৪ মাসেও সন্ধান মেলেনি মাদ্রাসাছাত্র ইয়াসিনের

  অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি ০৩ জুলাই ২০২০, ১৫:৫৩:৫১ | অনলাইন সংস্করণ

নিখোঁজ মাদ্রাসাছাত্র ইয়াসিন মল্লিক। ছবি-যুগান্তর

তিন মাস ২২ দিন পার হলেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ মাদ্রাসাছাত্র ইয়াসিন মল্লিকের (১১)। সে যশোরের অভয়নগর উপজেলার শ্রীধরপুর ইউনিয়নের কোদলা হাফেজিয়া মাদ্রাসার হেফজ বিভাগের ছাত্র ছিল।

নিখোঁজ ইয়াসিন মল্লিক নড়াইল জেলার আগদিয়া গ্রামের দিনমজুর এহিয়া মল্লিকের ছেলে।

এহিয়া মল্লিক যুগান্তরকে জানান, গত ১৫ মার্চ বিকালে মাদ্রাসার শিক্ষক রফিকুল ইসলামের মাধ্যমে জানতে পারেন তার ছেলেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। ওই দিন রাতে ‘০১৯৮৩-৪৬৩৬২৪’ নম্বর মোবাইল থেকে ফোন করে ছেলের মুক্তিপণ হিসেবে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন এক ব্যক্তি। টাকা না দিলে ছেলেকে হত্যা করার হুমকি দেয়া হয়। পর দিন ১৬ মার্চ ছেলে নিখোঁজ ও চাঁদার বিষয় নিয়ে অভয়নগর থানায় জিডি করেন তিনি, যার নং-৬৬৭।

এর পর গত ২২ মার্চ নড়াইল সদর থানায় একটি জিডি করা হয়, যার নং-১০১৪। নড়াইল সদর থানায় জিডি করার এক সপ্তাহ পর পৃথক তিনটি মোবাইল নম্বর (০১৯৮৩-৪৬৩৬২৪, ০১৫৭১-১২৭৪২৬, ০১৮১৪-৬০৮৮৫৯) থেকে ফোন করে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি দেয়া হয়।

যে কারণে হতদরিদ্র দিনমজুর এহিয়া মল্লিক ছেলে উদ্ধারে অভয়নগর থানায় গত ২ মে ফের আরও একটি জিডি করেন, যার নং-৫৭।

সম্প্রতি খুলনা র‌্যাব ৬-এর অধিনায়ক বরাবর সব জিডির ফটোকপিসহ একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন বলে এহিয়া মল্লিক জানান। তিনি প্রশাসনসহ সাংবাদিকদের মাধ্যমে তার নিখোঁজ শিশুসন্তান ইয়াসিনকে ফিরে পেতে সবার সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এ ব্যাপারে অভয়নগর থানার ওসি মো. তাজুল ইসলাম যুগান্তরকে জানান, বিষয়টি নিয়ে জোর তদন্ত শুরু হয়েছে। এখনও পর্যন্ত কোনোন ক্লু পাওয়া যায়নি।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত