ফেঞ্চুগঞ্জে বন্যায় ১১ গ্রামের মানুষ পানিবন্দি

  সিলেট ব্যুরো ও ফেঞ্চুগঞ্জ প্রতিনিধি ১৬ জুলাই ২০২০, ২১:৫৮:০৮ | অনলাইন সংস্করণ

সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জে কুশিয়ারা নদী ও হাওরের পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। এতে ফেঞ্চুগঞ্জের বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়ে ১১টি গ্রামের মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়েছে নতুন নতুন এলাকা। ফলে উপজেলার প্রায় ১০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন।

পানি উন্নয়ন বোর্ড ১৭৪ নং গেজ স্টেশন সূত্রে জানা যায়, গতকাল বৃহস্পতিবার ফেঞ্চুগঞ্জে কুশিয়ারা নদীর পানি বিপৎসীমার ৫০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। উপজেলার কুশিয়ারা নদীর তীরবর্তী ভেলকোনা, মানিকোনা, সুড়িকান্দি, পিঠাইটিকর, ছত্তিশ, নুরপুর, বারোহাল, জেটিঘাট, হাকালুকি হাওর তীরবর্তী যুধিষ্ঠিপুর, বাদেদেউলী ও বাঘমারা গ্রাম থেকে যোগাযোগ বিচ্ছিন হয়ে পড়েছে।তারা বাসাবাড়ি থেকে বের হতে পারছেন না। ভোগান্তিতে পড়েছেন পানিবন্দি মানুষ।

বন্যাকবলিত এলাকায় সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, ঘরবাড়িতে পানি ঢুকে পড়ায় মেঝেতে ইট বিছিয়ে ঘরে থাকার উপযোগী করার চেষ্টা করছেন অনেকে। কিছু সংখ্যক বাড়িতে কোমর সমান পানি হওয়ায় আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছে অনেক পরিবার।

এ দিকে পানিবন্দি মানুষের মধ্যে ত্রাণ দেয়া হচ্ছে। গত দু’দিন ধরে উপজেলা প্রশাসন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে পানিবন্দি মানুষের ঘরে ঘরে ত্রাণ পৌঁছে দিচ্ছে। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাখী আহমেদ বলেন, বন্যাকবলিত এলাকায় আমরা সরেজমিন গিয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে মানুষের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করছি। বন্যার্ত মানুষের জন্য উপজেলায় ১৩টি আশ্রয় কেন্দ্র্র খোলা হয়েছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত