এক মোবাইল নম্বর একাধিক তালিকায়, প্রতিবাদ করায় কাউন্সিলরকে হামলার অভিযোগ
jugantor
এক মোবাইল নম্বর একাধিক তালিকায়, প্রতিবাদ করায় কাউন্সিলরকে হামলার অভিযোগ

  সেনবাগ প্রতিনিধি  

১২ জুলাই ২০২০, ২৩:১৬:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাসের কারণে অসচ্ছল ব্যক্তিদের প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ঈদ উপহার প্রণোদনা টাকার নামের একাধিক তালিকায় একব্যক্তির মোবাইল নম্বর থাকার প্রতিবাদ করায় নোয়াখালীর সেনবাগ পৌরসভার কাউন্সিলরের ওপর হামলা ও লাঞ্ছিত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৮টার সময় পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড বাতানিয়া দোকান ঘর এলাকায় ঘটে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, করোনাভাইরাসের কারণে অসচ্ছল ব্যক্তিদের প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ঈদ উপহার প্রণোদনা (২৫০০) টাকার নামের একাধিক তালিকায় একব্যক্তির মোবাইল নম্বর দিয়ে টাকা উত্তোলন করে। এ বিষয়ে অভিযুক্ত এলাকার কামরুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে কাউন্সিলর মো. জসিম উদ্দিনকে গালমন্দ করে। কাউন্সিলর এর প্রতিবাদ করায় অভিযুক্ত কামরুল এলোপাথাড়ি হামলা শুরু করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে।

এ সময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে কাউন্সিলরকে উদ্ধার করে সেনবাগ সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে। এ ঘটনার পর কামরুল কাউন্সিলরকে নানারকম হুমকি প্রদান করে ও তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেল নিয়ে যায় বলে জানান। এ ঘটনায় আহত ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. জসিম উদ্দিন বাদী হয়ে ২ জনকে অভিযুক্ত করে সেনবাগ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত কামরুল ইসলাম বলেন, তার বিরুদ্ধে অভিযোগ সত্য নয়। বিষয়টি উপজেলা ও পৌরসভা থেকে তদন্ত করলে দেখা যাবে কার নম্বার আছে সেখানে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল বাতেন মৃধা সন্ধ্যায় বলেন, তিনি অভিযোগ পেয়েছেন।

এক মোবাইল নম্বর একাধিক তালিকায়, প্রতিবাদ করায় কাউন্সিলরকে হামলার অভিযোগ

 সেনবাগ প্রতিনিধি 
১২ জুলাই ২০২০, ১১:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাসের কারণে অসচ্ছল ব্যক্তিদের প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ঈদ উপহার প্রণোদনা টাকার নামের একাধিক তালিকায় একব্যক্তির মোবাইল নম্বর থাকার প্রতিবাদ করায় নোয়াখালীর সেনবাগ পৌরসভার কাউন্সিলরের ওপর হামলা ও লাঞ্ছিত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৮টার সময় পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড বাতানিয়া দোকান ঘর এলাকায় ঘটে। 

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, করোনাভাইরাসের কারণে অসচ্ছল ব্যক্তিদের প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ঈদ উপহার প্রণোদনা (২৫০০) টাকার নামের একাধিক তালিকায় একব্যক্তির মোবাইল নম্বর দিয়ে টাকা উত্তোলন করে। এ বিষয়ে অভিযুক্ত এলাকার কামরুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে কাউন্সিলর মো. জসিম উদ্দিনকে গালমন্দ করে। কাউন্সিলর এর প্রতিবাদ করায় অভিযুক্ত কামরুল এলোপাথাড়ি হামলা শুরু করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে।

এ সময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে কাউন্সিলরকে উদ্ধার করে সেনবাগ সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে। এ ঘটনার পর কামরুল কাউন্সিলরকে নানারকম হুমকি প্রদান করে ও তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেল নিয়ে যায় বলে জানান। এ ঘটনায় আহত ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. জসিম উদ্দিন বাদী হয়ে ২ জনকে অভিযুক্ত করে সেনবাগ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত কামরুল ইসলাম বলেন, তার বিরুদ্ধে অভিযোগ সত্য নয়। বিষয়টি উপজেলা ও পৌরসভা থেকে তদন্ত করলে দেখা যাবে কার নম্বার আছে সেখানে। 

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল বাতেন মৃধা সন্ধ্যায় বলেন, তিনি অভিযোগ পেয়েছেন।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন