স্বামীকে গলা কেটে হত্যার পর কাজে গেল স্ত্রী
jugantor
স্বামীকে গলা কেটে হত্যার পর কাজে গেল স্ত্রী

  গাজীপুর প্রতিনিধি  

০৮ জুলাই ২০২০, ১৮:৫০:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুর মহানগরের টঙ্গীতে পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীর হাতে খুন হয়েছেন স্বামী সাইফুল ইসলাম (৬০)। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বিউটি আক্তারকে (৫০) আটক করা হয়েছে এবং ঘটনাস্থল থেকে একটি রক্তমাখা ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে।

সাইফুল ইসলাম রংপুর জেলার গঙ্গারচর থানার চাঁনবাগ গ্রামের সামসুল ইসলামের ছেলে। বুধবার সকালে টঙ্গীর হিমারদীঘি এলাকায় এ হত্যার ঘটনা ঘটেছে। টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজ উদ্দীন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহতের ছেলে আরিফ বলেন, মা-বাবার মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া-বিবাদ হতো। বুধবার সকালে আবার ঝগড়া করে কাজে যাওয়ার আগে বাবাকে ছুরি দিয়ে গলা কেটে ঘরে তালা বদ্ধ করে চলে যায়।

নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে মেট্রোপলিটন টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি মো. আমিনুল ইসলাম জানান, নিহত সাইফুল ইসলাম ও তার স্ত্রী বিউটি আক্তারের মধ্যে পারিবারিক কলহ ছিল। ঘটনার দিন সকালে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে স্ত্রী বিউটি ক্ষিপ্ত হয়ে স্বামীর গলায় ছুরি চালিয়ে হত্যার পর সে কাজে চলে যায়।

পরে বেলা ১০টায় কারখানা থেকে ছুটি নিয়ে বাসায় ফিরে আসেন। পরে পাশের ভাড়াটিয়ারা বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে।

স্বামীকে গলা কেটে হত্যার পর কাজে গেল স্ত্রী

 গাজীপুর প্রতিনিধি 
০৮ জুলাই ২০২০, ০৬:৫০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুর মহানগরের টঙ্গীতে পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীর হাতে খুন হয়েছেন স্বামী সাইফুল ইসলাম (৬০)। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বিউটি আক্তারকে (৫০) আটক করা হয়েছে এবং ঘটনাস্থল থেকে একটি রক্তমাখা ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে।

সাইফুল ইসলাম রংপুর জেলার গঙ্গারচর থানার চাঁনবাগ গ্রামের সামসুল ইসলামের ছেলে। বুধবার সকালে টঙ্গীর হিমারদীঘি এলাকায় এ হত্যার ঘটনা ঘটেছে। টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজ উদ্দীন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহতের ছেলে আরিফ বলেন, মা-বাবার মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া-বিবাদ হতো। বুধবার সকালে আবার ঝগড়া করে কাজে যাওয়ার আগে বাবাকে ছুরি দিয়ে গলা কেটে ঘরে তালা বদ্ধ করে চলে যায়।

নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে মেট্রোপলিটন টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি মো. আমিনুল ইসলাম জানান, নিহত সাইফুল ইসলাম ও তার স্ত্রী বিউটি আক্তারের মধ্যে পারিবারিক কলহ ছিল। ঘটনার দিন সকালে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে স্ত্রী বিউটি ক্ষিপ্ত হয়ে স্বামীর গলায় ছুরি চালিয়ে হত্যার পর সে কাজে চলে যায়। 

পরে বেলা ১০টায় কারখানা থেকে ছুটি নিয়ে বাসায় ফিরে আসেন। পরে পাশের ভাড়াটিয়ারা বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন