শরণখোলায় নারী ইউপি সদস্যের সংবাদ সম্মেলন
jugantor
শরণখোলায় নারী ইউপি সদস্যের সংবাদ সম্মেলন

  শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি  

০২ জুলাই ২০২০, ১৩:২৯:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

শরণখোলায় নারী ইউপি সদস্যের সংবাদ সম্মেলন

বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলায় সাউথখালী ইউনিয়নের ইউপি সদস্য আরিফুন্নাহার বিউটি সংবাদ সম্মেলন করে তার বিরুদ্ধে ফেয়ার প্রাইজের চাল আত্মসাতের ঘটনা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন। নির্বাচনে পরাজিত প্রতিপক্ষ নাছিমা বেগম তাকে ফাঁসাতে মিথ্যা অভিযোগ করেছেন বলে জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে শরণখোলা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ বক্তব্য তুলে ধরেন।

আরিফুন্নাহার বিউটি লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমার নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বী নাছিমা বেগম পরাজিত হয়ে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা-কাল্পনিক ও বানোয়াট তথ্য দিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগে যেসব সুবিধাভোগীর চাল আত্মসাতের কথা বলা হয়েছে, তারা প্রতি মাসে চাল উত্তোলন করে ভোগ করছেন। যার প্রমাণ হিসেবে ওই সব সুবিধাভোগী লিখিত প্রত্যয়নপত্র দিয়ে স্বীকার করেছেন।

এ ছাড়া ১৮ সুবিধাভোগীর কার্ড হারিয়ে ফেলায় তার পরিবর্তে তাদের জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি জমা দিয়ে চাল উত্তোলন করেছেন। যেখানে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর রয়েছে। কিন্তু আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে মিথ্যা তথ্য দিয়ে সমাজে ও আমার নির্বাচনী এলাকায় হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সাউথখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মোজাম্মেল হোসেন বলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশনা অনুযায়ী– যারা একাধিক সরকারি সহায়তা পায়, তাদের নাম ফেয়ার প্রাইজের তালিকা থেকে বাদ দিয়ে, যাদের কার্ড নেই তাদের নতুন তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে চাল দেয়া হচ্ছে। এখানে ইউপি সদস্যের কোনো দোষ নেই।

শরণখোলায় নারী ইউপি সদস্যের সংবাদ সম্মেলন

 শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি 
০২ জুলাই ২০২০, ০১:২৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
শরণখোলায় নারী ইউপি সদস্যের সংবাদ সম্মেলন
ছবি: যুগান্তর

বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলায় সাউথখালী ইউনিয়নের ইউপি সদস্য আরিফুন্নাহার বিউটি সংবাদ সম্মেলন করে তার বিরুদ্ধে ফেয়ার প্রাইজের চাল আত্মসাতের ঘটনা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন। নির্বাচনে পরাজিত প্রতিপক্ষ নাছিমা বেগম তাকে ফাঁসাতে মিথ্যা অভিযোগ করেছেন বলে জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে শরণখোলা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ বক্তব্য তুলে ধরেন।

আরিফুন্নাহার বিউটি লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমার নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বী নাছিমা বেগম পরাজিত হয়ে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা-কাল্পনিক ও বানোয়াট তথ্য দিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগে যেসব সুবিধাভোগীর চাল আত্মসাতের কথা বলা হয়েছে, তারা প্রতি মাসে চাল উত্তোলন করে ভোগ করছেন। যার প্রমাণ হিসেবে ওই সব সুবিধাভোগী লিখিত প্রত্যয়নপত্র দিয়ে স্বীকার করেছেন।

এ ছাড়া ১৮ সুবিধাভোগীর কার্ড হারিয়ে ফেলায় তার পরিবর্তে তাদের জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি জমা দিয়ে চাল উত্তোলন করেছেন। যেখানে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর রয়েছে। কিন্তু আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে মিথ্যা তথ্য দিয়ে সমাজে ও আমার নির্বাচনী এলাকায় হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করা হয়েছে।  

এ ব্যাপারে সাউথখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মোজাম্মেল হোসেন বলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশনা অনুযায়ী– যারা একাধিক সরকারি সহায়তা পায়, তাদের নাম ফেয়ার প্রাইজের তালিকা থেকে বাদ দিয়ে, যাদের কার্ড নেই তাদের নতুন তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে চাল দেয়া হচ্ছে। এখানে ইউপি সদস্যের কোনো দোষ নেই।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন