নাতনিকে ধর্ষণ চেষ্টার পর বৃদ্ধের আত্মহত্যা
jugantor
নাতনিকে ধর্ষণ চেষ্টার পর বৃদ্ধের আত্মহত্যা

  ঝিনাইদহ প্রতিনিধি  

২৩ জুলাই ২০২০, ২৩:১৮:৪৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় ৭ বছর বয়সের প্রতিবেশী এক নাতনিকে ধর্ষণের চেষ্টার পর আত্মহত্যা করেছেন বৃদ্ধ কালাম শাহ (৬৫)। বৃহস্পতিবার সকালে রাস্তার পাশের একটি আম গাছ থেকে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করেছে।

পুলিশের ধারণা লোক লজ্জার ভয়ে আত্মহত্যা করেছে ওই ব্যক্তি।

শৈলকূপা থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম সন্ধ্যা ৭টার জানান, বুধবার দুপুর ১২টার দিকে টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছর বয়সের প্রতিবেশী এক নাতনিকে ধর্ষণের চেষ্টা করে উপজেলার মনোহরপুর ইউনিয়নের বিঞ্চুদিয়া গ্রামের কালাম শাহ। ঘটনাটি দেখে ফেলে তার ছেলের বউ। পরে শিশুটিকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পারিবারিকভাবে পুলিশের কাছে ঘটনাটি গোপন করার চেষ্টা চলে।

বৃহস্পতিবার সকালে গ্রামের এক স্কুলছাত্র কোচিংয়ে যাওয়ার সময় রাস্তার পাশের একটি আম গাছে গলায় গামছা পেঁচিয়ে কালাম শাহকে ঝুলে থাকতে দেখে। খবর পেয়ে গাছ থেকে তার লাশ নামান গ্রামের লোকজন।

ওসি আরও জানান, পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। বিকালে ময়নাতদন্ত শেষে স্বজনরা নিজ গ্রামের কবরস্থানে দাফন করে তাকে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা থানায় রেকর্ড করা হয়েছে।

ভিকটিম শিশু এখনও হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে। তবে তার অবস্থা ভালো বলে জানান ওসি।

নাতনিকে ধর্ষণ চেষ্টার পর বৃদ্ধের আত্মহত্যা

 ঝিনাইদহ প্রতিনিধি 
২৩ জুলাই ২০২০, ১১:১৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় ৭ বছর বয়সের প্রতিবেশী এক নাতনিকে ধর্ষণের চেষ্টার পর আত্মহত্যা করেছেন বৃদ্ধ কালাম শাহ (৬৫)। বৃহস্পতিবার সকালে রাস্তার পাশের একটি আম গাছ থেকে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করেছে।

পুলিশের ধারণা লোক লজ্জার ভয়ে আত্মহত্যা করেছে ওই ব্যক্তি।

শৈলকূপা থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম সন্ধ্যা ৭টার জানান, বুধবার দুপুর ১২টার দিকে টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছর বয়সের প্রতিবেশী এক নাতনিকে ধর্ষণের চেষ্টা করে উপজেলার মনোহরপুর ইউনিয়নের বিঞ্চুদিয়া গ্রামের কালাম শাহ। ঘটনাটি দেখে ফেলে তার ছেলের বউ। পরে শিশুটিকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পারিবারিকভাবে পুলিশের কাছে ঘটনাটি গোপন করার চেষ্টা চলে।

বৃহস্পতিবার সকালে গ্রামের এক স্কুলছাত্র কোচিংয়ে যাওয়ার সময় রাস্তার পাশের একটি আম গাছে গলায় গামছা পেঁচিয়ে কালাম শাহকে ঝুলে থাকতে দেখে। খবর পেয়ে গাছ থেকে তার লাশ নামান গ্রামের লোকজন।

ওসি আরও জানান, পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। বিকালে ময়নাতদন্ত শেষে স্বজনরা নিজ গ্রামের কবরস্থানে দাফন করে তাকে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা থানায় রেকর্ড করা হয়েছে।

ভিকটিম শিশু এখনও হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে। তবে তার অবস্থা ভালো বলে জানান ওসি।