মহেশখালীতে মদের কারখানা, গ্রেফতার ৫

  মহেশখালী প্রতিনিধি ০৯ জুলাই ২০২০, ১০:০৯:২৩ | অনলাইন সংস্করণ

ফাইল ছবি

কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলায় দেশীয় মদের কারখানায় অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। দুটি কারখানা থেকে পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ সময় বিপুল পরিমাণ মদ ও মদ তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন– বড় মহেশখালী ইউনিয়নের মগরিয়া কাটা এলাকার জহিরুল মাঝির ছেলে মোহাম্মদ আমির হোসেন (৩৫) ও একই ইউনিয়নের পূর্ব বড় মগডেইল এলাকার আবুল হোসেনের ছেলে মো. আমান উল্লাহ (৩৭), একই এলাকার নুরুল হক (৩২), মাতারবাড়ির দক্ষিণ মগডেইল এলাকার কারখানার মালিক আজবাহার বেগম (৪৮) ও তার ছেলে মোহাম্মদ মুন্না (২১)।

বুধবার রাতে মহেশখালী থানার ওসি দিদারুল ফেরদাউস যুগান্তরকে জানান, সকাল থেকে এ অভিযান শুরু হয়ে সন্ধ্যা অবদি চলে। পুলিশের একাধিক ইউনিট বিভিন্ন স্পটে অভিযান চালালেও দিনভর দুটি কারখানার সন্ধান পাওয়া গেছে।

উপজেলার মাতারবাড়ি ও হোয়ানকের পাহাড়ি এলাকায় এ দুই তরল মদ তৈরির কারখানার সন্ধান পায় পুলিশ।

ভোর থেকে ওই এলাকায় ছদ্মবেশে রেকি করে দুপুর নাগাদ অভিযান চালায়। এ সময় মদ তৈরির কাজে যুক্ত থাকা দুই কারিগরকে গ্রেফতার করা হয়।

এদিকে তাদের দেয়া তথ্যমতে, হোয়ানক ইউনিয়নের বারঘরপাড়া এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় আরও একজন মদ তৈরির কারিগরকে। ওই কারখানা থেকে আড়াই হাজার লিটার তৈরি মদ উদ্ধার করে বেশিরভাগ মদ ওখানেই নষ্ট করে দেয়া হয়। নমুনা হিসেবে জব্দ করা হয় ২০০ লিটার মদ।

উদ্ধার করা হয়েছে মদ তৈরির বিপুল সরঞ্জাম। এ সময় কারখানার পাশের এলাকার এক ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য আটক করা হয়েছে।

ওসি ফেরদাউস জানান, এদিকে উপজেলার মাতারবাড়িতে আলাদা অভিযানে আরও একটি মদের কারখানা আবিষ্কার করা হয়েছে। ওই কারখানায় ৩০০ লিটারের মতো তৈরি মদ পাওয়া যায়। তা থেকে ৫০ লিটার মদ ও মদ তৈরির বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। বিপুল মদ উদ্ধার করার সময় নষ্ট হয়ে যায়।

এ সময় মাতারবাড়ির দক্ষিণ মগডেইল এলাকার এ কারখানা থেকে মালিক আজবাহার বেগম ও তার ছেলে মোহাম্মদ মুন্নাকে গ্রেফতার করা হয়। এ বিষয়ে পুলিশ বাদী হয়ে পৃথক দুটি মামলা করেছেন বলে জানান ওসি।

আরও খবর
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত