সংবাদ সম্মেলনে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন নিহত অন্তরের বাবা-মা
jugantor
সংবাদ সম্মেলনে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন নিহত অন্তরের বাবা-মা

  পাবনা প্রতিনিধি  

০৬ জুলাই ২০২০, ২২:৫৪:১৬  |  অনলাইন সংস্করণ

পাবনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র অন্তর হত্যা মামলার আসামিদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবি জানিয়েছেন নিহত অন্তরের বাবা-মা এবং স্বজনরা। সোমবার বিকালে পাবনা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে তারা এই দাবি জানান। এ সময় কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন নিহত অন্তরের বাবা-মা।

নিহত অন্তর (২২) পাবনার আতাইকুলা থানার গাঙ্গহাটি মোল্লা পাড়া গ্রামের মো. জালাল হোসেনের ছেলে এবং ঢাকার সোনারগাঁ ইউনিভার্সিটির তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ১ জুন অন্তরকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। ওইদিনই নিহত অন্তরের মা মোছা. মনজিলা খাতুন বাদী হয়ে আতাইকুলা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় ১০ জনকে আসামি করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে ছেলে হত্যার বর্ণনা দিতে গিয়ে লিখিত বক্তব্যে অন্তরের মা বলেন, আসামিরা এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী এবং প্রভাবশালী।

তিনি আরও বলেন, আমরা আওয়ামী লীগের সমর্থক হলেও যারা আমার ছেলেকে খুন করেছে তারা রাজাকার মতিউর রহমান নিজামীর লোক। অথচ তাদের ভয়ে এলাকায় নিরীহ সাধারণ জনগণ কোনো প্রতিবাদ করার সাহস পায় না। এখন তারা উল্টো মামলা তুলে নেয়ার জন্য আমাদেরকে ভয়-ভীতি ও প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে।

মনজিলা খাতুন বলেন, অন্তর হত্যার মামলার দুই প্রধান আসামি বাচ্চু, ও সামছুল হক বাট্টুসহ অন্যরা পুলিশের সামনে দিয়ে বীরদর্পে ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

সংবাদ সম্মেলনে নিহত অন্তরের বাবা মো. জালাল হোসেন ও ছোট ভাইসহ অন্যান্য স্বজন উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন নিহত অন্তরের বাবা-মা

 পাবনা প্রতিনিধি 
০৬ জুলাই ২০২০, ১০:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পাবনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র অন্তর হত্যা মামলার আসামিদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবি জানিয়েছেন নিহত অন্তরের বাবা-মা এবং স্বজনরা। সোমবার বিকালে পাবনা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে তারা এই দাবি জানান। এ সময় কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন নিহত অন্তরের বাবা-মা।

নিহত অন্তর (২২) পাবনার আতাইকুলা থানার গাঙ্গহাটি মোল্লা পাড়া গ্রামের মো. জালাল হোসেনের ছেলে এবং ঢাকার সোনারগাঁ ইউনিভার্সিটির তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ১ জুন অন্তরকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। ওইদিনই নিহত অন্তরের মা মোছা. মনজিলা খাতুন বাদী হয়ে আতাইকুলা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় ১০ জনকে আসামি করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে ছেলে হত্যার বর্ণনা দিতে গিয়ে লিখিত বক্তব্যে অন্তরের মা বলেন, আসামিরা এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী এবং প্রভাবশালী।

তিনি আরও বলেন, আমরা আওয়ামী লীগের সমর্থক হলেও যারা আমার ছেলেকে খুন করেছে তারা রাজাকার মতিউর রহমান নিজামীর লোক। অথচ তাদের ভয়ে এলাকায় নিরীহ সাধারণ জনগণ কোনো প্রতিবাদ করার সাহস পায় না। এখন তারা উল্টো মামলা তুলে নেয়ার জন্য আমাদেরকে ভয়-ভীতি ও প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে।

মনজিলা খাতুন বলেন, অন্তর হত্যার মামলার দুই প্রধান আসামি বাচ্চু, ও সামছুল হক বাট্টুসহ অন্যরা পুলিশের সামনে দিয়ে বীরদর্পে ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

সংবাদ সম্মেলনে নিহত অন্তরের বাবা মো. জালাল হোসেন ও ছোট ভাইসহ অন্যান্য স্বজন উপস্থিত ছিলেন।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন