মহেশখালীতে চোরাকারবারীর গুলিতে বনকর্মী আহত
jugantor
মহেশখালীতে চোরাকারবারীর গুলিতে বনকর্মী আহত

  মহেশখালী (কক্সবাজার) প্রতিনিধি  

০৩ জুলাই ২০২০, ২৩:৫২:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

কক্সবাজারের মহেশখালীতে চোরাই গাছ উদ্ধার করতে গিয়ে শাপলাপুর বিটে কর্মরত মো. মমতাজ মিয়া নামের একজন বনকর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে মৌলভীকাটায় এ ঘটনা ঘটে।

বনবিভাগ সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শাপলাপুর বিটের মৌলভীকাটায় চোরি হওয়া পাহাড়ি গর্জন গাছ উদ্ধার করতে যায় বনকর্মীরা। অভিযানে গাছ চোরাকারবারীর সঙ্গে জড়িতরা বনকর্মীদের ওপর গুলি চালায়। এতে গুলিবিদ্ধ হন বনকর্মী মমতাজ আহমদ (৪০)। তাকে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়। তার পা থেকে দুটি বুলেট বের করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেই চিকিৎসাধীন আছেন।

এই অভিযানের পর দ্বিতীয় দফায় উপজেলা রেঞ্জ অফিসার সুলতানুল আলম চৌধুরী নিজেই বেশ কয়েকজন বনকর্মী সঙ্গে নিয়ে অভিযান চালিয়ে ৮ খণ্ড গর্জন গাছ উদ্ধার করেন।

এ বিষয়ে রেঞ্জ অফিসার সুলতানুল আলম চৌধুরী জানান, ‘চোরাকারবারীরা সরকারি বাগান থেকে গাছ কেটে নিয়ে যাওয়ার সংবাদে বন বিভাগের কর্মীরা অভিযান চালান। এ সময় দুই পক্ষে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এতে এক বনকর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। টুকরো গর্জন গাছ উদ্ধার করেছি। বাকি গাছগুলো উদ্ধারে আমাদের অভিযান চলমান রয়েছে। বনদস‍্যুরা যতই শক্তিশালী হোক না কেন, পাহাড়ি গাছ কাটা এবং গোলাগুলিতে জড়িতদের কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। তাদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।’

মহেশখালী থানার ওসি দিদারুল ফেরদৌস জানান, খবর পেয়ে পুলিশের একটি ইউনিট ওই এলাকায় অভিযান চালিয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত থাকবে। এ বিষয়ে রাত পর্যন্ত বন বিভাগের পক্ষ থেকে থানায় কোনো অভিযোগ করা হয়নি এবং পাহাড়ে অভিযানে যাওয়ার সময় পুলিশের কোনো সহযোগিতা নেয়নি।

মহেশখালীতে চোরাকারবারীর গুলিতে বনকর্মী আহত

 মহেশখালী (কক্সবাজার) প্রতিনিধি 
০৩ জুলাই ২০২০, ১১:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কক্সবাজারের মহেশখালীতে চোরাই গাছ উদ্ধার করতে গিয়ে শাপলাপুর বিটে কর্মরত মো. মমতাজ মিয়া নামের একজন বনকর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে মৌলভীকাটায় এ ঘটনা ঘটে।

বনবিভাগ সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শাপলাপুর বিটের মৌলভীকাটায় চোরি হওয়া পাহাড়ি গর্জন গাছ উদ্ধার করতে যায় বনকর্মীরা। অভিযানে গাছ চোরাকারবারীর সঙ্গে জড়িতরা বনকর্মীদের ওপর গুলি চালায়। এতে গুলিবিদ্ধ হন বনকর্মী মমতাজ আহমদ (৪০)। তাকে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়। তার পা থেকে দুটি বুলেট বের করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেই চিকিৎসাধীন আছেন।

এই অভিযানের পর দ্বিতীয় দফায় উপজেলা রেঞ্জ অফিসার সুলতানুল আলম চৌধুরী নিজেই বেশ কয়েকজন বনকর্মী সঙ্গে নিয়ে অভিযান চালিয়ে ৮ খণ্ড গর্জন গাছ উদ্ধার করেন।

এ বিষয়ে রেঞ্জ অফিসার সুলতানুল আলম চৌধুরী জানান, ‘চোরাকারবারীরা সরকারি বাগান থেকে গাছ কেটে নিয়ে যাওয়ার সংবাদে বন বিভাগের কর্মীরা অভিযান চালান। এ সময় দুই পক্ষে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এতে এক বনকর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। টুকরো গর্জন গাছ উদ্ধার করেছি। বাকি গাছগুলো উদ্ধারে আমাদের অভিযান চলমান রয়েছে। বনদস‍্যুরা যতই শক্তিশালী হোক না কেন, পাহাড়ি গাছ কাটা এবং গোলাগুলিতে জড়িতদের কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। তাদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।’

মহেশখালী থানার ওসি দিদারুল ফেরদৌস জানান, খবর পেয়ে পুলিশের একটি ইউনিট ওই এলাকায় অভিযান চালিয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত থাকবে। এ বিষয়ে রাত পর্যন্ত বন বিভাগের পক্ষ থেকে থানায় কোনো অভিযোগ করা হয়নি এবং পাহাড়ে অভিযানে যাওয়ার সময় পুলিশের কোনো সহযোগিতা নেয়নি।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন