ঘূর্ণিঝড় আম্পানের তাণ্ডব

মনপুরায় ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধ ভেঙ্গে অর্ধলক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দির আশংকা

  মনপুরা (ভোলা) প্রতিনিধি ৩১ মে ২০২০, ২২:২২:১৮ | অনলাইন সংস্করণ

ছবি: যুগান্তর

ভোলার বিচ্ছিন্ন দুর্গম মনপুরায় ঘূর্ণিঝড় আম্পানের তাণ্ডবে উপজেলার চারটি ইউনিয়নে ৮ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের ক্ষতিগ্রস্ত হলেও আজ অবধি ভাঙ্গা বেড়িবাঁধের মেরামতের উদ্যোগ গ্রহণ করেনি পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো)।

এতে সামনের আমবশ্যার প্রভাবে জোয়ারের পানির তীব্রতায় ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধ ভেঙ্গে প্লাবিত হয়ে অর্ধলক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হতে পারে বলে আশংকা করছেন স্থানীয়রা।

এ দিকে উপজেলার হাজীরহাট ইউনিয়নের চরযতিন ও সোনারচর গ্রামবাসীর আর্থিক সহযোগিতা ও যুব সমাজের উদ্যোগে পুরনো থানা সংলগ্ন পাকা রাস্তার সংযোগ ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধটি মেরামতের কাজ শুরু করেছেন।

তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপজেলার সঙ্গে উত্তর সাকুচিয়া সংযোগ বাঁধ সড়কটি ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে ভেঙ্গে যাওয়ার পথে। দ্রুত এই সড়কটির মেরামতের উদ্যোগ গ্রহণ না করলে যে কোনো সময়ে ভেঙ্গে মেঘনা তলিয়ে যাবে ও উপজেলা থেকে বিচ্ছিন্ন হতে পারে।

উপজেলা আ’লীগের সম্পাদক ও উত্তর সাকুচিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. জাকির হোসেন এমনটি জানিয়েছেন।

উপজেলার শতাধিক ব্যক্তি জানান, আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধের মেরামতের কাজ দ্রুত সময়ে না করতে পারলে সামনের আমবশ্যার জোয়ারে বাঁধ ভেঙ্গে পুরো উপজেলা প্লাবিত হতে পারে। এতে অর্ধলক্ষাধিক মানুষ পনিবন্দি হতে পারে বলে আশংকা করেছেন স্থানীয়রা।

হাজীরহাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহরিয়ার চৌধুরী দীপক জানান, তার ইউনিয়নে তিনটি পয়েন্টে বাঁধের সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে। দ্রুত সময়ে ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধের কাজ না করা হলে পানিবান্দি হতে পারে হাজার হাজার মানুষ।

এ ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী আ. রহমান বলেন, বেড়িবাঁধটি ভেঙ্গে গেলে যাতে জনসাধারণের দুর্ভোগ না হয় তার জন্য বিকল্প বেড়িবাঁধের কাজ চলছে। তবে যুব সমাজ বেড়িবাঁধ রক্ষার যে উদ্যোগ নিয়েছে তা প্রশংশনীয়। আমিও ব্যক্তিগতভাবে সার্বিক সহযোগিতা করব।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিপুল চন্দ্র দাস জানান, ঘূর্ণিঝড় আম্পানের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ মেরামতের জন্য পাউবোকে অবহিত করা হয়েছে।

এ ছাড়াও আমবশ্যা আসার পূর্বে বাঁধ মেরামত না করতে পারলে বাঁধ ভেঙ্গে প্লাবিত হওয়ার আশংকা রয়েছে। তাই দ্রুত সময়ে বাঁধ নির্মাণের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত