গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরে বাঁধ ভেঙে ২০ পরিবার পানিবন্দি
jugantor
গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরে বাঁধ ভেঙে ২০ পরিবার পানিবন্দি

    সাদুল্লাপুর (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি  

২১ জুলাই ২০২০, ১৭:৪৮:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরে বাঁধ ভেঙে ২০ পরিবার পানিবন্দি
প্রতীকী ছবি

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলায় নির্মাণাধীন বাঁধ ভেঙে ২০টি পরিবারের শতাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

বর্তমানে এসব মানুষ আশ্রয় নিয়েছে সাদুল্লাপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।

মঙ্গলবার সকালে ওই স্কুলে গিয়ে আশ্রিত মানুষদের মানবেতর জীবনযাপন করতে দেখা গেছে।তারা খাদ্য সংকটেও ভোগছেন।

ভুক্তভূগীরা জানান, টানা বর্ষণে নির্মাণাধীন ঘাঘট নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ কামারপাড়া ইউনিয়নের পুরাণ লক্ষিপুর এলাকায় প্রায় ৫০ ফুট ভেঙে গেছে। 

এতে পুরাণ লক্ষিপুর গ্রামের ২০ পরিবারের শতাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। একইসঙ্গে পাটসহ বেশকিছু ফসল পানিতে ডুবে গেছে। গৃহপালিত গবাদিপশু নিয়েও চরম বিপাকে পড়েছেন তারা।

এক সপ্তাহ ধরে স্কুলটিতে আশ্রয় নিলেও এখন পর্যন্ত প্রশাসন বা জনপ্রতিনিধি কেউই তাদের খোঁজ সেয়নি।দুর্গত মানুষদের কপালে জোটেনি ত্রাণ সহায়তা। 

ক্ষতিগ্রস্ত জেসমিন, কাপাসি ও আমেনা বেওয়া বলেন, বাঁধভাঙা পানির তাণ্ডবে ঘরবাড়ি সব কিছু হারিয়ে স্কুলে ঠাঁই নিয়েছি।গরু-ছাগল ও হাঁস-মুরগি নিয়ে বিপাকে পড়েছি।নিজেদের খাদ্য সংকট এখন চরমে।

সাদুল্লাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. নবীনেওয়াজ বলেন, এরই মধ্যে পানিবন্দি মানুষের খোঁজ-খবর নেয়া হয়েছে।তাদের জন্য ত্রাণসামগ্রীর ব্যবস্থা করা হবে।

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরে বাঁধ ভেঙে ২০ পরিবার পানিবন্দি

   সাদুল্লাপুর (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি 
২১ জুলাই ২০২০, ০৫:৪৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরে বাঁধ ভেঙে ২০ পরিবার পানিবন্দি
প্রতীকী ছবি

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলায় নির্মাণাধীন বাঁধ ভেঙে ২০টি পরিবারের শতাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

বর্তমানে এসব মানুষ আশ্রয় নিয়েছে সাদুল্লাপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।

মঙ্গলবার সকালে ওই স্কুলে গিয়ে আশ্রিত মানুষদের মানবেতর জীবনযাপন করতে দেখা গেছে।তারা খাদ্য সংকটেও ভোগছেন।

ভুক্তভূগীরা জানান, টানা বর্ষণে নির্মাণাধীন ঘাঘট নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ কামারপাড়া ইউনিয়নের পুরাণ লক্ষিপুর এলাকায় প্রায় ৫০ ফুট ভেঙে গেছে।

এতে পুরাণ লক্ষিপুর গ্রামের ২০ পরিবারের শতাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। একইসঙ্গে পাটসহ বেশকিছু ফসল পানিতে ডুবে গেছে। গৃহপালিত গবাদিপশু নিয়েও চরম বিপাকে পড়েছেন তারা।

এক সপ্তাহ ধরে স্কুলটিতে আশ্রয় নিলেও এখন পর্যন্ত প্রশাসন বা জনপ্রতিনিধি কেউই তাদের খোঁজ সেয়নি।দুর্গত মানুষদের কপালে জোটেনি ত্রাণ সহায়তা।

ক্ষতিগ্রস্ত জেসমিন, কাপাসি ও আমেনা বেওয়া বলেন, বাঁধভাঙা পানির তাণ্ডবে ঘরবাড়ি সব কিছু হারিয়ে স্কুলে ঠাঁই নিয়েছি।গরু-ছাগল ও হাঁস-মুরগি নিয়ে বিপাকে পড়েছি।নিজেদের খাদ্য সংকট এখন চরমে।

সাদুল্লাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. নবীনেওয়াজ বলেন, এরই মধ্যে পানিবন্দি মানুষের খোঁজ-খবর নেয়া হয়েছে।তাদের জন্য ত্রাণসামগ্রীর ব্যবস্থা করা হবে।