প্রধানমন্ত্রীর দেয়া মসজিদের টাকা আত্মসাত, ইমামের কারাদণ্ড
jugantor
প্রধানমন্ত্রীর দেয়া মসজিদের টাকা আত্মসাত, ইমামের কারাদণ্ড

  ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি  

২৬ মে ২০২০, ১৬:৫৮:০৭  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রধানমন্ত্রীর বরাদ্দকৃত মসজিদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ঠাকুরগাঁওয়ে জয়নাল আবেদীন মন্ডল (৪০) নামে এক ইমামের ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুন এ রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত জয়নাল আবেদিন সদর উপজেলার শুখানপুখুরী ইউনিয়নের লাউথুতি গ্রামের তোয়াজ শেখের ছেলে। তিনি ব্যাংরোল বুঝারীপাড়া জামে মসজিদের ইমাম।

অভিযোগে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রীর তহবিলের বরাদ্দকৃত মসজিদের বরাদ্দ দেয়া অর্থের বিপরীতে উপজেলার শুখানপুখুরী ইউনিয়নের ৪৮টি মসজিদের নামের তালিকা দেয় ইসলামিক ফ্উন্ডেশনের ওই ইউনিয়ন টিম লিডার জয়নাল আবেদিন। 

এর মধ্যে ওই ইউনিয়নের ৬টি মসজিদের টাকা না পাওয়ার অভিযোগ করেন ইউপি সদস্য আমজাদ আলী। অভিযোগ তদন্তের পর ওই ইউনিয়নের লাউথুতি গাইজলখা পাড়া জামে মসজিদ, সারোডুবি মুন্সিপাড়া জামে মসজিদ ও সারোডুবি মাষ্টারপাড়া মসজিদ কমিটি ও ইমামরা পুরো ৫ হাজার করে টাকা না পাওয়ায় অভিযোগ করেন। 

সারোডুবি মুন্সিপাড়া জামে মসজিদের ইমাম আব্দুস সাত্তার বলেন, ৫ হাজার টাকার মধ্যে ২হাজার ৫শ টাকা দেন ওই টিম লিডার।
 
ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, তিনটি মসজিদের মধ্যে ২টি মসজিদ ২ হাজার ৫শ ও একটি ৩ হাজার ৫শ টাকা পায়। অবশিষ্ট টাকা আত্মসাত করার সত্যতা প্রমাণিত হওয়ায় জয়নাল আবেদীনের ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়। 

প্রধানমন্ত্রীর দেয়া মসজিদের টাকা আত্মসাত, ইমামের কারাদণ্ড

 ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি 
২৬ মে ২০২০, ০৪:৫৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রধানমন্ত্রীর বরাদ্দকৃত মসজিদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ঠাকুরগাঁওয়ে জয়নাল আবেদীন মন্ডল (৪০) নামে এক ইমামের ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুন এ রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত জয়নাল আবেদিন সদর উপজেলার শুখানপুখুরী ইউনিয়নের লাউথুতি গ্রামের তোয়াজ শেখের ছেলে। তিনি ব্যাংরোল বুঝারীপাড়া জামে মসজিদের ইমাম।

অভিযোগে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রীর তহবিলের বরাদ্দকৃত মসজিদের বরাদ্দ দেয়া অর্থের বিপরীতে উপজেলার শুখানপুখুরী ইউনিয়নের ৪৮টি মসজিদের নামের তালিকা দেয় ইসলামিক ফ্উন্ডেশনের ওই ইউনিয়ন টিম লিডার জয়নাল আবেদিন।

এর মধ্যে ওই ইউনিয়নের ৬টি মসজিদের টাকা না পাওয়ার অভিযোগ করেন ইউপি সদস্য আমজাদ আলী। অভিযোগ তদন্তের পর ওই ইউনিয়নের লাউথুতি গাইজলখা পাড়া জামে মসজিদ, সারোডুবি মুন্সিপাড়া জামে মসজিদ ও সারোডুবি মাষ্টারপাড়া মসজিদ কমিটি ও ইমামরা পুরো ৫ হাজার করে টাকা না পাওয়ায় অভিযোগ করেন।

সারোডুবি মুন্সিপাড়া জামে মসজিদের ইমাম আব্দুস সাত্তার বলেন, ৫ হাজার টাকার মধ্যে ২হাজার ৫শ টাকা দেন ওই টিম লিডার।

ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, তিনটি মসজিদের মধ্যে ২টি মসজিদ ২ হাজার ৫শ ও একটি ৩ হাজার ৫শ টাকা পায়। অবশিষ্ট টাকা আত্মসাত করার সত্যতা প্রমাণিত হওয়ায় জয়নাল আবেদীনের ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়।