পদ্মায় নৌকাডুবির একদিন পর মিলল ২ কৃষকের লাশ, নিখোঁজ ২
jugantor
পদ্মায় নৌকাডুবির একদিন পর মিলল ২ কৃষকের লাশ, নিখোঁজ ২

  পাবনা প্রতিনিধি  

০৮ জুলাই ২০২০, ১৯:৪৩:১৯  |  অনলাইন সংস্করণ

পাবনা সদর উপজেলার পদ্মা নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ ৪ কৃষকের মধ্যে ২ জনের লাশ উদ্ধার করেছে ডুবুরিরা। নৌকাডুবির একদিন পর বুধবার তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়। এখনও দুইজন নিখোঁজ রয়েছেন।

যাদের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে তারা হলেন কুষ্টিয়া জেলার ভেড়ামারা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামের আবদুল জলিলের ছেলে শরিফুল ইসলাম (৩৫) ও রঞ্জিতের ছেলে জুবায়ের (৩২)। এখনও নিখোঁজ দু'জন হলেন, একই গ্রামেরই হারান শেখের ছেলে জুয়েল (৩০), নজুর ছেলে জাকির (২৫)।

মঙ্গলবার সকালে পাবনা ও কুষ্টিয়া জেলার সীমান্ত এলাকা পদ্মা নদীর চরঘোষপুর নামক স্থানে নৌকাডুবিতে ৪ কৃষক নিখোঁজ হন। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে একটি নৌকায় কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার ১২ কৃষক ও মাঝি উলু ঘাস (কাশফুল) কাটতে গিয়ে এই নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। মাঝিসহ ৯ জন সাঁতরে তীরে আসতে পারলেও ৪ কৃষক নিখোঁজ হন।

পাবনা ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক সাইফুজ্জামান জানান, মঙ্গলবার বিকাল ৩টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত তার নেতৃত্বে রাজশাহী ফায়ার সার্ভিস থেকে আসা ৩ জন ডুবুরি প্রথম উদ্ধার অভিযান শুরু করেন। কিন্তু ওইদিন কোনো লাশ পাওয়া যায়নি। বুধবার সকাল ৮টা থেকে তারা পুনরায় উদ্ধার অভিযান শুরু করেন এবং দুপুর ১টায় কুমারখালী উপজেলার চরসাদিপুর পদ্মা নদীতে ঘটনাস্থলের দেড় কিলোমিটার ভাটিতে ভেসে ওঠা লাশ দেখে স্থানীয়রা তাদের খবর দেন। এরপর উদ্ধারকারী দল মরদেহটি উদ্ধার করে। সেটি ছিল শরিফুল ইসলামের লাশ।

তিনি জানান, বেলা আড়াইটার দিকে উদ্ধারকারী দল ভাটিতে অপর জন জুবায়েরের ভাসমান লাশ উদ্ধার করেন। নিখোঁজ ২ জনের লাশ উদ্ধার করতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে আবার অভিযান শুরু হবে বলে তিনি জানান।

পদ্মায় নৌকাডুবির একদিন পর মিলল ২ কৃষকের লাশ, নিখোঁজ ২

 পাবনা প্রতিনিধি 
০৮ জুলাই ২০২০, ০৭:৪৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পাবনা সদর উপজেলার পদ্মা নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ ৪ কৃষকের মধ্যে ২ জনের লাশ উদ্ধার করেছে ডুবুরিরা। নৌকাডুবির একদিন পর বুধবার তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়। এখনও দুইজন নিখোঁজ রয়েছেন।

যাদের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে তারা হলেন কুষ্টিয়া জেলার ভেড়ামারা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামের আবদুল জলিলের ছেলে শরিফুল ইসলাম (৩৫) ও রঞ্জিতের ছেলে জুবায়ের (৩২)। এখনও নিখোঁজ দু'জন হলেন, একই গ্রামেরই হারান শেখের ছেলে জুয়েল (৩০), নজুর ছেলে জাকির (২৫)।

মঙ্গলবার সকালে পাবনা ও কুষ্টিয়া জেলার সীমান্ত এলাকা পদ্মা নদীর চরঘোষপুর নামক স্থানে নৌকাডুবিতে ৪ কৃষক নিখোঁজ হন। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে একটি নৌকায় কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার ১২ কৃষক ও মাঝি উলু ঘাস (কাশফুল) কাটতে গিয়ে এই নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। মাঝিসহ ৯ জন সাঁতরে তীরে আসতে পারলেও ৪ কৃষক নিখোঁজ হন।

পাবনা ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক সাইফুজ্জামান জানান, মঙ্গলবার বিকাল ৩টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত তার নেতৃত্বে রাজশাহী ফায়ার সার্ভিস থেকে আসা ৩ জন ডুবুরি প্রথম উদ্ধার অভিযান শুরু করেন। কিন্তু ওইদিন কোনো লাশ পাওয়া যায়নি। বুধবার সকাল ৮টা থেকে তারা পুনরায় উদ্ধার অভিযান শুরু করেন এবং দুপুর ১টায় কুমারখালী উপজেলার চরসাদিপুর পদ্মা নদীতে ঘটনাস্থলের দেড় কিলোমিটার ভাটিতে ভেসে ওঠা লাশ দেখে স্থানীয়রা তাদের খবর দেন। এরপর উদ্ধারকারী দল মরদেহটি উদ্ধার করে। সেটি ছিল শরিফুল ইসলামের লাশ।

তিনি জানান, বেলা আড়াইটার দিকে উদ্ধারকারী দল ভাটিতে অপর জন জুবায়েরের ভাসমান লাশ উদ্ধার করেন। নিখোঁজ ২ জনের লাশ উদ্ধার করতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে আবার অভিযান শুরু হবে বলে তিনি জানান।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন