সম্পত্তি লিখে না দেয়ায় বাবাকে নির্যাতন, ছেলে গ্রেফতার
jugantor
সম্পত্তি লিখে না দেয়ায় বাবাকে নির্যাতন, ছেলে গ্রেফতার

  দিনাজপুর প্রতিনিধি  

১১ জুন ২০২০, ১৮:১৬:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

সম্পত্তি লিখে না দেয়ায় বাবাকে নির্যাতনের অভিযোগে বাবার দায়েরকৃত মামলায় গ্রেফতার হয়েছে জাহিদ হাসান (২৮) নামে এক সন্তান।

বুধবার দিবাগত রাতে দিনাজপুর সদর উপজেলার রানীপুর গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত জাহিদ হাসান দিনাজপুর সদর উপজেলার ফাজিলপুর ইউনিয়নের রানীপুর গ্রামের মো. মোখলেছুর রহমানের ছেলে।

কোতোয়ালি থানার ওসি মো. মোজাফ্ফর হোসেন জানান, সম্পত্তি ও বাজারের মার্কেট লিখে না দেয়ায় দুই সন্তান তাদের চাচাদের নিয়ে বাবা মোখলেছুর রহমানের ওপর নির্যাতন চালায়। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে বুধবার বিকালে কোতোয়ালি থানায় নিয়ে আসে। এরপর কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন নির্যাতনের শিকার মোখলেছুর রহমান।

মামলায় মোখলেছুর রহমান উল্লেখ করেন, আমার দুই সন্তান নাহিদ হাসান ও জাহিদ হাসান তাদের দুই চাচার সঙ্গে হাত মিলিয়ে আমার প্রায় ৮০ লাখ টাকার সম্পত্তি লিখে নেয়ার চেষ্টা করছে। আমার স্থানীয় রানীপুর বাজারে একটি মার্কেট ও প্রায় আড়াই একর জমি আছে।

কিন্তু আমার ছেলে নাহিদ ও জাহিদ এবং আমার দুই ভাই ও একজন ভাতিজা এক হয়ে আমার বাজারের মার্কেট ও আড়াই একর জমি তাদের নামে লিখে দিতে বহুদিন ধরেই চাপ দিয়ে আসছিল। কিন্তু আমি মার্কেট ও জমি আমার সন্তানদের নামে লিখে না দেয়ায় তারা আমাকে এক মাস ঘরে বন্দি করে অমানুষিক নির্যাতন চালিয়েছে।

আমার আঙ্গুলের নখ তুলে নিয়েছে। আমার পায়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ দিয়ে আমার পা কেটে ফেলেছে। আমি আমার সম্পত্তি তাদের নামে লিখে না দেয়ার কারণে আমাকে তারা গলায় দড়ি দিয়েও মেরে ফেলার চেষ্টা করেছে।

বেশ কয়েকবার বিষ এনে আমাকে খাইয়ে মেরে ফেলার চেষ্টা করেছে আমার দুই সন্তান। আমার পক্ষে পাড়া-প্রতিবেশীরা কেউ কথা বলতে এগিয়ে আসলে তাদেরকেও মারধর করার চেষ্টা করে।

ওসি মো মোজাফ্ফর হোসেন জানান, বুধবার রাতে মামলা দায়েরের পর তখনই তার ছোট ছেলে জাহিদ হাসানকে গ্রেফতার করা হয়। বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

সম্পত্তি লিখে না দেয়ায় বাবাকে নির্যাতন, ছেলে গ্রেফতার

 দিনাজপুর প্রতিনিধি 
১১ জুন ২০২০, ০৬:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সম্পত্তি লিখে না দেয়ায় বাবাকে নির্যাতনের অভিযোগে বাবার দায়েরকৃত মামলায় গ্রেফতার হয়েছে জাহিদ হাসান (২৮) নামে এক সন্তান। 

বুধবার দিবাগত রাতে দিনাজপুর সদর উপজেলার রানীপুর গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

গ্রেফতারকৃত জাহিদ হাসান দিনাজপুর সদর উপজেলার ফাজিলপুর ইউনিয়নের রানীপুর গ্রামের মো. মোখলেছুর রহমানের ছেলে। 

কোতোয়ালি থানার ওসি মো. মোজাফ্ফর হোসেন জানান, সম্পত্তি ও বাজারের মার্কেট লিখে না দেয়ায় দুই সন্তান তাদের চাচাদের নিয়ে বাবা মোখলেছুর রহমানের ওপর নির্যাতন চালায়। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে বুধবার বিকালে কোতোয়ালি থানায় নিয়ে আসে। এরপর কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন নির্যাতনের শিকার মোখলেছুর রহমান। 

মামলায় মোখলেছুর রহমান উল্লেখ করেন, আমার দুই সন্তান নাহিদ হাসান ও জাহিদ হাসান তাদের দুই চাচার সঙ্গে হাত মিলিয়ে আমার প্রায় ৮০ লাখ টাকার সম্পত্তি লিখে নেয়ার চেষ্টা করছে। আমার স্থানীয় রানীপুর বাজারে একটি মার্কেট ও প্রায় আড়াই একর জমি আছে। 

কিন্তু আমার ছেলে নাহিদ ও জাহিদ এবং আমার দুই ভাই ও একজন ভাতিজা এক হয়ে আমার বাজারের মার্কেট ও আড়াই একর জমি তাদের নামে লিখে দিতে বহুদিন ধরেই চাপ দিয়ে আসছিল। কিন্তু আমি মার্কেট ও জমি আমার সন্তানদের নামে লিখে না দেয়ায় তারা আমাকে এক মাস ঘরে বন্দি করে অমানুষিক নির্যাতন চালিয়েছে। 

আমার আঙ্গুলের নখ তুলে নিয়েছে। আমার পায়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ দিয়ে আমার পা কেটে ফেলেছে। আমি আমার সম্পত্তি তাদের নামে লিখে না দেয়ার কারণে আমাকে তারা গলায় দড়ি দিয়েও মেরে ফেলার চেষ্টা করেছে। 

বেশ কয়েকবার বিষ এনে আমাকে খাইয়ে মেরে ফেলার চেষ্টা করেছে আমার দুই সন্তান। আমার পক্ষে পাড়া-প্রতিবেশীরা কেউ কথা বলতে এগিয়ে আসলে তাদেরকেও মারধর করার চেষ্টা করে। 

ওসি মো মোজাফ্ফর হোসেন জানান, বুধবার রাতে মামলা দায়েরের পর তখনই তার ছোট ছেলে জাহিদ হাসানকে গ্রেফতার করা হয়। বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়।
 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন