রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা
jugantor
রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা

  পাবনা প্রতিনিধি  

০২ জুলাই ২০২০, ২২:৫০:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

পাবনায় একটি প্রতারকচক্র রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে চাকরি দেয়ার নাম করে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ প্রতারকচক্রের খপ্পরে পড়ে পাবনা শহরের মো. রাজু হোসেন বিশাল নামক এক যুবক ও তার পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিশাল পৌর মহল্লার মো. আবদুর রাজ্জাকের ছেলে।

ভুক্তভোগী বিশাল জানান, গত ১ জুলাই তার মোবাইলে একটি কল আসে এবং তার নাম ধরে এক ব্যক্তি বলে, আমি পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে চাকরি করি। আমাদের এখানে ২ জন লোক নিয়োগ করা হবে। এ সময় প্রতারক মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে একটি মেইল অ্যাকাউন্ট দেয় সিভি পাঠানোর জন্য।

বিশাল চাকরির লোভে নিজের এবং তার ছোট ভাইয়ের সিভি পাঠায়। এরপর অন্য নম্বর থেকে ফোন করে ২ হাজার ৬০০ টাকা দিতে বলে। ভুক্তভোগী বিশাল রাজি হয়ে প্রতারকদের দেয়া পার্সোনাল নাম্বারে বিকাশ করে দেয় টাকা। বৃহস্পতিবার ফের অন্য আরেকটি নাম্বার থেকে ফোন করে মেডিকেল করার জন্য ৬ হাজার ৩৪০ টাকা বিকাশ করে নেয় প্রতারক চক্রটি।

এরপর ভুক্তভোগীদের পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে দেখা করতে বলে প্রতারক চক্র। কিন্তু এরপর থেকে প্রতারকদের ব্যবহৃত সবগুলো নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়।

ভুক্তভোগীরা জানান, বেকারত্বের সুযোগ নিয়ে করোনাকালীন দুর্যোগময় মুহূর্তে যে ক্ষতি করেছে তা দুঃখজনক। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে তদন্ত করে এর ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান ক্ষতিগ্রস্ত যুবক ও তার পরিবার। এ ঘটনায় পাবনা সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা

 পাবনা প্রতিনিধি 
০২ জুলাই ২০২০, ১০:৫০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পাবনায় একটি প্রতারকচক্র রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে চাকরি দেয়ার নাম করে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ প্রতারকচক্রের খপ্পরে পড়ে পাবনা শহরের মো. রাজু হোসেন বিশাল নামক এক যুবক ও তার পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিশাল পৌর মহল্লার মো. আবদুর রাজ্জাকের ছেলে।

ভুক্তভোগী বিশাল জানান, গত ১ জুলাই তার মোবাইলে একটি কল আসে এবং তার নাম ধরে এক ব্যক্তি বলে, আমি পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে চাকরি করি। আমাদের এখানে ২ জন লোক নিয়োগ করা হবে। এ সময় প্রতারক মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে একটি মেইল অ্যাকাউন্ট দেয় সিভি পাঠানোর জন্য।

বিশাল চাকরির লোভে নিজের এবং তার ছোট ভাইয়ের সিভি পাঠায়। এরপর অন্য নম্বর থেকে ফোন করে ২ হাজার ৬০০ টাকা দিতে বলে। ভুক্তভোগী বিশাল রাজি হয়ে প্রতারকদের দেয়া পার্সোনাল নাম্বারে বিকাশ করে দেয় টাকা। বৃহস্পতিবার ফের অন্য আরেকটি নাম্বার থেকে ফোন করে মেডিকেল করার জন্য ৬ হাজার ৩৪০ টাকা বিকাশ করে নেয় প্রতারক চক্রটি।

এরপর ভুক্তভোগীদের পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে দেখা করতে বলে প্রতারক চক্র। কিন্তু এরপর থেকে প্রতারকদের ব্যবহৃত সবগুলো নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়।

ভুক্তভোগীরা জানান, বেকারত্বের সুযোগ নিয়ে করোনাকালীন দুর্যোগময় মুহূর্তে যে ক্ষতি করেছে তা দুঃখজনক। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে তদন্ত করে এর ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান ক্ষতিগ্রস্ত যুবক ও তার পরিবার। এ ঘটনায় পাবনা সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।