স্ত্রীর ছোঁড়া এসিডে ব্যাংকার স্বামী দগ্ধ
jugantor
স্ত্রীর ছোঁড়া এসিডে ব্যাংকার স্বামী দগ্ধ

  নেত্রকোনা প্রতিনিধি   

০৯ জুলাই ২০২০, ২২:০৬:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার মদনে স্ত্রীর ছোঁড়া এসিডে স্বামীর শরীর ঝলসে গেছে। দগ্ধ স্বামীকে মদন হাসপাতালে নিয়ে এলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। সেখানে তার অবস্থার অবনতি ঘটলে ওই রাতেই ঢাকা প্রেরণ করা হয়।

বুধবার রাতে মদন পৌর সদরের ভাড়িভাদেরা রোডে আক্কাস মাস্টারের বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

দগ্ধ সুলতান মাহমুদ (৩৩) টাঙ্গাইল জেলার মধুপুরের মৃত আব্দুস সামাদের ছেলে। দীর্ঘদিন ধরে তিনি মদন সোনালী ব্যাংক শাখায় সিনিয়র অফিসার (ক্যাশ) পদে কর্মরত আছেন।

এ ঘটনায় তার স্ত্রী নাসিমা আক্তারকে (৩৯) আটক করে বৃহস্পতিবার নেত্রকোনা কোর্ট হাজতে প্রেরণ করেছে মদন থানার পুলিশ।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সুলতান মাহমুদ মদন সোনালী ব্যাংক শাখায় কর্মরত অবস্থায় তার স্ত্রী নাসিমা আক্তারকে নিয়ে মদন পৌরসদর এলাকায় আক্কাস মাস্টারের বাসায় ভাড়া থাকেন।

পারিবারিক কলহে রাগারাগির একপর্যায়ে বুধবার রাতে স্ত্রী নাসিমা তার ওপর এসিড নিক্ষেপ করে। এ অবস্থা দেখে স্থানীয় লোকজন মদন থানায় খবর দিলে পুলিশ সুলতান মাহমুদকে উদ্ধার করে মদন হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

সেখানে তার অবস্থা অবনতি ঘটলে ঢাকা নেয়া হয়। পরে তার স্ত্রী নাসিমাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। বৃহস্পতিবার আটককৃত নাসিমাকে নেত্রকোনার কোর্ট হাজতে প্রেরণ করা হয়।

মদন থানার এস আই দেবাশীষ চন্দ্র দত্ত জানান, সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ না পাওয়ায় বৃহস্পতিবার তাকে ১৫৪ ধারায় নেত্রকোনা কোর্ট হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

স্ত্রীর ছোঁড়া এসিডে ব্যাংকার স্বামী দগ্ধ

 নেত্রকোনা প্রতিনিধি  
০৯ জুলাই ২০২০, ১০:০৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার মদনে স্ত্রীর ছোঁড়া এসিডে স্বামীর শরীর ঝলসে গেছে। দগ্ধ স্বামীকে মদন হাসপাতালে নিয়ে এলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। সেখানে তার অবস্থার অবনতি ঘটলে ওই রাতেই ঢাকা প্রেরণ করা হয়। 

বুধবার রাতে মদন পৌর সদরের ভাড়িভাদেরা রোডে আক্কাস মাস্টারের বাসায় এ ঘটনা ঘটে। 

দগ্ধ সুলতান মাহমুদ (৩৩) টাঙ্গাইল জেলার মধুপুরের মৃত আব্দুস সামাদের ছেলে। দীর্ঘদিন ধরে তিনি মদন সোনালী ব্যাংক শাখায় সিনিয়র অফিসার (ক্যাশ) পদে কর্মরত আছেন।  

এ ঘটনায় তার স্ত্রী নাসিমা আক্তারকে (৩৯) আটক করে বৃহস্পতিবার নেত্রকোনা কোর্ট হাজতে প্রেরণ করেছে মদন থানার পুলিশ। 

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সুলতান মাহমুদ মদন সোনালী ব্যাংক শাখায় কর্মরত অবস্থায় তার স্ত্রী নাসিমা আক্তারকে নিয়ে মদন পৌরসদর এলাকায় আক্কাস মাস্টারের বাসায় ভাড়া থাকেন। 

পারিবারিক কলহে রাগারাগির একপর্যায়ে বুধবার রাতে স্ত্রী নাসিমা তার ওপর এসিড নিক্ষেপ করে। এ অবস্থা দেখে স্থানীয় লোকজন মদন থানায় খবর দিলে পুলিশ সুলতান মাহমুদকে উদ্ধার করে মদন হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। 

সেখানে তার অবস্থা অবনতি ঘটলে ঢাকা নেয়া হয়। পরে তার স্ত্রী নাসিমাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। বৃহস্পতিবার আটককৃত নাসিমাকে নেত্রকোনার কোর্ট হাজতে প্রেরণ করা হয়। 

মদন থানার এস আই দেবাশীষ চন্দ্র দত্ত জানান, সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ না পাওয়ায় বৃহস্পতিবার তাকে ১৫৪ ধারায় নেত্রকোনা কোর্ট হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।  

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন