ফেসবুকে পাল্টাপাল্টি পোস্ট নিয়ে আ’লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ
jugantor
ফেসবুকে পাল্টাপাল্টি পোস্ট নিয়ে আ’লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ

  রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি  

১২ জুলাই ২০২০, ১১:১৯:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ফেসবুকে পাল্টাপাল্টি পোস্ট নিয়ে আ’লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ

ফেসবুকে পাল্টাপাল্টি পোস্ট দেয়া নিয়ে লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলায় ফের আওয়ামী লীগের দুপক্ষের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়েছে।

শনিবার গভীর রাত পর্যন্ত উপজেলার উত্তর চরবংশী ইউপির খাসেরহাট বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

এর আগে শুক্রবার রাতে আওয়ামী লীগের দুপক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ২০ জন আহত হন। গুরুতর জখম ১০ জনকে রায়পুর, লক্ষ্মীপুর ও ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

রোববার সকালে সরেজমিন গেলে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা জানান, উপজেলা নির্বাচনের পর থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন মাস্টার ও আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ওসমান খাঁর অনুসারীরা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে দলীয় কর্মকাণ্ড চালাচ্ছিলেন।

এ নিয়ে কয়েকবার সংঘর্ষ, ভাঙচুর, আহত ও পাল্টাপাল্টির ঘটনায় একাধিক মামলা হয়েছে। এ অবস্থায় আওয়ামী লীগ নেতা ওসমান খাঁ ও চেয়ারম্যান আলতাফ মাস্টারের মীমাংসা হয়ে যান এবং মামলা তুলে নেয়ার প্রক্রিয়াও চলছিল।

এরই মধ্যে গত শুক্রবার সকালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পাল্টাপাল্টি পোস্ট দেয়া কেন্দ্র করে দুপক্ষের মধ্যে ফের হুমকি-ধমকি শুরু হয়। এর পর রাতেই সংঘর্ষে লিপ্ত হয় দুপক্ষের লোকজন।

উভয়পক্ষের প্রায় ২০ নেতাকর্মী আহত হন। ১০ জনকে রায়পুর, লক্ষ্মীপুর ও ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ সময় আলতাফ মাস্টারের গাড়ি ও কার্যালয় ভাঙচুর করায় তার ক্ষুব্ধ অনুসারীরা তাদের প্রতিপক্ষদের বাড়িঘর ভাঙচুর করে।

এর পাল্টা জবাবে শনিবার রাত পর্যন্ত ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। তবে এতে কেউ আহত হয়নি।

রায়পুর থানার ওসি আবদুল জলিল জানান, রাতে খবর পেয়েই আবারও ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। উভয়পক্ষের লোকদের শান্ত রাখতে পুলিশ সেখানে অবস্থান নিয়েছে। কাউকে আটক করা হয়নি।

ফেসবুকে পাল্টাপাল্টি পোস্ট নিয়ে আ’লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ

 রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি 
১২ জুলাই ২০২০, ১১:১৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফেসবুকে পাল্টাপাল্টি পোস্ট নিয়ে আ’লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ
ফাইল ছবি

ফেসবুকে পাল্টাপাল্টি পোস্ট দেয়া নিয়ে লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলায় ফের আওয়ামী লীগের দুপক্ষের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়েছে।

শনিবার গভীর রাত পর্যন্ত উপজেলার উত্তর চরবংশী ইউপির খাসেরহাট বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

এর আগে শুক্রবার রাতে আওয়ামী লীগের দুপক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ২০ জন আহত হন। গুরুতর জখম ১০ জনকে রায়পুর, লক্ষ্মীপুর ও ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

রোববার সকালে সরেজমিন গেলে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা জানান, উপজেলা নির্বাচনের পর থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন মাস্টার ও আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ওসমান খাঁর অনুসারীরা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে দলীয় কর্মকাণ্ড চালাচ্ছিলেন।

এ নিয়ে কয়েকবার সংঘর্ষ, ভাঙচুর, আহত ও পাল্টাপাল্টির ঘটনায় একাধিক মামলা হয়েছে। এ অবস্থায় আওয়ামী লীগ নেতা ওসমান খাঁ ও চেয়ারম্যান আলতাফ মাস্টারের মীমাংসা হয়ে যান এবং মামলা তুলে নেয়ার প্রক্রিয়াও চলছিল।

এরই মধ্যে গত শুক্রবার সকালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পাল্টাপাল্টি পোস্ট দেয়া কেন্দ্র করে দুপক্ষের মধ্যে ফের হুমকি-ধমকি শুরু হয়। এর পর রাতেই সংঘর্ষে লিপ্ত হয় দুপক্ষের লোকজন।

উভয়পক্ষের প্রায় ২০ নেতাকর্মী আহত হন। ১০ জনকে রায়পুর, লক্ষ্মীপুর ও ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ সময় আলতাফ মাস্টারের গাড়ি ও কার্যালয় ভাঙচুর করায় তার ক্ষুব্ধ অনুসারীরা তাদের প্রতিপক্ষদের বাড়িঘর ভাঙচুর করে।

এর পাল্টা জবাবে শনিবার রাত পর্যন্ত ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। তবে এতে কেউ আহত হয়নি।

রায়পুর থানার ওসি আবদুল জলিল জানান, রাতে খবর পেয়েই আবারও ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। উভয়পক্ষের লোকদের শান্ত রাখতে পুলিশ সেখানে অবস্থান নিয়েছে। কাউকে আটক করা হয়নি।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন