তীব্র স্রোত-ঘাট সংকটে অচলবস্থা দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে

  শামীম শেখ, গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) ২৮ জুলাই ২০২০, ২৩:০৩:১৮ | অনলাইন সংস্করণ

দেশের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচলে অনেকটা অচলবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। তীব্র স্রোতে ঘাট বন্ধ থাকা ও ঘাটের এ্যাপ্রোচ সড়কে পানি উঠে তলিয়ে যাওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এতে করে ঘাট এলাকায় কয়েকশ গাড়ি আটকা পড়ে দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে।

দৌলতদিয়ার ৬টি ঘাটের মধ্যে ১ ও ২নং ঘাট গত বছর ভাঙনের পর থেকে বন্ধ। চালু থাকা ৪টি ঘাটের মধ্যে ৩নং ঘাটটি মঙ্গলবার সকাল থেকে বন্ধ রয়েছে। অপর ৩টি ঘাটের মাত্র ৪টি পকেট দিয়ে কোনো মতে চালু রাখা হয়েছে ফেরি সার্ভিস।

এ অবস্থায় বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক মঙ্গলবার দুপুরে ঘাট এলাকা পরিদর্শন করে মঙ্গলবার বন্ধ থাকা সবগুলো ঘাট চালু করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা করেই আমরা সমন্বিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে মানুষের নির্বিঘ্ন পারাপার নিশ্চিত করতে পারবেন।

বিআইডব্লিউটিসি ও অন্যান্য সূত্রে জানা যায়, পদ্মা-যমুনা নদীর পানি অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পেয়ে দৌলতদিয়ার ৩ ও ৬ নং ঘাটের এ্যাপ্রোচ সড়ক পানিতে তলিয়ে যায়। মঙ্গলবার সকালের দিকে ৬নং ঘাটটি প্রায় ৩ ঘণ্টার মতো বন্ধ রেখে বালু-খোয়া ফেলে পুনরায় কোনোমতে চালু করা হয়েছে।

এদিকে ৩নং ঘাটের হাঁটু পানির মধ্য দিয়ে ফেরি থেকে নামতে গিয়ে এ্যাপ্রোচ সড়কের মাঝে সকাল ১০টার দিকে একটি মালবোঝাই কাভার্ডভ্যান উল্টে যায়। এরপর থেকে ওই ঘাটটি পুরোপুরি বন্ধ হয়ে আছে। কাভার্ডভ্যানটি উদ্ধার এবং ডুবে যাওয়া অ্যাপ্রোচ সড়কে বালু-খোয়া ফেলে ঘাটটি পুনরায় চালু করতে দিনভর কাজ করে সংশ্লিষ্টরা। তবে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ঘাটটি চালু করা সম্ভব হয়নি।

অপরদিকে ৫নং ঘাটের ২টি পকেটের মধ্যে তীব্র স্রোতে ফেরির ধাক্কায় ১টি পকেট ২ দিন বন্ধ থাকার পর মঙ্গলবার দুপুর থেকে সচল হয়েছে। ৪নং ঘাটটি খুব ছোট। সেখানে একসঙ্গে মাত্র ছোট সাইজের একটি ফেরি ভিড়তে পারে। ১ ও ২ নং ঘাট দুটি গতবছর ভাঙ্গনে বিলীন হওয়ার পর হতে আর স্বাভাবিক করা হয়নি। অবশ্য তীব্র স্রোতের কারণে অধিক উজানে থাকা ঘাট দুটিতে কোন ফেরিও পৌঁছাতে পারে না।

এমতাবস্থায় চালু ৩টি ঘাটের মাত্র ৩টি পকেট দিয়ে ফেরির লোড-আনলোড হওয়ায় দীর্ঘ সময়েও কোনো কোনো ফেরি ঘাট পাচ্ছে না। তীব্র স্রোতের মধ্যে অনেক কষ্টে পল্টুন ফাঁকা হওয়ার জন্য ফেরিগুলোকে অপেক্ষা করতে হচ্ছে।

সূত্র আরও জানায়, নদীতে সৃষ্ট তীব্র স্রোতের কারণে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচলে প্রায় অচলবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। নদী পার হতে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে দ্বিগুণ বা তারও বেশি সময় লাগছে প্রতিটি ফেরির। তীব্র স্রোতের বিপরীতে চলতে পারছে না দুর্বল ইঞ্জিনের দুইটি ফেরি। ঘাটে পৌঁছাতে তীব্র স্রোতের কারণে ফেরিগুলোতে ২-৩ কিমি ভাটিতে ভিড়তে হচ্ছে। পাশাপাশি ৫ ও ৬নং ঘাট এলাকায় প্রচণ্ড ঘূর্ণি স্রোতের সৃষ্টি হওয়ায় ভাঙনের আশংকায় সেখানে নতুন করে জিও ব্যাগ ফেলানো হচ্ছে।

এ নৌরুটের উভয় পাড়ে কয়েকশ যানবাহন নদী পার হতে না পেরে মহাসড়কে আটকা পড়েছে। তবে গরুবাহী ট্রাকগুলো সরাসরি ফেরিতে উঠে যাচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিসির দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক আবু আবদুল্লাহ রনি জানান, পদ্মা নদীতে পানি বৃদ্ধি ও তীব্র স্রোতের কারণে নদীতে ফেরী চলাচল ও ঘাটে পৌছাতে প্রচণ্ড বেগ পেতে হচ্ছে। ৬নং ঘাটের এ্যাপ্রোচ সড়কে পানি উঠে গেলেও বালু ও খোয়া ফেলে চালু করা হয়েছে। ৩নং ঘাটটিও সচল করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। নৌরুটে বর্তমানের ১৫টি ফেরি সচল রয়েছে। বুধবার আরও একটি ফেরি যুক্ত হওয়ার কথা রয়েছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত