প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ঘর-জমি পেলেন সেই নাইকা মার্ডি
jugantor
প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ঘর-জমি পেলেন সেই নাইকা মার্ডি

  তানোর (রাজশাহী) প্রতিনিধি  

২৯ জুলাই ২০২০, ১২:৫৯:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

নাইকা মার্ডি

প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ঘর ও জমি বরাদ্দ পাচ্ছেন রাজশাহীর তানোর উপজেলার মোহাম্মদপুর আদিবাসীপাড়ার বীর মুক্তিযোদ্ধা নাইকা মার্ডি।

দৈনিক যুগান্তর পত্রিকা ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে সংবাদ প্রকাশের পর মঙ্গলবার রাতে রাজশাহীর তানোর ইউএনও সুশান্ত কুমার মাহাতো ভূমি অফিসের কর্মকর্তাদের নিয়ে নাইকা মার্ডির বাড়িতে গিয়ে এ ঘোষণা দেন।

প্রসঙ্গত ‘৪৯ বছর পরও ঠাঁই খুঁজছেন মুক্তিযোদ্ধা নাইকা মার্ডি’– এই সংবাদ শিরোনামে গত ২৬ ও ২৭ জুলাই যুগান্তর অনলাইন ও পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়।

সংবাদে বলা হয়, বিগত ১০ বছর ধরে রাজনৈতিক নেতাকর্মী ও ভূমি অফিসে ধর্ণা দিয়েও বসতবাড়ির মাত্র ছয় শতক খাসজমি নিজের নামে করতে পারেননি নাইকা মার্ডি। ফলে চার সন্তানের ভবিষৎ নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন ভূমিহীন ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা নাইকা মার্ডি’।

যুগান্তরে এহেন সংবাদটি উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সুশান্ত কুমার মাহাতোর নজরে এলে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে উপজেলা ভূমি অফিস এবং উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে দুর্যোগ সহনীয় একটি ঘর ও জমি দেয়ার নীতিগত সিদ্ধান্তও নেন ইউএনও।

এ ব্যাপারে বুধবার সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুশান্ত কুমার মাহাতো যুগান্তরকে বলেন, সংবাদটি দেখার সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট দফতরকে নির্দেশ দেয়া হয়।

এর পর মঙ্গলবার রাতে ওই বীর মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে উপস্থিত হয়ে প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে একটি দুর্যোগ সহনীয় ঘর ও সরকারি খাসজমি বন্দোবস্ত দেয়ার সিদ্ধান্তের ব্যাপারে অবগত করে অতি শিগগির বাস্তবায়ন করা হবে বলে তাকে জানানো হয়েছে।

এ নিয়ে নাইকা মার্ডি বলেন, অনেক আগেই মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি পেয়েছিলাম। স্বাধীনতাযুদ্ধে লাল-সবুজের পতাকা অর্জনে বেশ অবদান ছিল। ফলে তার অর্জন বৃথা যায়নি।

এতদিন পর হলেও সাংবাদিক ভাইদের লেখনীতে ইউএনওর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ঘর ও জমি বরাদ্দ পাচ্ছি। এতে আমি ও আমার পরিবার ইউএনও স্যার এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি ভীষণ খুশি।

প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ঘর-জমি পেলেন সেই নাইকা মার্ডি

 তানোর (রাজশাহী) প্রতিনিধি 
২৯ জুলাই ২০২০, ১২:৫৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নাইকা মার্ডি
ফাইল ছবি

প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ঘর ও জমি বরাদ্দ পাচ্ছেন রাজশাহীর তানোর উপজেলার মোহাম্মদপুর আদিবাসীপাড়ার বীর মুক্তিযোদ্ধা নাইকা মার্ডি।

দৈনিক যুগান্তর পত্রিকা ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে সংবাদ প্রকাশের পর মঙ্গলবার রাতে রাজশাহীর তানোর ইউএনও সুশান্ত কুমার মাহাতো ভূমি অফিসের কর্মকর্তাদের নিয়ে নাইকা মার্ডির বাড়িতে গিয়ে এ ঘোষণা দেন।

প্রসঙ্গত ‘৪৯ বছর পরও ঠাঁই খুঁজছেন মুক্তিযোদ্ধা নাইকা মার্ডি’– এই সংবাদ শিরোনামে গত ২৬ ও ২৭ জুলাই যুগান্তর অনলাইন ও পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়।

সংবাদে বলা হয়, বিগত ১০ বছর ধরে রাজনৈতিক নেতাকর্মী ও ভূমি অফিসে ধর্ণা দিয়েও বসতবাড়ির মাত্র ছয় শতক খাসজমি নিজের নামে করতে পারেননি নাইকা মার্ডি। ফলে চার সন্তানের ভবিষৎ নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন ভূমিহীন ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা নাইকা মার্ডি’।

যুগান্তরে এহেন সংবাদটি উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সুশান্ত কুমার মাহাতোর নজরে এলে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে উপজেলা ভূমি অফিস এবং উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে দুর্যোগ সহনীয় একটি ঘর ও জমি দেয়ার নীতিগত সিদ্ধান্তও নেন ইউএনও।

এ ব্যাপারে বুধবার সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুশান্ত কুমার মাহাতো যুগান্তরকে বলেন, সংবাদটি দেখার সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট দফতরকে নির্দেশ দেয়া হয়।

এর পর মঙ্গলবার রাতে ওই বীর মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে উপস্থিত হয়ে প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে একটি দুর্যোগ সহনীয় ঘর ও সরকারি খাসজমি বন্দোবস্ত দেয়ার সিদ্ধান্তের ব্যাপারে অবগত করে অতি শিগগির বাস্তবায়ন করা হবে বলে তাকে জানানো হয়েছে।  

এ নিয়ে নাইকা মার্ডি বলেন, অনেক আগেই মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি পেয়েছিলাম। স্বাধীনতাযুদ্ধে লাল-সবুজের পতাকা অর্জনে বেশ অবদান ছিল। ফলে তার অর্জন বৃথা যায়নি।

এতদিন পর হলেও সাংবাদিক ভাইদের লেখনীতে ইউএনওর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ঘর ও জমি বরাদ্দ পাচ্ছি। এতে আমি ও আমার পরিবার ইউএনও স্যার এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি ভীষণ খুশি।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন