মদনে পিটিয়ে মেম্বারের মায়ের হাত ভেঙে দিল প্রতিপক্ষ
jugantor
মদনে পিটিয়ে মেম্বারের মায়ের হাত ভেঙে দিল প্রতিপক্ষ

  মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি  

০৯ জুন ২০২০, ০০:৪১:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার মদনে মারামারির ঘটনার জের ধরে মেম্বারের বৃদ্ধা মায়ের হাত ও আঙ্গুল ভেঙে দিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন। সোমবার উপজেলার বালালী গ্রামের ইউপি সদস্য রিয়াজ আহমেদ সোহেলের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

রিয়াজ আহমেদের মা রুপচান (৭৫) ভাঙ্গা হাত নিয়ে মদন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গত শনিবার সন্ধ্যায় পূর্বশত্রুতার জের ধরে একই গ্রামের আবদুল গণি বেচুকে দৌলতপুর কালিবাড়ি মোড়ে প্রতিপক্ষের লোকজন মারপিট করে। পরে তার ছেলে ওমর সানি বাদী হয়ে ওই রাতে ৫৬ জনকে আসামি করে মদন থানায় একটি মামলা করে।

ইউপি সদস্য রিয়াজ আহমেদ সোহেল বলেন, ওই ঘটনার জের ধরে বালালী গ্রামের বেচু মিয়ার ভাই জলিলের নেতৃত্বে ১০-১৫ জন সশস্ত্র লোক সোমবার সকালে আমার বাড়িতে অতর্কিত হামলা চালিয়ে আমার বসত ঘরে ব্যাপক ভাংচুর ও আমার বৃদ্ধা মাকে বেধড়ক পেটায়।

ইউপি চেয়ারম্যান ফখর উদ্দিন আহমেদ জানান, ঘটনার খবর পেয়ে গ্রামে গিয়েছি। তবে ইউপি সদস্যের মাকে মারপিট করার ঘটনাটি দুঃখজনক।

মদন থানার ওসি রমিজুল হক বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মদনে পিটিয়ে মেম্বারের মায়ের হাত ভেঙে দিল প্রতিপক্ষ

 মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি 
০৯ জুন ২০২০, ১২:৪১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার মদনে মারামারির ঘটনার জের ধরে মেম্বারের বৃদ্ধা মায়ের হাত ও আঙ্গুল ভেঙে দিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন। সোমবার উপজেলার বালালী গ্রামের ইউপি সদস্য রিয়াজ আহমেদ সোহেলের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

রিয়াজ আহমেদের মা রুপচান (৭৫) ভাঙ্গা হাত নিয়ে মদন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গত শনিবার সন্ধ্যায় পূর্বশত্রুতার জের ধরে একই গ্রামের আবদুল গণি বেচুকে দৌলতপুর কালিবাড়ি মোড়ে প্রতিপক্ষের লোকজন মারপিট করে। পরে তার ছেলে ওমর সানি বাদী হয়ে ওই রাতে ৫৬ জনকে আসামি করে মদন থানায় একটি মামলা করে।

ইউপি সদস্য রিয়াজ আহমেদ সোহেল বলেন, ওই ঘটনার জের ধরে বালালী গ্রামের বেচু মিয়ার ভাই জলিলের নেতৃত্বে ১০-১৫ জন সশস্ত্র লোক সোমবার সকালে আমার বাড়িতে অতর্কিত হামলা চালিয়ে আমার বসত ঘরে ব্যাপক ভাংচুর ও আমার বৃদ্ধা মাকে বেধড়ক পেটায়।

ইউপি চেয়ারম্যান ফখর উদ্দিন আহমেদ জানান, ঘটনার খবর পেয়ে গ্রামে গিয়েছি। তবে ইউপি সদস্যের মাকে মারপিট করার ঘটনাটি দুঃখজনক।

মদন থানার ওসি রমিজুল হক বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন