পুলিশ বা দলীয় লোকের চাঁদাবাজি সহ্য করা হবে না: নাটোরের এসপি 

  বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি  ০৪ জুলাই ২০২০, ২১:৩৪:২৮ | অনলাইন সংস্করণ

কোরবানির হাটসহ পশুবাহী যানবাহনে দলীয় লোকজন বা পুলিশের কোনো সদস্য চাঁদাবাজি করলে তাদের বিরুদ্ধেও আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা।

শনিবার দুপুরে বড়াইগ্রামের বনপাড়া পৌরসভার কালিকাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে জেলার সব পশুহাটের ইজারাদার, গরুর খামারী ও ব্যবসায়ীদের নিয়ে হাটের নিরাপত্তা ও পরিবহনে চাঁদাবাজি বন্ধে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় তিনি এ হুঁশিয়রি দেন।

সভায় বড়াইগ্রাম থানার ওসি দিলীপ কুমার দাসের সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বনপাড়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক কেএম জাকির হোসেন, উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর আসাদুজ্জামান, হাট ইজারাদার মোস্তারুল ইসলাম আলম, ওয়াজেদ আলী সোনার, আব্দুল খালেক ও আনিসুর রহমান, গরুর খামারী রেকাত আলী ও শরীফুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন। ইজারাদার ও খামারীরা তাদের বক্তৃতায় পশু বাজারজাতকরণ ও হাট পরিচালনায় নানা সমস্যার কথা তুলে ধরেন।

এ সময় পুলিশ সুপার বলেন, দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখতেই করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও পশুর হাট বসাতে হচ্ছে। তবে জেলার কোথাও ইজারাবিহীন সাময়িক কোনো পশুর হাট বসতে দেয়া হবে না। হাটে বা পশু বহনের কাজে নিয়োজিত পরিবহনে কোনো প্রকার চাঁদাবাজি চলবে না। জাল টাকা প্রতিরোধে হাটে পুলিশের পক্ষ থেকে মেশিন বসানোসহ সাদা পোশাকের পুলিশ নিয়োজিত থাকবে।

তিনি আরও বলেন, পশুর হাটে সামাজিক দূরত্ব রক্ষা করাসহ মাক্সবিহীন কাউকে ঢুকতে দেয়া যাবে না। হাটে ক্রেতা-বিক্রেতাদের প্রবেশ ও বের হওয়ার জন্য পৃথক রাস্তার ব্যবস্থা করতে হবে।

উল্লেখ্য, পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে জেলার বিভিন্ন স্থানে এবার কমপক্ষে ২৮টি পশুর হাট বসবে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত