কুষ্টিয়ায় করোনা সংকটে আর্তমানবতার সেবায় একদল তরুণ

  মো. রেজাউল করিম, ভেড়ামারা (কুষ্টিয়া) থেকে ০২ জুলাই ২০২০, ১৫:৫৬:৫৬ | অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাসের এই সংকটকালীন আর্তমানবতার সেবায় এগিয়ে এসেছে কুষ্টিয়ার একদল তরুণ।

স্থানীয় আলো স্বেচ্ছাসেবী পল্লী উন্নয়ন সংস্থার তত্ত্বাবধানে সংগঠিত জেলার ১০টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের তিন শতাধিক তরুণ-তরুণী নিজেদের এলাকার মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।


এসব স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যরা কখনও নিজেদের অর্থায়নে আবার কখনও স্থানীয় সরকার ও প্রশাসনের সহযোগিতা নিয়ে গরিব দুস্থদের পাশে দাঁড়াচ্ছেন।


খাবার বিতরণ, স্থানীয় বাজার ও জনবহুল স্থানগুলোতে জীবাণুনাশক স্প্রে করা, দোকানের সামনে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে গোল বৃত্ত অঙ্কন, ওয়াশিং পয়েন্ট ও সচেতনতামূলক বার্তাসহ ফেস্টুন স্থাপন, গরিব-দুস্থ পরিবারের মাঝে খাবার ও স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী বিতরণ প্রভৃতি কাজ করছেন তারা।


কুষ্টিয়া পৌরসভার স্বপ্নপ্রয়াস যুব সংগঠনের সভাপতি সাদিক হাসান রোহিদ জানান, কোভিড-১৯ মোকাবেলায় জনসচেতনতা বৃদ্ধি করতে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। যার মধ্যে স্থানীয় বাজার, মসজিদ ও জনাকীর্ণ স্থানগুলোতে নিয়মিত জীবাণুনাশক স্প্রে করা, সচেতনতামূলক বার্তাসহ ফেস্টুন স্থাপন এবং হাত ধোয়ার জন্য ৩টি ওয়াশ বক্স স্থাপন করা হয় এবং করোনা প্রতিরোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে অনলাইনভিত্তিক প্রচার অব্যাহত রয়েছে।


তিনি আরও জানান, করোনা পরিস্থিতিতে ২০টি প্রান্তিক পরিবারের মাঝে খাবার ও স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী বিতরণ, ১৫০ জন পথশিশুর মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ এবং স্বপ্নপ্রয়াস যুব সংগঠনের উদ্যোগে এবং রোটারি ক্লাবের সহযোগিতায় রমজান মাসে প্রতিদিন এক হাজার অসহায় পরিবারে রান্না করা খাবার বিতরণ করা হয়েছে।

করোনাকালীন অসহায় পরিবারে সহযোগিতার পাশাপাশি অভুক্ত অসহায় কুকুরদেরও নিয়মিত খাবার সরবরাহ করা হয়েছে।


কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা পৌরসভার পদ্মা যুব সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান রিদয় জানান, করোনাকালীন ২০টি পরিবারে খাবার ও স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী বিতরণ, ৬০টি পরিবারে রান্না করা খাবার বিতরণ করা হয়েছে।

স্থানীয় বাজার ও জনাকীর্ণ স্থানে সচেতনতামূলক বার্তাসহ ফেস্টুন স্থাপন এবং হাত ধোয়ার জন্য ৩টি ওয়াশ বক্স স্থাপন করা হয়েছে।


মিরপুর পৌরসভার ব্রাইট ইয়ুথ অর্গানাইজেশনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক রাজু জানান, করোনা মোকাবেলায় নিয়মিত জীবাণুনাশক স্প্রে করা, সচেতনতামূলক বার্তাসহ ফেস্টুন স্থাপন এবং হাত ধোয়ার জন্য ছয়টি ওয়াশ বক্স স্থাপন করা হয়। নিজেদের অর্থায়নে ১০০টি পরিবারে সাবান বিতরণ, এলাকার ৫টি মসজিদের ওজুখানায় সাবান ও মসজিদের দরজায় স্যানিটাইজার রাখার ব্যবস্থা করা হয়।

উপজেলার ছাতিয়ান ইউনিয়নের আইডিয়াল ইয়ুথ ইউনিয়নের সহসভাপতি মোসা. সাথী আক্তার জানান, কোভিড-১৯ মোকাবেলায় জীবাণুনাশক স্প্রে করা, দোকানের সামনে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে গোল বৃত্ত অঙ্কন, ওয়াশিং পয়েন্ট ও সচেতনতামূলক বার্তাসহ ফেস্টুন স্থাপন, আইডিয়াল ইয়ুথ ইউনিয়নের সহযোগিতায় ১২০টি পরিবারে খাবার ও স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী, আইডিয়াল ইয়ুথ ইউনিয়নের বাস্তবায়নে ও নূরুল ইসলাম ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সহযোগিতায় ৩০টি পরিবারে এবং স্থানীয় বৃত্তবান স্থানীয় বৃত্তবানদের সহযোগিতায় ৫০টি পরিবারে খাবার ও স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

স্থানীয় আলো স্বেচ্ছাসেবী পল্লী উন্নয়ন সংস্থার প্রকল্প সমন্বয়কারী মো. মাহফুজুর রহমান বলেন, আমরা বিশ্বাস করি তরুণদের সক্রিয় ও স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে গৃহীত পদক্ষেপসমূহ জনসাধারণের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির মাধ্যমে সম্মিলিতভাবে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কার্যকর ভূমিকা রাখবে।

আলো স্বেচ্ছাসেবী পল্লী উন্নয়ন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক ফিরোজ আহাম্মেদ বলেন, দেশের সংকটময় মুহূর্তে তরুণরা যেভাবে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে, তা অত্যন্ত আশাব্যঞ্জক এবং সময়োপযোগী। আশা করি তরুণরা দেশের উন্নয়নে তাদের এ ধরনের সমাজসেবামূলক কর্মকাণ্ড অব্যাহত রাখবে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত