শ্রীপুরে ভুয়া পুলিশ আটক
jugantor
শ্রীপুরে ভুয়া পুলিশ আটক

  শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি  

২৭ জুন ২০২০, ১৮:১৫:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

এক ভুয়া পুলিশ সদস্য আটক করে গাজীপুরে শ্রীপুর থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

তার নাম শাহরিয়ার পলাশ (৪০)। তিনি কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলার চর তেরটেকিয়া গ্রামের আব্দুল মতিনের ছেলে।

শনিবার সকাল ১০টায় শ্রীপুর পৌরসভার গিলারচালা গ্রামের (১নং সিএন্ডবি বাজার) এলাকার সোহাগ মিয়ার খাবার হোটেলে ভেজাল খাদ্যের অজুহাতে টাকা দাবি করার সময় তাকে আটক করে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আলাউদ্দিন জানান, শনিবার সকাল ১০টায় শ্রীপুর পৌরসভার ১নং সিএন্ডবি বাজারের একটি খাবার হোটেলে শ্রীপুর থানা পুলিশ পরিচয়ে ভেজাল খাবারের অনুসন্ধান করে পলাশ। তিনি নিজেকে শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হায়দার পরিচয় দেন। এ সময় হোটেল কর্মচারী সোহাগ মিয়ার কাছে টাকা দাবি করেন। টাকা না দিলে কর্মচারীকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করানোর হুমকি দেয়। বিষয়টি সোহাগ বাজারের অন্যান্য ব্যবসায়ীদের সঙ্গে শেয়ার করেন। ব্যবসায়ীদের সন্দেহ হলে তারা শ্রীপুর থানায় যোগাযোগ করলে হায়দার নামে থানায় কোনো উপ-পরিদর্শক (এসআই) নেই বলে জানানো হয়।

পরে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা পলাশকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় হোটেল কর্মচারী সোহাগ বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

শ্রীপুরে ভুয়া পুলিশ আটক

 শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি 
২৭ জুন ২০২০, ০৬:১৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

এক ভুয়া পুলিশ সদস্য আটক করে গাজীপুরে শ্রীপুর থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

তার নাম শাহরিয়ার পলাশ (৪০)।  তিনি কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলার চর তেরটেকিয়া গ্রামের আব্দুল মতিনের ছেলে।

শনিবার সকাল ১০টায় শ্রীপুর পৌরসভার গিলারচালা গ্রামের (১নং সিএন্ডবি বাজার) এলাকার সোহাগ মিয়ার খাবার হোটেলে ভেজাল খাদ্যের অজুহাতে টাকা দাবি করার সময় তাকে আটক করে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আলাউদ্দিন জানান, শনিবার সকাল ১০টায় শ্রীপুর পৌরসভার ১নং সিএন্ডবি বাজারের একটি খাবার হোটেলে শ্রীপুর থানা পুলিশ পরিচয়ে ভেজাল খাবারের অনুসন্ধান করে পলাশ। তিনি নিজেকে শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হায়দার পরিচয় দেন। এ সময় হোটেল কর্মচারী সোহাগ মিয়ার কাছে টাকা দাবি করেন। টাকা না দিলে কর্মচারীকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করানোর হুমকি দেয়। বিষয়টি সোহাগ বাজারের অন্যান্য ব্যবসায়ীদের সঙ্গে শেয়ার করেন। ব্যবসায়ীদের সন্দেহ হলে তারা শ্রীপুর থানায় যোগাযোগ করলে হায়দার নামে থানায় কোনো উপ-পরিদর্শক (এসআই) নেই বলে জানানো হয়।

পরে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা পলাশকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় হোটেল কর্মচারী সোহাগ বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন