চিকিৎসকদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ করোনাজয়ী করিমগঞ্জ ওসি
jugantor
চিকিৎসকদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ করোনাজয়ী করিমগঞ্জ ওসি

  এটিএম নিজাম, কিশোরগঞ্জ ব্যুরো  

১৬ জুলাই ২০২০, ২২:০৫:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনাকে জয় করে আইসোলেশন পিরিয়ড কাটিয়ে আজ বৃহস্পতিবার কর্মস্থলে যোগদান করেছেন কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ থানার ওসি মমিনুল ইসলাম।

কাজে যোগদানের পরপরই তিনি করোনা যুদ্ধে জয়ী হতে সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর রেখে মনোবল যোগানোর জন্য পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ এবং অসাধারণ চিকিৎসাসেবার জন্য করোনা ডেডিকেটেড কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও চিকিৎসকগণের অসাধারণ চিকিৎসাসেবার  প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে তার নিজ ফেসবুক টাইমলাইনে একটি  স্ট্যাটাস দিয়েছেন। 

স্ট্যাটাসে তিনি চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।  

প্রসঙ্গত, কিশোরগঞ্জ জেলায় গত ৭ এপ্রিল প্রথম করোনা উপসর্গ নিয়ে উপজেলার মুসলিমপাড়া গ্রামের সেলিম মিয়া নামে ঢাকা ফেরত এক ব্যবসায়ী করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান। 

পরবর্তীকালে  নমুনা পরীক্ষায় তিনি করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যান এবং তার স্ত্রী, মা ও বোনের নমুনা পরীক্ষায়ও কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়। এরপর ক্রমেই করিমগঞ্জে কমিউনিটি ট্রান্সমিশন ভয়াবহ রূপ ধারণ করে। 

একে একে আক্রান্ত হতে থাকেন সাধারণ মানুষের পাশাপাশি চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীগণ। দিনে দিনে এ উপজেলাটি হয়ে ওঠে করোনা সংক্রমণের হটস্পট। 

সর্বশেষ গত ২৩ জুন করিমগঞ্জ থানার ওসি মো. মমিনুল ইসলামের করোনা উপসর্গ দেখা দেয়। ওই দিনই তিনি নমুনা পরীক্ষার জন্য দিলে ২৫ জুন কোভিড-১৯ পজিটিভের রিপোর্ট আসে। এমন পরিস্থিতিতে তিনি একই দিন করোনা ডেডিকেটেড কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি হন। 

গত ৩ জুলাই তিনি করোনাকে জয় করে হাসপাতাল ত্যাগ করে ১৩ দিনের জন্য হোম কোয়ারেন্টিন যান। 

হোম কোয়ারেন্টিন শেষ হলে আজ  বৃহস্পতিবার দুপুরে পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার) তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে কর্মস্থলে যোগদানের অনুমতি দেন। করোনা যুদ্ধের সম্মুখ সারির যোদ্ধা করিমগঞ্জ থানার ওসি মো. মমিনুল হক কাজে যোগদান করেই নিজ ফেসবুক আইডি'র টাইমলাইনে স্ট্যাটাস দিয়ে সবার প্রতি  কৃতজ্ঞতা জানিয়ে দোয়া কামনা করেন।                

এ ছাড়া মনোবল  চাঙ্গা রাখতে সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর, পরামর্শ দিয়ে  চিকিৎসাধীন থাকাবস্থায় অভাবনীয়  সহযোগিতার জন্য   ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ ড. বেনজীর আহমেদ (পিপিএম-বার),ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান বিপিএম (বার) পিপিএম (বার) এবং  কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মো.  মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার)সহ সর্বস্তরের পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যদের এবং কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও ফ্রন্ট লাইনার্স চিকিৎসকদের অসাধারণ সেবার প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে ওঠেন। একই সঙ্গে তিনি তাদের প্রতি গভীর ভালোবাসা ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন।
 

চিকিৎসকদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ করোনাজয়ী করিমগঞ্জ ওসি

 এটিএম নিজাম, কিশোরগঞ্জ ব্যুরো 
১৬ জুলাই ২০২০, ১০:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনাকে জয় করে আইসোলেশন পিরিয়ড কাটিয়ে আজ বৃহস্পতিবার কর্মস্থলে যোগদান করেছেন কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ থানার ওসি মমিনুল ইসলাম।

কাজে যোগদানের পরপরই তিনি করোনা যুদ্ধে জয়ী হতে সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর রেখে মনোবল যোগানোর জন্য পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ এবং অসাধারণ চিকিৎসাসেবার জন্য করোনা ডেডিকেটেড কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও চিকিৎসকগণের অসাধারণ চিকিৎসাসেবার প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে তার নিজ ফেসবুক টাইমলাইনে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন।

স্ট্যাটাসে তিনি চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

প্রসঙ্গত, কিশোরগঞ্জ জেলায় গত ৭ এপ্রিল প্রথম করোনা উপসর্গ নিয়ে উপজেলার মুসলিমপাড়া গ্রামের সেলিম মিয়া নামে ঢাকা ফেরত এক ব্যবসায়ী করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান।

পরবর্তীকালে নমুনা পরীক্ষায় তিনি করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যান এবং তার স্ত্রী, মা ও বোনের নমুনা পরীক্ষায়ও কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়। এরপর ক্রমেই করিমগঞ্জে কমিউনিটি ট্রান্সমিশন ভয়াবহ রূপ ধারণ করে।

একে একে আক্রান্ত হতে থাকেন সাধারণ মানুষের পাশাপাশি চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীগণ। দিনে দিনে এ উপজেলাটি হয়ে ওঠে করোনা সংক্রমণের হটস্পট।

সর্বশেষ গত ২৩ জুন করিমগঞ্জ থানার ওসি মো. মমিনুল ইসলামের করোনা উপসর্গ দেখা দেয়। ওই দিনই তিনি নমুনা পরীক্ষার জন্য দিলে ২৫ জুন কোভিড-১৯ পজিটিভের রিপোর্ট আসে। এমন পরিস্থিতিতে তিনি একই দিন করোনা ডেডিকেটেড কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি হন।

গত ৩ জুলাই তিনি করোনাকে জয় করে হাসপাতাল ত্যাগ করে ১৩ দিনের জন্য হোম কোয়ারেন্টিন যান।

হোম কোয়ারেন্টিন শেষ হলে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার) তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে কর্মস্থলে যোগদানের অনুমতি দেন। করোনা যুদ্ধের সম্মুখ সারির যোদ্ধা করিমগঞ্জ থানার ওসি মো. মমিনুল হক কাজে যোগদান করেই নিজ ফেসবুক আইডি'র টাইমলাইনে স্ট্যাটাস দিয়ে সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে দোয়া কামনা করেন।

এ ছাড়া মনোবল চাঙ্গা রাখতে সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর, পরামর্শ দিয়ে চিকিৎসাধীন থাকাবস্থায় অভাবনীয় সহযোগিতার জন্য ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ ড. বেনজীর আহমেদ (পিপিএম-বার),ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান বিপিএম (বার) পিপিএম (বার) এবং কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার)সহ সর্বস্তরের পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যদের এবং কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও ফ্রন্ট লাইনার্স চিকিৎসকদের অসাধারণ সেবার প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে ওঠেন। একই সঙ্গে তিনি তাদের প্রতি গভীর ভালোবাসা ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন।