কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৫ যুবক নিহত
jugantor
কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৫ যুবক নিহত

  টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি  

২৮ জুলাই ২০২০, ১১:২৪:১৬  |  অনলাইন সংস্করণ

বন্দুকযুদ্ধ

কক্সবাজারের কবিতা চত্বর ও টেকনাফের হোয়াইক্যং এলাকায় বন্দুকযুদ্ধে পাঁচ যুবক নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার ভোরে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের খারাংখালী ওসৈকতের কবিতা চত্বর এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা দুটি ঘটে।

পুলিশের দাবি, নিহতরা মাদককারবারি চক্রের সদস্য, নিজেদের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে তারা নিহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহতরা হলেন, হোয়াইক্যং ইউনিয়নের সাতঘরিয়া এলাকার মৃত নূর মোহাম্মদের ছেলে মো. ইসমাইল (২৫), হোয়াইক্যং আমতলী এলাকার আবদুল মালেকের ছেলে আনোয়ার হোসেন (২২), খারাংখালী এলাকার আবদুস সালামের ছেলে মো. নাছির (২৩) ও পূর্ব মহেশখালীয়াপাড়া এলাকার মৃত হাকিম মিয়ার ছেলে আনোয়ার (২৪)। একজনের নাম পাওয়া যায়নি বলে জানায় পুলিশ।

কক্সবাজার পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন জানান, ভোরে টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের খারাংখালী এলাকায় দুই মাদককারবারি দলের মধ্যে গোলাগুলির খবর পেয়ে টেকনাফ থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে যায়।

সেখানে একপর্যায়ে ত্রিমুখী বন্দুকযুদ্ধ শুরু হয়। বেশ কিছুক্ষণ গোলাগুলির পর পরিস্থিতি শান্ত হলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৫০ হাজার ইয়াবা ও দুটি এলজিসহ চারজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

অন্যদিকে মঙ্গলবার ভোরে কক্সবাজার সৈকতের কবিতা চত্বর এলাকা থেকে পুলিশ এক ব্যক্তির গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করেছে। মরদেহটি অজ্ঞাত হিসেবে মর্গে পাঠানো হয়।

ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি ও ১০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৫ যুবক নিহত

 টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি 
২৮ জুলাই ২০২০, ১১:২৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বন্দুকযুদ্ধ
ফাইল ছবি

কক্সবাজারের কবিতা চত্বর ও টেকনাফের হোয়াইক্যং এলাকায় বন্দুকযুদ্ধে পাঁচ যুবক নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার ভোরে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের খারাংখালী ও সৈকতের কবিতা চত্বর এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা দুটি ঘটে।

পুলিশের দাবি, নিহতরা মাদককারবারি চক্রের সদস্য, নিজেদের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে তারা নিহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহতরা হলেন, হোয়াইক্যং ইউনিয়নের সাতঘরিয়া এলাকার মৃত নূর মোহাম্মদের ছেলে মো. ইসমাইল (২৫), হোয়াইক্যং আমতলী এলাকার আবদুল মালেকের ছেলে আনোয়ার হোসেন (২২), খারাংখালী এলাকার আবদুস সালামের ছেলে মো. নাছির (২৩) ও পূর্ব মহেশখালীয়াপাড়া এলাকার মৃত হাকিম মিয়ার ছেলে আনোয়ার (২৪)। একজনের নাম পাওয়া যায়নি বলে জানায় পুলিশ।

কক্সবাজার পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন জানান, ভোরে টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের খারাংখালী এলাকায় দুই মাদককারবারি দলের মধ্যে গোলাগুলির খবর পেয়ে টেকনাফ থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে যায়।

সেখানে একপর্যায়ে ত্রিমুখী বন্দুকযুদ্ধ শুরু হয়। বেশ কিছুক্ষণ গোলাগুলির পর পরিস্থিতি শান্ত হলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৫০ হাজার ইয়াবা ও দুটি এলজিসহ চারজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

অন্যদিকে মঙ্গলবার ভোরে কক্সবাজার সৈকতের কবিতা চত্বর এলাকা থেকে পুলিশ এক ব্যক্তির গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করেছে। মরদেহটি অজ্ঞাত হিসেবে মর্গে পাঠানো হয়।

ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি ও ১০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন