স্ত্রীকে উত্যক্ত করায় ছুরি মেরে হত্যার দায় স্বীকার

  যশোর ব্যুরো ৩০ জুন ২০২০, ০০:০৯:১৬ | অনলাইন সংস্করণ

যশোরের বাঘারপাড়ায় স্ত্রীকে উত্যক্ত করায় রিপন ড্রাইভারকে ছুরি মেরে হত্যা করেছে বলে দায় স্বীকার করেছেন আসামি বরকতুল্লাহ খান।

সোমবার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলামের আদালতে তিনি এ জবানবন্দি দেন। বিচারক জবানবন্দি গ্রহণ শেষে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। বরকতুল্লাহ খান যশোর শহরের বারান্দী মোল্লাপাড়ার মৃত মাহাফুজুর রহমানের ছেলে।

জবানবন্দিতে বরকতুল্লাহ খান জানান, তিন মাস আগে যশোর শহরের বারান্দীপাড়ার পিংকিকে ভালোবেসে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। তার স্ত্রী-সন্তান থাকায় এই দ্বিতীয় বিয়ে মেনে নেয়নি পরিবারের লোকজন। যার ফলে বরকতুল্লাহ তার স্ত্রী পিংককে নিয়ে নানা বাড়ি বাঘারপাড়ার ধলগ্রামে ছিলেন।

রোববার সকালে একটি ভ্যানে করে নষ্ট মোটরসাইকেল নিয়ে মেরামতের জন্য বাঘারপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে আসেন বরকতুল্লাহ ও তার স্ত্রী পিংকি। স্ত্রীকে রাস্তার অপর পাশে ভ্যানের উপর বসিয়ে রেখে গ্যারেজে মোটরসাইকেলের কাজ করাচ্ছিলেন বরকতুল্লাহ।

কিছু সময় পর তার স্ত্রী পিংকি তাকে ডেকে পাশে থাকা মাইক্রোবাসের একজন ড্রাইভার তাকে ইভটিজিং করেছে বলে জানান। বরকতুল্লাহ ওই ড্রাইভারের কাছে গিয়ে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করেন। এরমধ্যে অপর মাইক্রোবাসের ড্রাইভার এসে তার উপরে উত্তেজিত হয়ে কথা বলেন।

এ সময় দুজনের ধাক্কাধাক্কিতে রিপন ড্রাইভার পড়ে যান। রিপনের চিৎকারে আশেপাশের ড্রাইভাররা এগিয়ে এসে তাকে মারপিট শুরু করে। স্ত্রী পিংকি ঠেকাতে গেলে তাকেও মারপিট করা হয়। একপর্যায়ে বরকতুল্লাহর পকেটে থাকা ছুরি দিয়ে আঘাত করলে রিপনের বুকে লাগে। এরমধ্যে পুলিশ এসে তাকে ধরে নিয়ে যায়। পরে তিনি শুনেছেন রিপন ড্রাইভার মারা গেছেন।

এ ব্যাপারে নিহতের পিতা মনিরুল ইসলাম বাদী হয়ে আটক বরকতুল্লাহ খানকে আসামি করে বাঘারপাড়া থানায় মামলা করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আটক বরকতুল্লাহ খানকে আদালতে সোপর্দ করলে জবানবন্দিতে হত্যা করেছে মর্মে জানিয়েছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত