আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পরিচয়ে ২ পাটকল শ্রমিক নেতাকে তুলে নেয়ার অভিযোগ

  খুলনা ব্যুরো ০৬ জুলাই ২০২০, ২৩:১১:৩৪ | অনলাইন সংস্করণ

খুলনায় সদ্য বন্ধকৃত রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের দুইজন শ্রমিক নেতাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার রাতে ওই দুইজনকে বাড়ি থেকে তুলে নেয়া হয়।

দুই শ্রমিক নেতা হলেন, সদ্য বন্ধ ঘোষিত স্টার জুট মিলের শ্রমিক ও পাটশিল্প রক্ষা যুব জোটের আহবায়ক অলিয়ার রহমান এবং প্লাটিনাম জুবিলি জুট মিলের শ্রমিক ও পাট শিল্প রক্ষা যুব জোটের উপদেষ্টা নূর ইসলাম।

অলিয়ার রহমানের ছেলে নাইম শেখ বলেন, রোববার দিনগত রাত আড়াইটার দিকে নগরীর খানজাহান আলী থানার মশিয়ালী গ্রামে তাদের বাড়িতে কয়েকজন লোক এসে প্রশাসনের লোক পরিচয় দিয়ে ঘরের দরজা খুলতে বলে। তাদের হাতে ওয়ারলেস ও রাইফেল ছিল। আমরা দরজা খুললে তারা বলে আব্বাকে নিয়ে মিলে যাবে। আমরা কিছু বুঝে ওঠার আগেই বাবাকে নিয়ে গাড়িতে করে নিয়ে চলে যায়। আমরা থানায় গেলে ওসি (খানজাহান আলী থানার ওসি) বলেন, রাতে আমাদের কোনো অভিযান হয়নি। আমরা কিছুই জানি না।

অপরদিকে নূর ইসলামের ছেলে মো. জুয়েল বলেন, রাত সাড়ে ৩টার দিকে কিছু লোক আসে খালিশপুরের বাসায়। এ সময় তারা বলতে থাকে এই দরজা খুলুন আগুন লেগেছে। তখন আমরা তাদের বলি আপনারা কারা, তারা বলেন আমরা ফায়ার সার্ভিসের লোক। তারপর চোখের পলকে বাবাকে নিয়ে চলে যায়। আমরা অনেকভাবে তাদের পরিচয় জানার চেষ্টা করি। কিন্তু তারা কোনো পরিচয় দেয়নি।

বাংলাদেশ রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ-ননসিবিএ সংগ্রাম পরিষদের যুগ্ম আহবায়ক মুরাদ হোসেন বলেন, আমি ফেসবুকে দেখেছি তারা রোববার খালিশপুরে গোপনে মিটিং করেছে মিলের বদলি শ্রমিক ও বাম দলদের সঙ্গে। মিল বন্ধ নিয়ে যখন সারা দেশের শ্রমিকরা শান্ত তখন তাদের এই মিটিং করার কী দরকার। তবে কারা ধরে নিয়ে গেছে, কি কারণে ধরে নিয়ে গেছে তা আমি জানি না।

গণসংগতি আন্দোলন খুলনা জেলা শাখার আহ্বায়ক মুনীর চৌধুরী সোহেল বলেন, সরকার পাটকল বন্ধের যে চক্রান্ত করছে তার বিরুদ্ধে শ্রমিকদের মধ্যে থেকে শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন সংগঠিত করার চেষ্টা চলছে। এই আন্দোলন যাতে সংগঠিত না হতে পারে তার জন্য রাজনৈতিক চক্রান্তের অংশ হিসাবে প্রশাসন দিয়ে তাদের ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তারা কোথায় আছে, কেমন আছে তা আমরা এখনও জানতে পারিনি। অবিলম্বের তাদের মুক্তির দাবি করছি।

এদিকে বাম দলের কেন্দ্রীয় নেতা জুনায়েদ সাকী তার ফেসবুকে এ সংক্রান্ত বিষয়ে এক পোস্টে উল্লেখ করেন, রোববার রাতে সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর লোকেরা তুলে নিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত খুলনার খালিশপুর থানা কিংবা খানজাহান আলী থানা কেউ স্বীকার করেনি শ্রমিক নেতা নুরুল ইসলাম ও ওলিয়ার রহমানের গ্রেফতারের কথা। প্লাটিনাম জুট মিল ও ইস্টার্ন জুট মিলের এই ২ শ্রমিক নেতাসহ সাদা পোশাকে তুলে নিয়ে যাওয়া সবাইকে অবিলম্বে ফেরত দিতে হবে।

খানজাহান আলী থানার ওসি মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা কোনো শ্রমিক নেতাকে আটক করিনি।

তবে সোমবার রাত ৮টার পর খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের এডিসি (সদর) কানাই লাল সরকার যুগান্তরকে জানান, তাদের দুজনকে আটক করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত