গাজীপুরে ১২ মামলার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত
jugantor
গাজীপুরে ১২ মামলার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

  কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি  

১৮ জুন ২০২০, ১২:০০:০৭  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরে ১২ মামলার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত
ফাইল ছবি

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ হানিফ (৩২) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন।

পুলিশের দাবি, নিহত হানিফ শীর্ষ সন্ত্রাসী। তার নামে ছিনতাই, ডাকাতি, নারী নির্যাতনসহ ১২টি মামলা রয়েছে। তিনি মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার কাঞ্চন সিকদারের ছেলে। হানিফ হাবিবপুর এলাকায় শ্বশুরবাড়ি থেকে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলেন।

বৃহস্পতিবার ভোরে বিশ্বাসপাড়া এলাকার ঝিকঝাক মাঠে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।
 
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, কালিয়াকৈর উপজেলার হাবিবপুর এলাকার ঝিকঝাক মাঠে কয়েকজন সন্ত্রাসী অবৈধ অস্ত্রসহ অবস্থান করছিলেন। এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কালিয়াকৈর থানার একদল পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়।
 
এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসী বাহিনী পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ হয়ে হানিফ মারা যান।

এ সময় তার বাকি সহযোগীরা পালিয়ে যান। ঘটনাস্থল থেকে নিহতের মরদেহ ও একটি দেশীয় তৈরি একনালা এলজি বন্দুক ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় কালিয়াকৈর থানা পুলিশের এসআই মাহবুব হোসেন, এএসআই সুলতান, দুই কনস্টেবল আ. মালেক ও সুলতান আহত হয়েছেন। আহত পুলিশ সদস্যদের স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

কালিয়াকৈর থানার ওসি আলমগীর হোসেন মজুমদার জানান, বন্দুকযুদ্ধে ঘটনাস্থলে হানিফ মারা যায় এবং পুলিশের চার সদস্য আহত হন। এ ছাড়া ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় তৈরি একনালা এলজি বন্দুক ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহতের নামে মাদক, ছিনতাই, ডাকাতি, নারী নির্যাতনসহ ১২টি মামলা রয়েছে।

গাজীপুরে ১২ মামলার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

 কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি 
১৮ জুন ২০২০, ১২:০০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
গাজীপুরে ১২ মামলার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত
ফাইল ছবি

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ হানিফ (৩২) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন।

পুলিশের দাবি, নিহত হানিফ শীর্ষ সন্ত্রাসী। তার নামে ছিনতাই, ডাকাতি, নারী নির্যাতনসহ ১২টি মামলা রয়েছে। তিনি মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার কাঞ্চন সিকদারের ছেলে। হানিফ হাবিবপুর এলাকায় শ্বশুরবাড়ি থেকে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলেন।

বৃহস্পতিবার ভোরে বিশ্বাসপাড়া এলাকার ঝিকঝাক মাঠে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, কালিয়াকৈর উপজেলার হাবিবপুর এলাকার ঝিকঝাক মাঠে কয়েকজন সন্ত্রাসী অবৈধ অস্ত্রসহ অবস্থান করছিলেন। এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কালিয়াকৈর থানার একদল পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়।

এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসী বাহিনী পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ হয়ে হানিফ মারা যান।

এ সময় তার বাকি সহযোগীরা পালিয়ে যান। ঘটনাস্থল থেকে নিহতের মরদেহ ও একটি দেশীয় তৈরি একনালা এলজি বন্দুক ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় কালিয়াকৈর থানা পুলিশের এসআই মাহবুব হোসেন, এএসআই সুলতান, দুই কনস্টেবল আ. মালেক ও সুলতান আহত হয়েছেন। আহত পুলিশ সদস্যদের স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

কালিয়াকৈর থানার ওসি আলমগীর হোসেন মজুমদার জানান, বন্দুকযুদ্ধে ঘটনাস্থলে হানিফ মারা যায় এবং পুলিশের চার সদস্য আহত হন। এ ছাড়া ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় তৈরি একনালা এলজি বন্দুক ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহতের নামে মাদক, ছিনতাই, ডাকাতি, নারী নির্যাতনসহ ১২টি মামলা রয়েছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত