সুপারি গাছ কাটতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ২ ভাইয়ের মৃত্যু
jugantor
সুপারি গাছ কাটতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ২ ভাইয়ের মৃত্যু

  কিশোরগঞ্জ ব্যুরো ও পাকুন্দিয়া প্রতিনিধি  

০৩ জুলাই ২০২০, ১৭:৩৫:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলায় সুপারি গাছ কাটতে গিয়ে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে স্পৃষ্ট হয়ে মোহন মিয়া (২০) ও জীবন মিয়া (২৭) নামে দুই চাচাত ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে। 

এ সময় মোহনের বাবা মো. ইসমাইল গুরুতর আহত হন। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার পাটুয়াভাঙা ইউনিয়নের মাছিমপুর এলাকায় এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, বাড়ির পাশে একটি সুপারি গাছ কাটতে যায় মো. ইসমাইল ও তার ছেলে মোহন। এ সময় কাটা সুপারি গাছটি বিদ্যুতের তারে পড়ে যায়। তারের ওপর থেকে ওই সুপারি গাছ সরাতে গিয়ে তারা বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। 

এ ঘটনা দেখে মোহনের চাচাত ভাই শিপলু মিয়ার ছেলে জীবন মিয়া তাদের উদ্ধার করতে গিয়ে তিনিও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। 

স্বজনরা তাদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য পাকুন্দিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মোহন ও জীবনকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ছাড়া মোহনের বাবা ইসমাইলকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করেন।

পাকুন্দিয়া উপজেলার আহুতিয়া তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক মো. শফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
 

সুপারি গাছ কাটতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ২ ভাইয়ের মৃত্যু

 কিশোরগঞ্জ ব্যুরো ও পাকুন্দিয়া প্রতিনিধি 
০৩ জুলাই ২০২০, ০৫:৩৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলায় সুপারি গাছ কাটতে গিয়ে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে স্পৃষ্ট হয়ে মোহন মিয়া (২০) ও জীবন মিয়া (২৭) নামে দুই চাচাত ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে।

এ সময় মোহনের বাবা মো. ইসমাইল গুরুতর আহত হন। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার পাটুয়াভাঙা ইউনিয়নের মাছিমপুর এলাকায় এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, বাড়ির পাশে একটি সুপারি গাছ কাটতে যায় মো. ইসমাইল ও তার ছেলে মোহন। এ সময় কাটা সুপারি গাছটি বিদ্যুতের তারে পড়ে যায়। তারের ওপর থেকে ওই সুপারি গাছ সরাতে গিয়ে তারা বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন।

এ ঘটনা দেখে মোহনের চাচাত ভাই শিপলু মিয়ার ছেলে জীবন মিয়া তাদের উদ্ধার করতে গিয়ে তিনিও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন।

স্বজনরা তাদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য পাকুন্দিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মোহন ও জীবনকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ছাড়া মোহনের বাবা ইসমাইলকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করেন।

পাকুন্দিয়া উপজেলার আহুতিয়া তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক মো. শফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

 
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন