রাস্তায় পড়ে প্রসব ব্যথায় কাতরাচ্ছিলেন রুপা 
jugantor
রাস্তায় পড়ে প্রসব ব্যথায় কাতরাচ্ছিলেন রুপা 

  ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

০৯ জুলাই ২০২০, ২১:৫৫:৪৬  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে রাস্তায় পড়ে প্রসব ব্যথায় কাতরাচ্ছিলেন রুপা আক্তার নামে এক নারী। পরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করার দু’ঘণ্টা পর এক মৃত কন্যা সন্তান জন্ম নেয়।

রুপা আক্তার শেরপুরের আব্দুল মান্নান ফকিরের স্ত্রী। তিনি গাজীপুর জেলার জয়দেবপুরের আক্তার হোসেনের মেয়ে।

বৃহস্পতিবার উপজেলার মধুপুর ত্রিশাল সড়কের ঈশ্বরগঞ্জে মধুপুর বাজার সন্নিকটে একটি মাদ্রসার পাশে রুপা প্রসবের ব্যথায় অস্থির হয়ে পড়ে থাকেন। এমন অবস্থা দেখে স্থানীয় লোকজন মগটুলা ইউপি চেয়ারম্যান বদরুজ্জামান মামুনকে বিষয়টি জানায়।

তিনি তাৎক্ষণিক স্থানীয় প্রশাসনকে অবহিত করে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেন। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা রুপাকে উদ্ধার করে ঈশ্বরগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এ সম্পর্কে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার নূরুল হুদা খান জানান, রুপা নামের এক নারী হাসপাতালে ভর্তির দু’ঘণ্টা পর মৃত এক কন্যা সন্তান জন্ম নেয়। রুপার শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে।

জনমনে প্রশ্ন, কিভাবে রুপা একাকী এ অবস্থায় ঈশ্বরগঞ্জে আসলেন। তবে এ বিষয়ে তাৎক্ষণিক বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।

রাস্তায় পড়ে প্রসব ব্যথায় কাতরাচ্ছিলেন রুপা 

 ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
০৯ জুলাই ২০২০, ০৯:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে রাস্তায় পড়ে প্রসব ব্যথায় কাতরাচ্ছিলেন রুপা আক্তার নামে এক নারী। পরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করার দু’ঘণ্টা পর এক মৃত কন্যা সন্তান জন্ম নেয়।

রুপা আক্তার শেরপুরের আব্দুল মান্নান ফকিরের স্ত্রী। তিনি গাজীপুর জেলার জয়দেবপুরের আক্তার হোসেনের মেয়ে। 

বৃহস্পতিবার উপজেলার মধুপুর ত্রিশাল সড়কের ঈশ্বরগঞ্জে মধুপুর বাজার সন্নিকটে একটি মাদ্রসার পাশে রুপা প্রসবের ব্যথায় অস্থির হয়ে পড়ে থাকেন। এমন অবস্থা দেখে স্থানীয় লোকজন মগটুলা ইউপি চেয়ারম্যান বদরুজ্জামান মামুনকে বিষয়টি জানায়। 

তিনি তাৎক্ষণিক স্থানীয় প্রশাসনকে অবহিত করে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেন। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা রুপাকে  উদ্ধার করে ঈশ্বরগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করেন। 

এ সম্পর্কে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার নূরুল হুদা খান জানান, রুপা নামের এক নারী হাসপাতালে ভর্তির দু’ঘণ্টা পর মৃত এক কন্যা সন্তান জন্ম নেয়। রুপার শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে।

জনমনে প্রশ্ন, কিভাবে রুপা একাকী এ অবস্থায় ঈশ্বরগঞ্জে আসলেন। তবে এ বিষয়ে তাৎক্ষণিক বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।
 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন