বগুড়ায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা হত্যায় যুবলীগ নেতা শেখসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা

  বগুড়া ব্যুরো ০৭ জুন ২০২০, ১১:০৬:৩৮ | অনলাইন সংস্করণ

আবু হানিফ মিস্টার। ছবি: যুগান্তর

বগুড়া জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু হানিফ মিস্টারকে (৩৫) কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় জেলা যুবলীগের সাবেক ও প্রস্তাবিত কমিটির সিনিয়র সহসভাপতি শেখকে প্রধান আসামি করে ১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

শনিবার রাতে নিহতের বাবা আরমান ড্রাইভার শাজাহানপুর থানায় এ মামলা করেন।

এ ঘটনায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে ফিরোজ নামে এজাহারভুক্ত আসামিকে গ্রেফতার করেছে।

মামলাটি গুরুত্বপূর্ণ হওয়ায় ডিবি পুলিশকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) সনাতন চক্রবর্তী এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও এলাকা সূত্রে জানা যায়, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মিস্টার শাজাহানপুর উপজেলার শাকপালার আরমান ড্রাইভারের ছেলে। মিস্টার প্রতি শুক্রবার জুমার নামাজের আগে মসজিদে গিয়ে কোরআন তিলাওয়াত করেন।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তিনি বাড়ি থেকে শাকপালা বাসস্ট্যান্ডে বাইতুস সালাম জামে মসজিদে জুমার নামাজ আদায়ের জন্য যাচ্ছিলেন। মসজিদের গেটে পৌঁছলে মোটরসাইকেলে আসা কয়েকজন দুর্বৃত্ত কুড়াল দিয়ে তার মাথায় এলোপাতাড়ি আঘাত করে। এর পর কুড়াল ফেলে পালিয়ে যায়।

স্থানীয়রা রক্তাক্ত মিস্টারকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে নিয়ে যান। কিছুক্ষণ পর অপারেশন থিয়েটারে তার মৃত্যু হয়।

শাজাহানপুর থানার ওসি আজিম উদ্দিন জানান, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মিস্টার হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তার বাবা শনিবার রাতে থানায় জেলা যুবলীগের সহসভাপতি শেখকে প্রধান আসামি করে ১২ জনের নামে এবং অজ্ঞাত ৪-৫ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেছেন।

বাদী এজাহারে পূর্ব শত্রুতার জেরে তার ছেলেকে প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়ে হত্যার কথা উল্লেখ করেছেন। মামলার পর পুলিশ এজাহারভুক্ত ৩ নম্বর আসামি শাকপালার জামালের ছেলে ফিরোজকে গ্রেফতার করেছে।

মামলাটি গুরুত্বপূর্ণ হওয়ায় পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা তদন্তের ভার ডিবি পুলিশকে দিয়েছেন।

ডিবি পুলিশের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর আসলাম আলী জানান, তদন্ত করে অন্য আসামিদের গ্রেফতার করা হবে।

মামলা প্রসঙ্গে প্রধান আসামি জেলা যুবলীগের সাবেক কমিটির সহসভাপতি ও প্রস্তাবিত কমিটির সিনিয়র সহসভাপতি শেখ জানান, প্রযুক্তির যুগে কোনো কিছু গোপন করা কঠিন। এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে তার কোনো সম্পৃক্ততা নেই। এটি তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র; হয়রানি করার জন্যই তাকে মামলায় জড়ানো হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত