রাতের আঁধারে দেখা মিলল বিপন্ন প্রজাতির শঙ্খিনী সাপের

  হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি ২৭ জুন ২০২০, ০১:০৮:১৮ | অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার একটি বাড়ি থেকে বিপন্ন প্রজাতির শঙ্খিনী সাপের দেখা মিলেছে। বুধবার রাতে উপজেলার দক্ষিণ মাদার্শা ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের মুসা খলিফার বাড়িতে নূর হোসেনের বাড়িতে সাপটি দেখা যায়।

স্থানীয় বাসিন্দা মো. ফরহাদুর রহমান জানান, ওই দিন রাতে নূর হোসেনের বাসার আঙ্গিনায় কাজের বুয়ার টর্চ লাইটের সাপটিকে দেখে চিৎকার শুরু করে। সাপটির লম্বায় প্রায় ৬ থেকে ৭ ফুট দৈর্ঘ্যের।

এদিকে কাজের বুয়ার শোর চিৎকার শুনে এলাকার কয়েকজন যুবক এগিয়ে এসে সাপটিতে মারার জন্য উদ্যত হয়। তবে উপস্থিত এলাকার বয়োজ্যেষ্ঠরা বাধা দিলে যুবকরা সাপটিকে মারা থেকে বিরত থাকে। পরে সারা শরীরজুড়ে কালো ও হলুদ ডোরা চমৎকার রঙে সজ্জিত শঙ্খিনী সাপটি নিরাপদে ওই স্থান ত্যাগ করে।

বাংলাদেশের পরিবেশ উপযোগী অন্যতম সুন্দর সাপ শঙ্খিনী পার্বত্য এলাকায় বেশি দেখা যায় জানিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. ফরিদ আহসান বলেন, যে এলাকায় শঙ্খিনী থাকে অন্যান্য সাপ সাধারণত সেখানে থাকে না। কারণ কেউটে, গোখরো, কালাচসহ অন্যান্য বিষাক্ত সাপ এদের প্রিয় খাদ্য। তাই এদের ভয়ে অন্য সাপ পালিয়ে বেড়ায়। নিশাচর শঙ্খিনী ইঁদুরের গর্ত, ইটের স্তূপে কিংবা উইয়ের ঢিবিতে থাকতে পছন্দ করে।

তিনি আরও জানান, আইইউসিএন এর বিপন্নের তালিকায় থাকা শঙ্খিনী সাপ প্রাকৃতিকভাবেই পরিবেশে নিয়ন্ত্রকের ভূমিকা রাখে। মানুষ নির্বিচারে মেরে ফেলায় অন্যান্য সাপের মতো এই সাপও কমছে। তাছাড়া সাপের বাসস্থান বিপন্ন হচ্ছে দ্রুত।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত