ফেসবুকে স্ট্যাটাসে অসহায় বৃদ্ধা পেল স্বপ্নের ঘর
jugantor
ফেসবুকে স্ট্যাটাসে অসহায় বৃদ্ধা পেল স্বপ্নের ঘর

  ধোবাউড়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

২২ জুন ২০২০, ২২:২৭:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেখে এক অসহায় বৃদ্ধার স্বেচ্ছাশ্রমে ঘর নির্মাণ করে দিল কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবক। উপজেলার বাঘবেড় ইউনিয়নের পশ্চিম শালকোনা গ্রামের সহায় সম্বলহীন নিঃস্ব বৃদ্ধা ময়মনা খাতুনকে এই ঘরটি নির্মাণ করে দেয়া হয়েছে।

প্রায় ৮০ বছর বয়সী ময়মনা খাতুনের স্বামী আবদুল জলিল মারা যান ২০ বছর পূর্বে। ৫ বছর পূর্বে অসুস্থ ছেলেদের চিকিৎসার জন্য পাশের বাড়ির একজনের কাছে বিক্রি করে দেন নিজ বসতভিটা। কিন্তু তার ১ বছর পরেই কিছুদিনের ব্যবধানে মরনব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে মারা যায় ময়মনার দুই ছেলে।

সর্বস্ব হারানো ময়মনাকে তবুও তার বসতভিটাতেই আমৃত্যু থাকতে বলেছিলেন জমি ক্রয়কারী প্রতিবেশী ভাই। কিন্তু কালবৈশাখী ঝড়ে কাঁচা ঘরটিও ভেঙ্গে যায় তার। এরপর থেকে ময়মনার আশ্রয় হয় পাশের বাড়ির ভাতিজা ইছব আলীর রান্নাঘরে। ময়মনা খাতুন বয়স্ক ভাতা পান। আর মানুষের সাহায্য নিয়ে অতি কষ্টে ওই রান্না ঘরেই কাটছিল তার জীবন।

কখনো কল্পনাও করেননি নিজের সুন্দর একটা ছোট্ট ঘরে আবার কোনোদিন থাকতে পারবেন। কিন্তু হঠাৎই যেন তার সবকিছু পাল্টে যায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এরশাদুল হক সুমন ময়মনা খাতুনকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন।

সুমন জানান, বাবার মুখে ময়মনার কাহিনী শুনে স্ট্যাটাসটা দিয়েছিলাম। সঙ্গে সঙ্গে আমাদের ‘মানবতার মিছিল’ সংগঠনের অন্যতম মেন্টর সোনালী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার জয় প্রকাশ সাহা ও কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দিক কিছুদিনের জন্য আনুসাঙ্গিক খাবারের ব্যবস্থা করে দেন এবং পরবর্তীতেও ঘরের জন্য চৌকিসহ আনুসাঙ্গিক জিনিস ক্রয় করতে সহায়তা দেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাফিকুজ্জামান জানান, ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক টিমের মাধ্যমে সমাজসেবা অধিদফতর থেকে ২ বান টিন ও ছয় হাজার টাকার ব্যাংক চেক প্রদান করেন। সোশ্যাল মিডিয়াতে দেয়া পোস্ট দেখে অনেকে অর্থ ও খাদ্য সহায়তা দেয়ার আগ্রহ জানায় এবং সহায়তা প্রদান করেন। স্বেচ্ছাসেবক টিমের সদস্যরা মিলে সেই সহায়তা দিয়ে বৃদ্ধা ময়মনার জন্য স্বেচ্ছাশ্রমে একটি ছোট্ট ঘর তৈরি করে দেন।

ঘর পেয়ে খুশি ময়মনা খাতুন। বলেন, অনেক কষ্টে ছিলাম, তবে এই ঘরটি পেয়ে আমি সেই দুঃখ ভুলে গেছি।

ফেসবুকে স্ট্যাটাসে অসহায় বৃদ্ধা পেল স্বপ্নের ঘর

 ধোবাউড়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
২২ জুন ২০২০, ১০:২৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেখে এক অসহায় বৃদ্ধার স্বেচ্ছাশ্রমে ঘর নির্মাণ করে দিল কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবক। উপজেলার বাঘবেড় ইউনিয়নের পশ্চিম শালকোনা গ্রামের সহায় সম্বলহীন নিঃস্ব বৃদ্ধা ময়মনা খাতুনকে এই ঘরটি নির্মাণ করে দেয়া হয়েছে।

প্রায় ৮০ বছর বয়সী ময়মনা খাতুনের স্বামী আবদুল জলিল মারা যান ২০ বছর পূর্বে। ৫ বছর পূর্বে অসুস্থ ছেলেদের চিকিৎসার জন্য পাশের বাড়ির একজনের কাছে বিক্রি করে দেন নিজ বসতভিটা। কিন্তু তার ১ বছর পরেই কিছুদিনের ব্যবধানে মরনব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে মারা যায় ময়মনার দুই ছেলে।

সর্বস্ব হারানো ময়মনাকে তবুও তার বসতভিটাতেই আমৃত্যু থাকতে বলেছিলেন জমি ক্রয়কারী প্রতিবেশী ভাই। কিন্তু কালবৈশাখী ঝড়ে কাঁচা ঘরটিও ভেঙ্গে যায় তার। এরপর থেকে ময়মনার আশ্রয় হয় পাশের বাড়ির ভাতিজা ইছব আলীর রান্নাঘরে। ময়মনা খাতুন বয়স্ক ভাতা পান। আর মানুষের সাহায্য নিয়ে অতি কষ্টে ওই রান্না ঘরেই কাটছিল তার জীবন।

কখনো কল্পনাও করেননি নিজের সুন্দর একটা ছোট্ট ঘরে আবার কোনোদিন থাকতে পারবেন। কিন্তু হঠাৎই যেন তার সবকিছু পাল্টে যায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এরশাদুল হক সুমন ময়মনা খাতুনকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন।

সুমন জানান, বাবার মুখে ময়মনার কাহিনী শুনে স্ট্যাটাসটা দিয়েছিলাম। সঙ্গে সঙ্গে আমাদের ‘মানবতার মিছিল’ সংগঠনের অন্যতম মেন্টর সোনালী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার জয় প্রকাশ সাহা ও কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দিক কিছুদিনের জন্য আনুসাঙ্গিক খাবারের ব্যবস্থা করে দেন এবং পরবর্তীতেও ঘরের জন্য চৌকিসহ আনুসাঙ্গিক জিনিস ক্রয় করতে সহায়তা দেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাফিকুজ্জামান জানান, ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক টিমের মাধ্যমে সমাজসেবা অধিদফতর থেকে ২ বান টিন ও ছয় হাজার টাকার ব্যাংক চেক প্রদান করেন। সোশ্যাল মিডিয়াতে দেয়া পোস্ট দেখে অনেকে অর্থ ও খাদ্য সহায়তা দেয়ার আগ্রহ জানায় এবং সহায়তা প্রদান করেন। স্বেচ্ছাসেবক টিমের সদস্যরা মিলে সেই সহায়তা দিয়ে বৃদ্ধা ময়মনার জন্য স্বেচ্ছাশ্রমে একটি ছোট্ট ঘর তৈরি করে দেন।

ঘর পেয়ে খুশি ময়মনা খাতুন। বলেন, অনেক কষ্টে ছিলাম, তবে এই ঘরটি পেয়ে আমি সেই দুঃখ ভুলে গেছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন