সংস্কারের অভাবে বেহাল দেওগাঁওয়ের রাস্তা 
jugantor
সংস্কারের অভাবে বেহাল দেওগাঁওয়ের রাস্তা 

  আটপাড়া (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি  

০৯ জুলাই ২০২০, ১৮:২০:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার আটপাড়া উপজেলার লুনেশ্বর ইউনিয়নের দেওগাঁও মাইজপাড়া গ্রামের রাস্তাটি দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে বেহাল অবস্থা,  জনসাধারণের দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করছে। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে এই রাস্তাটি সংস্কারের জন্য বিভিন্ন সময়ে সরকারি টাকা বরাদ্দ হলেও যথাযথভাবে কাজ না করায় এখন তা ব্যবহারের অনুপযোগীই রয়ে গেছে। 

সরেজমিনে দেখা যায়, দেওগাঁও মাইজপাড়া রাস্তার মাঝখানে সাকো দিয়ে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা ও সাধারণ জনগণ অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে উপজেলা সদরে যাতায়াত করছেন। মাইজপাড়া থেকে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারী সাহেবের বাড়ী পর্যন্ত প্রায় ২ কিলোমিটার রাস্তাটির এই বেহাল দশা।  

প্রতি বছরে ফসল কাটার মৌসুমে এই রাস্তা দিয়ে হাওর থেকে বিভিন্ন পরিবহনের মাধ্যমে কৃষকরা তাদের উৎপাদিত ফসল ঘরে তোলেন। এছাড়া বিগত সময় থেকে এই গ্রামের কোথায় আগুন লাগলে রাস্তাটির বেহাল দশার কারণে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি প্রবেশ করতে পারে না। এতে অনেক পরিবারই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। 

স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: আব্দুল বারী জানান, সংস্কারের অভাবে রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। যদি আমি মৃত্যুবরণ করি একজন বীরমুক্তিযোদ্ধা হিসাবে প্রশাসন আমার বাড়িতে আসতে কষ্টদায়ক হবে।

স্থানীয় ইউ.পি চেয়ারম্যান মো: মাহফুজুল ইসলাম খান শিরিন বলেন, রাস্তাটি সংস্কারের জন্য কর্তৃপক্ষ দরপত্র আহ্বান করবেন। এতে দ্রুত সময়ের মধ্যে আমার এলাকাবাসীর সীমাহীন দুর্ভোগ থেকে লাঘব হবে।

সংস্কারের অভাবে বেহাল দেওগাঁওয়ের রাস্তা 

 আটপাড়া (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি 
০৯ জুলাই ২০২০, ০৬:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার আটপাড়া উপজেলার লুনেশ্বর ইউনিয়নের দেওগাঁও মাইজপাড়া গ্রামের রাস্তাটি দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে বেহাল অবস্থা, জনসাধারণের দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করছে। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে এই রাস্তাটি সংস্কারের জন্য বিভিন্ন সময়ে সরকারি টাকা বরাদ্দ হলেও যথাযথভাবে কাজ না করায় এখন তা ব্যবহারের অনুপযোগীই রয়ে গেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, দেওগাঁও মাইজপাড়া রাস্তার মাঝখানে সাকো দিয়ে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা ও সাধারণ জনগণ অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে উপজেলা সদরে যাতায়াত করছেন। মাইজপাড়া থেকে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারী সাহেবের বাড়ী পর্যন্ত প্রায় ২ কিলোমিটার রাস্তাটির এই বেহাল দশা।

প্রতি বছরে ফসল কাটার মৌসুমে এই রাস্তা দিয়ে হাওর থেকে বিভিন্ন পরিবহনের মাধ্যমে কৃষকরা তাদের উৎপাদিত ফসল ঘরে তোলেন। এছাড়া বিগত সময় থেকে এই গ্রামের কোথায় আগুন লাগলে রাস্তাটির বেহাল দশার কারণে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি প্রবেশ করতে পারে না। এতে অনেক পরিবারই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: আব্দুল বারী জানান, সংস্কারের অভাবে রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। যদি আমি মৃত্যুবরণ করি একজন বীরমুক্তিযোদ্ধা হিসাবে প্রশাসন আমার বাড়িতে আসতে কষ্টদায়ক হবে।

স্থানীয় ইউ.পি চেয়ারম্যান মো: মাহফুজুল ইসলাম খান শিরিন বলেন, রাস্তাটি সংস্কারের জন্য কর্তৃপক্ষ দরপত্র আহ্বান করবেন। এতে দ্রুত সময়ের মধ্যে আমার এলাকাবাসীর সীমাহীন দুর্ভোগ থেকে লাঘব হবে।