‘আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে’
jugantor
‘আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে’

  পটুয়াখালী ও দক্ষিণ প্রতিনিধি  

০৮ জুলাই ২০২০, ১৮:২১:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা তথ্য তুলে ধরে পটুয়াখালী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হাসান শিকদারের বিরুদ্ধে একটি মহল ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে পটুয়াখালী প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে হাসান শিকদার এ অভিযোগ করেন।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আল-আমিন শিকদার, হৃদয় আশীষ, নেছার উদ্দিন খান, শাকিল খান, সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি আবুল বশার আরজু, সদর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জাহিদুল ইসলাম, জেলা ছাত্রলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক আবু বকর সিদ্দিক ও ইমন খান, জেলা ছাত্রলীগ যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সাগর, গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে ছাত্রলীগ সভাপতি হাসান শিকদার জানান-পারিবারিক দ্বন্দ্বের জেরে তার চাচাতো ভাই মাহামুদ সিকদার ও আরেক চাচাতো ভাই ও ভগ্নীপতি বাকী বিল্লাহ ও তার স্ত্রী তাজনুর বেগম দীর্ঘদিন ধরে হামলা-মামলার মাধ্যমে তার পরিবারকে হয়রানি করে আসছে। বিগত দিনে আদালতে দায়ের করা একাধিক মামলা বিচারে নিষ্পত্তি হলেও প্রতিপক্ষরা নানাভাবে ষড়যন্ত্র, অপপ্রচার ও হয়রানি করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি ছাত্রলীগ নেতা হাসানকে জড়িয়ে- মারধোর, সম্পত্তি আত্মসাৎসহ চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করে। এ ছাড়া হাসানের ব্যবসায়িক অংশীদার মো. শামীম খানের যোগসাজশে তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালায় এবং ব্যবসায় প্রতারণা করে।

হাসান আরও জানান, ব্যবসায় আর্থিক পাওনা চাইতে গেলে শামীম নানা মহলের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। এ ছাড়াও গত ৭ জুন রাতে বিসিক শিল্প নগরী সংলগ্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে বাসায় ফেরার সময় হাসানের ছোট ভাই এনামুল শিকদারকে ব্যাপক মারধোর করে উল্লেখিত অভিযুক্তরা। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে বিষয়টি সুরাহা হলেও থেমে থাকেনি প্রতিপক্ষরা।

সর্বশেষ গত ২ জুলাই দুপুরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে হাসানের বড় ভাই আবদুর রব সিকদার ও ম্যানেজার সজিব হাওলাদারকে মারধর করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের টাকা-পয়সা লুট করে তালা লাগিয়ে দেয়। বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে পটুয়াখালী সদর থানার ওসি আখতার মোর্শেদ বলেন, ছাত্রলীগ নেতা হাসানকে জড়িয়ে পারিবারিক দ্বন্দ্ব এবং ব্যবসায়িক ঝামেলা রয়েছে। উভয়পক্ষের অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাদের নিয়ে বসা হয়েছে, কিন্তু নিষ্পত্তি হয়নি, তবে চেষ্টা চলছে। এ ছাড়াও স্থানীয় রাজনৈতিক ব্যক্তিদের মাধ্যমে বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য বলা হয়েছে।

‘আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে’

 পটুয়াখালী ও দক্ষিণ প্রতিনিধি 
০৮ জুলাই ২০২০, ০৬:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা তথ্য তুলে ধরে পটুয়াখালী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হাসান শিকদারের বিরুদ্ধে একটি মহল ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে পটুয়াখালী প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে হাসান শিকদার এ অভিযোগ করেন।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আল-আমিন শিকদার, হৃদয় আশীষ, নেছার উদ্দিন খান, শাকিল খান, সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি আবুল বশার আরজু, সদর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জাহিদুল ইসলাম, জেলা ছাত্রলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক আবু বকর সিদ্দিক ও ইমন খান, জেলা ছাত্রলীগ যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সাগর, গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম প্রমুখ। 

সংবাদ সম্মেলনে ছাত্রলীগ সভাপতি হাসান শিকদার জানান-পারিবারিক দ্বন্দ্বের জেরে তার চাচাতো ভাই মাহামুদ সিকদার ও আরেক চাচাতো ভাই ও ভগ্নীপতি বাকী বিল্লাহ ও তার স্ত্রী তাজনুর বেগম দীর্ঘদিন ধরে হামলা-মামলার মাধ্যমে তার পরিবারকে হয়রানি করে আসছে। বিগত দিনে আদালতে দায়ের করা একাধিক মামলা বিচারে নিষ্পত্তি হলেও প্রতিপক্ষরা নানাভাবে ষড়যন্ত্র, অপপ্রচার ও হয়রানি করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি ছাত্রলীগ নেতা হাসানকে জড়িয়ে- মারধোর, সম্পত্তি আত্মসাৎসহ চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করে। এ ছাড়া হাসানের ব্যবসায়িক অংশীদার মো. শামীম খানের যোগসাজশে তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালায় এবং ব্যবসায় প্রতারণা করে।

হাসান আরও জানান, ব্যবসায় আর্থিক পাওনা চাইতে গেলে শামীম নানা মহলের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। এ ছাড়াও গত ৭ জুন রাতে বিসিক শিল্প নগরী সংলগ্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে বাসায় ফেরার সময় হাসানের ছোট ভাই এনামুল শিকদারকে ব্যাপক মারধোর করে উল্লেখিত অভিযুক্তরা। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে বিষয়টি সুরাহা হলেও থেমে থাকেনি প্রতিপক্ষরা।

সর্বশেষ গত ২ জুলাই দুপুরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে হাসানের বড় ভাই আবদুর রব সিকদার ও ম্যানেজার সজিব হাওলাদারকে মারধর করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের টাকা-পয়সা লুট করে তালা লাগিয়ে দেয়। বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে। 

এ প্রসঙ্গে পটুয়াখালী সদর থানার ওসি আখতার মোর্শেদ বলেন, ছাত্রলীগ নেতা হাসানকে জড়িয়ে পারিবারিক দ্বন্দ্ব এবং ব্যবসায়িক ঝামেলা রয়েছে। উভয়পক্ষের অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাদের নিয়ে বসা হয়েছে, কিন্তু নিষ্পত্তি হয়নি, তবে চেষ্টা চলছে। এ ছাড়াও  স্থানীয় রাজনৈতিক ব্যক্তিদের মাধ্যমে বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য বলা হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন