে তুলতে গত দুদিন ধরে চলে খাবার আয়োজনের প্রস্তুতি। তাদের জন্য কেনা হয় খাসি, মুরগি, ডিম ও বিভিন্ন সবজি।

সব আয়োজন সম্পন্ন করে ঈদের দিন দুপুরে খাবারের বক্স নিয়ে ক্লিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংগঠনের সদস্য ছুটে যান শহরের বিভিন্ন এলাকায়। রাস্তায় ঘুরে ঘুরে খাবারগুলো বিতরণ করা হয় পাঁচশ অসহায় ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুর মাঝে।

ঈদের দিন ভালো খাবার পেয়ে মন ভোলানো হাসি ছিল শিশুদের মুখে। তাদের এই হাসিমুখ আত্মতৃপ্ত করে ক্লিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংগঠনের সদস্যদের।

ক্লিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, ঈদের দিন আমরা সবাই যখন বাড়িতে রান্না করা নানা মুখরোচক খাবার খাই তখন সুবিধাবঞ্চিত ও অসহায় মানুষগুলো ক্ষুধার যন্ত্রণায় নিরবে কাঁদে।

আমরা হয়তো প্রতিদিন তাদের ভালো খাবার দিতে পারব না। কিন্তু আমরা চেষ্টা করেছি অন্তত ঈদের দিন যেন তাদেরকে ভালো খাবার খাওয়াতে পারি। সেজন্যই আমরা সব সদস্যরা মিলে ঈদের দিন সুবিধাবঞ্চিত শিশু ও অসহায় মানুষদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা করেছি।

সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মন ভোলানো হাসি

 ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি 
২৬ মে ২০২০, ১০:৪৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঈদের আনন্দ ফিকে করে দিয়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। কিন্তু সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য ঈদের দিনটিকে রাঙিয়ে দিয়েছে ‘ক্লিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া’ নামে একটি ফেসবুকভিত্তিক সংগঠন। 

সোমবার দুপুরে জেলা শহরের বিভিন্ন এলাকার রাস্তায় ঘুরে ঘুরে এসব শিশুদের মুখে খাবার তুলে দিয়েছেন ‘ক্লিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া’ সংগঠনের সদস্যরা।

করোনার এই দুর্যোগকালেও সুবিধাবঞ্চিত শিশু ও অসহায় মানুষদের জন্য ঈদের দিনটিকে রাঙিয়ে তুলতে গত দুদিন ধরে চলে খাবার আয়োজনের প্রস্তুতি। তাদের জন্য কেনা হয় খাসি, মুরগি, ডিম ও বিভিন্ন সবজি। 

সব আয়োজন সম্পন্ন করে ঈদের দিন দুপুরে খাবারের বক্স নিয়ে ক্লিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংগঠনের সদস্য ছুটে যান শহরের বিভিন্ন এলাকায়। রাস্তায় ঘুরে ঘুরে খাবারগুলো বিতরণ করা হয় পাঁচশ অসহায় ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুর মাঝে। 

ঈদের দিন ভালো খাবার পেয়ে মন ভোলানো হাসি ছিল শিশুদের মুখে। তাদের এই হাসিমুখ আত্মতৃপ্ত করে ক্লিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংগঠনের সদস্যদের।

ক্লিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, ঈদের দিন আমরা সবাই যখন বাড়িতে রান্না করা নানা মুখরোচক খাবার খাই তখন সুবিধাবঞ্চিত ও অসহায় মানুষগুলো ক্ষুধার যন্ত্রণায় নিরবে কাঁদে। 

আমরা হয়তো প্রতিদিন তাদের ভালো খাবার দিতে পারব না। কিন্তু আমরা চেষ্টা করেছি অন্তত ঈদের দিন যেন তাদেরকে ভালো খাবার খাওয়াতে পারি। সেজন্যই আমরা সব সদস্যরা মিলে ঈদের দিন সুবিধাবঞ্চিত শিশু ও অসহায় মানুষদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা করেছি।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন