প্রেমে রাজি না হওয়ায় ছাত্রী অপহরণ: যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার
jugantor
প্রেমে রাজি না হওয়ায় ছাত্রী অপহরণ: যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার

  সোনাগাজী (ফেনী) প্রতিনিধি  

১৬ জুলাই ২০২০, ১০:১৩:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রেমে রাজি না হওয়ায় ছাত্রীকে অপহরণ: যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার

প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় আলোচিত কলেজছাত্রী পলি অপহরণ মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি দুলাল চন্দ্র নাথকে (৪৮) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে ফেনী শহরের উত্তর সহদেবপুর এলাকার একটি ভাড়া বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার দুলাল চন্দ্র নাথ সোনাগাজী উপজেলার সফরপুর গ্রামের মরণ চন্দ্র নাথের ছেলে।

পুলিশ জানায়, ১৯৯৭ সালে এক বখাটের প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বখতার মুন্সী শেখ শহীদুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজছাত্রী পলি আক্তারকে একদল বখাটে অস্ত্রের মুখে জোরপূর্বক অপহরণ করে।

তৎকালীন তার বাবা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। ওই মামলায় গ্রেফতার হয়ে জামিনে মুক্তি পেয়ে সৌদি আরব চলে যান দুলাল চন্দ্র নাথ।

পরে ছুটিতে দেশে ফিরলে আত্মগোপনে থাকতেন তিনি। ২০০০ সালে ওই মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করেন তৎকালীন জেলা ও দায়রা জজ।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ফেনী মডেল থানা পুলিশের সহযোগিতায় সোনাগাজী মডেল থানার ওসি সাজেদুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ দল অভিযান চালিয়ে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি দুলাল চন্দ্র নাথকে গ্রেফতার করে।

এ বিষয়ে সোনাগাজী মডেল থানার ওসি সাজেদুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘ ২০ বছর ধরে পলাতক থাকার পর যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি দুলাল চন্দ্র নাথকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

প্রেমে রাজি না হওয়ায় ছাত্রী অপহরণ: যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার

 সোনাগাজী (ফেনী) প্রতিনিধি 
১৬ জুলাই ২০২০, ১০:১৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
প্রেমে রাজি না হওয়ায় ছাত্রীকে অপহরণ: যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার
ছবি: যুগান্তর

প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় আলোচিত কলেজছাত্রী পলি অপহরণ মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি দুলাল চন্দ্র নাথকে (৪৮) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে ফেনী শহরের উত্তর সহদেবপুর এলাকার একটি ভাড়া বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার দুলাল চন্দ্র নাথ সোনাগাজী উপজেলার সফরপুর গ্রামের মরণ চন্দ্র নাথের ছেলে।

পুলিশ জানায়, ১৯৯৭ সালে এক বখাটের প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বখতার মুন্সী শেখ শহীদুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজছাত্রী পলি আক্তারকে একদল বখাটে অস্ত্রের মুখে জোরপূর্বক অপহরণ করে।

তৎকালীন তার বাবা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। ওই মামলায় গ্রেফতার হয়ে জামিনে মুক্তি পেয়ে সৌদি আরব চলে যান দুলাল চন্দ্র নাথ।

পরে ছুটিতে দেশে ফিরলে আত্মগোপনে থাকতেন তিনি। ২০০০ সালে ওই মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করেন তৎকালীন জেলা ও দায়রা জজ।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ফেনী মডেল থানা পুলিশের সহযোগিতায় সোনাগাজী মডেল থানার ওসি সাজেদুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ দল অভিযান চালিয়ে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি দুলাল চন্দ্র নাথকে গ্রেফতার করে।

এ বিষয়ে সোনাগাজী মডেল থানার ওসি সাজেদুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘ ২০ বছর ধরে পলাতক থাকার পর যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি দুলাল চন্দ্র নাথকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন