কুড়িগ্রামে ইয়াবাসহ দুই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আটক
jugantor
কুড়িগ্রামে ইয়াবাসহ দুই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আটক

  উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি   

০৯ জুলাই ২০২০, ২০:১২:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

কুড়িগ্রামের উলিপুরে ইয়াবাসহ দুই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে আটক করেছে ডিবি পুলিশ। আটকের সময় ওই দুই নেতা ডিবি পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি করে পালানোর চেষ্টা করলেও শেষরক্ষা হয়নি তাদের।

বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার দক্ষিণ সাদুল্যা গ্রাম থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটক বাচ্চু মিয়া (৩২) চিলমারী উপজেলার ছামছপাড়া গ্রামের কাচু মিয়ার ছেলে এবং মেহেদী হাসান রঞ্জু (৩০) মাচাবান্দা আদর্শপাড়া গ্রামের নুর মোহাম্মদের ছেলে। তারা উভয়েই চিলমারী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য।

পুলিশ জানায়, উপজেলার তবকপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ সাদুল্যা ঈদগাহ মাঠে মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়ের সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে একদল ডিবি পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়।

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ঘটনাস্থলে থাকা স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা বাচ্চু মিয়া ও মেহেদী হাসান রঞ্জুসহ আরও কয়েকজন গ্রেফতার এড়াতে পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় অন্যরা পালিয়ে গেলেও ওই দুই নেতা ৩০ পিচ ইয়াবাসহ আটক হন।

এ প্রসঙ্গে চিলমারী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক মাহবুবুর রশীদ বিপ্লব বলেন, বাচ্চু মিয়া ও মেহেদী হাসান রঞ্জু উপজেলা আহ্বায়ক কমিটি সদস্য। তবে তাদের আটকের বিষয়টি আমার জানা ছিল না। এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কুড়িগ্রাম জেলা গোয়েন্দা শাখার উপ-পুলিশ পরিদর্শক গোলাম মোস্তফা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আটক দুই ব্যক্তি দীর্ঘদিন যাবৎ সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে মাদকদ্রব্য এনে বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে আসছিলেন। তাদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়।

কুড়িগ্রামে ইয়াবাসহ দুই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আটক

 উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি  
০৯ জুলাই ২০২০, ০৮:১২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুড়িগ্রামের উলিপুরে ইয়াবাসহ দুই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে আটক করেছে ডিবি পুলিশ। আটকের সময় ওই দুই নেতা ডিবি পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি করে পালানোর চেষ্টা করলেও শেষরক্ষা হয়নি তাদের। 

বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার দক্ষিণ সাদুল্যা গ্রাম থেকে তাদের আটক করা হয়। 

আটক বাচ্চু মিয়া (৩২) চিলমারী উপজেলার ছামছপাড়া গ্রামের কাচু মিয়ার ছেলে এবং মেহেদী হাসান রঞ্জু (৩০) মাচাবান্দা আদর্শপাড়া গ্রামের নুর মোহাম্মদের ছেলে। তারা উভয়েই চিলমারী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য। 

পুলিশ জানায়, উপজেলার তবকপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ সাদুল্যা ঈদগাহ মাঠে মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়ের সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে একদল ডিবি পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়। 

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ঘটনাস্থলে থাকা  স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা বাচ্চু মিয়া ও মেহেদী হাসান রঞ্জুসহ আরও কয়েকজন গ্রেফতার এড়াতে পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় অন্যরা পালিয়ে গেলেও ওই দুই নেতা ৩০ পিচ ইয়াবাসহ আটক হন। 

এ প্রসঙ্গে চিলমারী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক মাহবুবুর রশীদ বিপ্লব বলেন, বাচ্চু মিয়া ও মেহেদী হাসান রঞ্জু উপজেলা আহ্বায়ক কমিটি সদস্য। তবে তাদের আটকের বিষয়টি আমার জানা ছিল না। এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

কুড়িগ্রাম জেলা গোয়েন্দা শাখার উপ-পুলিশ পরিদর্শক গোলাম মোস্তফা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আটক দুই ব্যক্তি দীর্ঘদিন যাবৎ সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে মাদকদ্রব্য এনে বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে আসছিলেন।  তাদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন